প্রশ্ন: আপনার স্ত্রী প্রশ্ন তুলেছেন, মোবাইলে একাধিক মহিলার সঙ্গে আপনি অশ্লীল চ্যাটিং করছেন। আপনার কী বক্তব্য?

শামি: দেখুন, এই যে চ্যাটিংয়ের কথা বলা হচ্ছে, সেটা প্রমাণও করতে হবে। যদি এই বাড়িতে কিছু হয়ে থাকে ওর সঙ্গে, তা হলে এখানেও নিশ্চয়ই অভিযোগ দায়ের করে থাকবে। কিন্তু যতই যা অভিযোগ করা হচ্ছে, সবই আইনি মতে প্রমাণও করতে হবে।

প্রশ্ন: পাকিস্তানের এক মডেলের সঙ্গে আপনার সম্পর্কের কথা বলেছেন আপনার স্ত্রী। তা থেকে এমনকী, ম্যাচ গড়াপেটার সন্দেহও ছড়ানো হচ্ছে। কী বলবেন?

শামি: এটা পুরোপুরি আমার জীবনে অশান্তি সৃষ্টি করার জন্যই করা হচ্ছে। আপনারা সকলেই দেখতে পাচ্ছেন, কী ভাবে একটার পর একটা অভিযোগ আমার উপর চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আজ এতটাই দূর পৌঁছে গিয়েছে যে, ম্যাচ গড়াপেটার আঙুলও তুলছে আমার দিকে! আমি শুধু একটাই কথা বলব যে, সব কিছুরই তদন্ত করে দেখা হোক। খোঁজা হোক আমি কী অন্যায় করেছি।

প্রশ্ন: হোলির দিন আপনি স্ত্রী এবং বাচ্চাকে নিয়ে ইন্টারভিউ দিচ্ছিলেন। তখন তো আপনাদের খুব হাসিখুশি দেখাচ্ছিল। এমন কী ঘটল রাতারাতি যে, স্ত্রী এত গুরুতর অভিযোগ করলেন?

শামি: এটা তো ও-ই সব চেয়ে ভাল বলতে পারবে যে, এত তাড়াতাড়ি এত পরিবর্তন কী করে জীবনে ঘটে যেতে পারে যে, তিন দিন আগে আমরা খুব হাসিখুশি ছিলাম আর তিন দিনের মধ্যে একেবারে তুফান এসে সব তছনছ করে দিল! ওর উপরে হেনস্থা, অত্যাচারের অভিযোগ জমা দিচ্ছে। আমার বিরুদ্ধে অপরিচিত ব্যক্তিদের সঙ্গে মেলামেশার মাধ্যমে ম্যাচ গড়াপেটার দিকে আঙুল তুলছে। আমি তো এটাই বুঝতে পারছি না যে, ও কী করতে চায়! ওর মানসিক অবস্থাই তো ঠিক নেই মনে হচ্ছে। নাকি এটা আমার বিরুদ্ধে একটা বড় গেমপ্ল্যান, আমাকে ধ্বংস করার চেষ্টা। সেটাও হতে পারে। 

আরও পড়ুন: বোর্ডের দ্বারস্থ হতে পারেন ক্ষিপ্ত হাসিন

প্রশ্ন: আপনার স্ত্রী বলেছেন, তিন বছর ধরে এ রকমই চলছে। অনেক বার শুধরে যাওয়ার কথা বললেও আপনি শোনেননি।

শামি: যদি তিন বছর ধরেই অত্যাচার চলেছে, তা হলে এত দিন চুপচাপ থাকল কেন? মাত্র তিন দিন আগে মুখ খুলতে শুরু করল কেন?

প্রশ্ন: এর আগে কখনও আপনাকে এ সব নিয়ে অভিযোগ করেছেন হাসিন? আপনার অন্য নারীর সঙ্গে সম্পর্ক, তাঁদের সঙ্গে অশ্লীল চ্যাটিং বা ওঁর উপরে শারীরিক এবং মানসিক অত্যাচারের কথা কখনও জানিয়েছেন আপনাকে?

শামি: সব চেয়ে বড় কথা হচ্ছে, আমার যদি অন্য কোনও মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক থাকে, তা হলে সেই মেয়েরাও তো কিছু প্রকাশ করে দিতে পারে। এ সব অভিযোগই প্রমাণ করতে হবে। অনেক কুকর্মের অভিযোগই আমার উপর চাপানো হচ্ছে। আমার একটাই কথা। সব প্রমাণ করতে হবে।

প্রশ্ন: এর পর কী হবে? আপনি কী ভাবে এই পরিস্থিতির মোকাবিলা করবেন?

শামি: আমি আইনি পথেই এই ঘটনার মোকাবিলা করব। আমি এবং আমার পরিবার সারা দিন ধরে ওর (স্ত্রী হাসিনের) সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেছি। আমরা সকলে চেয়েছি, ওর সঙ্গেই থাকতে। আমি একটাই কথা বলব যে, আমি বরাবর ওকেই ভালবেসেছি। আমরা খুব সুখীও ছিলাম। তবে ওর মাথায় নিশ্চয়ই কোনও জোরাল বুদ্ধি চলছে। খুব বড় কোনও ‘প্ল্যান’ চলছে। কী সেই পরিকল্পনা, জানার পরেই আমি আপনাদের সব কিছু বলতে পারব।

প্রশ্ন: হাসিনের সঙ্গে আপনার কোনও যোগাযোগ হয়েছে?

শামি: আপনারা ওর ফোন দেখতে পারেন। কাল থেকে অনেক বার বোঝানোর চেষ্টা করে গিয়েছি যে, ঘরের ব্যাপার আমরা নিজেরা বসে সব ঠিক করি। আমার পরিবারও তা-ই চায়। বাচ্চার ভবিষ্যতের ব্যাপারও রয়েছে। কিন্তু ওর দিক থেকে সাড়া পাওয়া যায়নি এখনও।

প্রশ্ন: বোর্ডের চুক্তি থেকে আপনাকে বাইরে রাখা হয়েছে। সেটা নিয়ে কী বলবেন?

শামি: চুক্তিতে থাকতে না পেরে আমার খারাপ লেগেছে ঠিকই। কিন্তু ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের উপর আমার পূর্ণ আস্থা আছে। নিশ্চয়ই ওরা সব দিক খতিয়ে দেখে তবেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন। আমি নিশ্চিত, বোর্ড আইনি মতেই এ ব্যাপারে এগোতে চাইবে।