বায়ার্ন মিউনিখ ৫    •    ফ্র্যাঙ্কফুর্ট ১

চোখের জলে ভাসলেন তাঁরা। আরয়েন রবেন এবং ফ্র্যাঙ্ক রিবেরি। শনিবার বুন্দেশলিগায় আইনট্র্যাখ্‌ট ফ্র্যাঙ্কফুর্টকে ৫-১ গোলে হারিয়ে বায়ার্ন মিউনিখকে বিদায় জানালেন বিশ্বফুটবলের দুই জনপ্রিয় তারকা।

লিগ খেতাব আগেই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। শনিবার আলিয়াঞ্জ এরিনায় এক দশকেরও উপরে প্রিয় ক্লাবের জার্সি পরে খেলতে নেমেছিলেন রবেন এবং রিবেরি। পরিবর্ত হিসেবে দুজনে নামলেন দ্বিতীয়ার্ধে। রিবেরি গোল করলেন ৭২ মিনিটে। তার আট মিনিটের মধ্যে গোল পেলেন ডাচ তারকাও। ম্যাচ শেষে রবেন বলে গেলেন, ‘‘যে কোনও বিদায়ই দুঃখজনক। তবে বাস্তবকে মেনে নিতেই হবে। ২০০৭ সালে আমি এই ক্লাবে এসেছিলাম। তার পরে মনপ্রাণ দিয়ে এই ক্লাবকে সাফল্য তুলে দিতে নিজেকে উজাড় করে দিয়েছি। সমস্ত দিক বিবেচনা করেই  এ বার বায়ার্ন ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। অনেক সুন্দর স্মৃতি নিয়েই এই অধ্যায় শেষ করছি।’’ সতীর্থ রিবেরি এই ক্লাবে পা রেখেছিলেন ২০০৯ সালে। ৩৬ বছরের ফরাসি তারকা বলেছেন, ‘‘যেন মনে হচ্ছে এই তো সে দিন এই ক্লাবের হয়ে খেলতে এলাম। কী ভাবে যে এতগুলো বছর কেটে গেল, তা ভাবতে গিয়ে নিজেই অবাকই হয়ে যাচ্ছি। আশা করি, বায়ার্ন ভবিষ্যতেও এ ভাবেই সাফল্য ছিনিয়ে নেবে। কারও প্রতি অনুযোগ নেই আমার।’’

পরিসংখ্যান বলছে, রবেন-রিবেরি জুটি বাইশটি বুন্দেশলিগা মরসুমে মোট ১৮৫ গোল করেছে। দু’জনে মিলে ক্লাবকে তুলে দিয়েছেন ১৫টি ট্রফি।  উল্লসিত বায়ার্ন ম্যানেজার নিকো কোভাচ বলেছেন, ‘‘ওদের দু’জন সম্পর্কে আমার নতুন ভাবে কিছু বলা শোভা পায় না। শুধু এটুকু বলতে পারি, মাঠে রবেন এবং রিবেরি থাকলে যে কোনও শক্তিশালী প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দিতে পারে বায়ার্ন। এই ক্লাবের প্রতি ওদের অবদান কোনও দিন ভোলা যাবে না। ফুটবলারদের কাছে আমার আবেদন, এর পরে জার্মান কাপ জিতে ওদের  সেরা সম্মান জানাতেই হবে।’’