মহেন্দ্র সিংহ ধোনি সম্পর্কে এখনই বাস্তবসম্মত সিদ্ধান্ত নেওয়া দরকার বলে মনে করেন গৌতম গম্ভীর। প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার মনে করেন, অধিনায়ক থাকার সময় ধোনি যেমন নতুনদের দলে চাইতেন, এখন তাঁর নিজের ক্ষেত্রেও সেটাই করা বাঞ্ছনীয়। 

ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা অধিনায়ক ধোনি ইতিমধ্যেই টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন। অনেকে মনে করছেন, সদ্যসমাপ্ত বিশ্বকাপে তিনি দেশের হয়ে শেষ ওয়ান ডে ম্যাচও খেলে ফেলেছেন। রবিবারই ভারতীয় নির্বাচকেরা ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের দল ঘোষণা করবেন। ঠিক তার আগেই, ধোনিকে নিয়ে গম্ভীর মুখ খুলে বিতর্কিত মন্তব্যই করে বসলেন।

এক টিভি চ্যানেলে প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার গম্ভীর বলেছেন, ‘‘সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে সামনের দিকে তাকিয়ে কাজ করা। ধোনি যখন অধিনায়ক ছিল তখনকার কথা ভাবুন। ও চিরকাল ভবিষ্যতের কথা ভেবে দল গড়ার মতামত দিয়েছে। আমার মনে আছে, অস্ট্রেলিয়ায় ও একবার আমাকেও এই একই ধরনের কথা বলেছিল। ওর বক্তব্য ছিল, সচিন (তেন্ডুলকর) আর সহবাগ (বীরেন্দ্র) কখনওই একসঙ্গে সিবি সিরিজে খেলতে পারে না সেখানকার মাঠের আয়তন অনেক বড় বলে।’’ 

গম্ভীর আরও বলেছেন, ‘‘ও চেয়েছিল বিশ্বকাপে তরুণরা খেলুক। আজ এই মুহূর্তেও আমাদের আবেগে না ভেসে উচিত বাস্তবসম্মত সিদ্ধান্ত নেওয়া। তা ছাড়া নতুনদের তৈরি করার এটাই তো সময়। তা সে ঋষভ পন্থ, সঞ্জু স্যামসন, ইশান কিষাণ— যে উইকেরক্ষকই হোক না কেন। এদের মধ্যে যাকে বেশি সম্ভাবনাময় মনে হবে, তাকে ভারতের উইকেটরক্ষকের জায়গা ছেড়ে দেওয়া উচিত।’’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘‘নতুন যাকে নেওয়া হবে তাকে অন্তত দেড় বছর যেন সুযোগ দেওয়া হয়। যদি সে না পারে, তা হলে অন্য কাউকে নিয়ে এসে চেষ্টা করা যেতে পারে। তা হলেই একমাত্র আমরা পরের বিশ্বকাপের জন্য উপযুক্ত উইকেরক্ষক খুঁজে বার করতে পারব।’’

ধোনির বিকল্প খোঁজার কথা বললেও গম্ভীর কিন্তু তাঁর প্রশংসাও করেছেন। বলেছেন, ‘‘পরিসংখ্যানের দিকে তাকালেই বুঝবেন ধোনি নিঃসন্দেহে ভারতের সেরা অধিনায়ক। কিন্তু তার মানে এই নয় যে, আমাদের অন্য অধিনায়করা খারাপ ছিলেন। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ভাল অধিনায়ক। আমরা ওর নেতৃত্বে বিদেশে জিতেছি। বিরাট কোহালির নেতৃত্বে দল দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ান ডে সিরিজ এবং অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট সিরিজ জিতেছে।’’ এখানেই না থেমে তিনি যোগ করেছেন, ‘‘এটা সত্যি যে, ধোনির নেতৃত্বে আমরা দু’বার বিশ্বকাপ জিতেছি। ওয়ান ডে এবং টি টোয়েন্টিতে। কিন্তু এই সাফল্যের জন্য সব কৃতিত্ব শুধুই অধিনায়কের, এমনটা আমি বিশ্বাস করি না। একই সঙ্গে দল খারাপ খেললে শুধুই অধিনায়কের সমালোচনা করাও ঠিক নয়। ধোনি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি আর বিশ্বকাপে সফল। কিন্তু অন্য অধিনায়করাও ভারতীয় ক্রিকেটকে এগিয়ে দিয়েছেন অনেকটা। বেশি দিনের জন্য না হলেও অনিল কুম্বলের মতো অধিনায়ক ঠিকঠাক নিজের কাজ করেছিল। রাহুল দ্রাবিড়ের নেতৃত্বেও ইংল্যান্ডে জিতেছে ভারত।’’

প্রাক্তন জাতীয় নির্বাচক সঞ্জয় জাগদালে আবার সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে শুক্রবার বলেছেন, ‘‘ধোনি যথেষ্ট পরিণত ক্রিকেটার। ফলে অবসর সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত ও-ই নিক।’’ আরও বলেছেন, ‘‘ধোনি নিঃসন্দেহে অনেক বড় মাপের ক্রিকেটার এবং বরাবর নিঃস্বার্থ ভাবে খেলেছে।’’ বরং তাঁর পরামর্শ, ‘‘ভবিষ্যতে ধোনি সম্পর্কে তাঁদের কী দৃষ্টিভঙ্গি, সেটা নির্বাচকদেরই জানানো দরকার ধোনিকে। জানা প্রয়োজন, ও নিজে কী ভাবছে।’’