২০২২ কমনওয়েলথ গেমস থেকে শুটিংকে বাদ দেওয়ার প্রতিবাদে ভারতীয় অলিম্পিক সংস্থা হুমকি দিয়েছিল প্রতিযোগিতা বয়কট করার। তবে, তারকা ভারতীয় শুটার হিনা সিধু মনে করেন, প্রতিবাদ করতে গিয়ে যেন অন্য খেলোয়াড়দের উপরে তার প্রভাব না পড়ে সেটা দেখা দরকার। তাঁর মতে, ভারতের ক্ষমতা রয়েছে এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়াই করার।

বয়কট এই সমস্যার কতটা সমাধান করতে পারে প্রশ্ন করলে সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে হিনা বলেছেন, ‘‘শুটিং ছাড়া অন্য খেলোয়াড়দের যেন এর জন্য ভুগতে না হয়, সেটা দেখতে হবে। তারা যেন কমনওয়েলথ গেমসে যোগ দিতে পারে। তবে আমার মনে হয়, একসঙ্গে এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আমাদের লড়াই করতে হবে।’’ কমনওয়েলথ গেমসের আয়োজকদের সঙ্গে সহমত নন বিশ্বকাপ ফাইনাল থেকে ভারতকে সোনা এনে দেওয়া দেশের প্রথম পিস্তল শুটার হিনা। ‘‘যা হচ্ছে, ঠিক হচ্ছে না। যে কারণ দেখিয়েছে ওরা শুটিংকে প্রতিযোগিতায় না রাখার জন্য, সেটাও মেনে নেওয়া যাচ্ছে না। বলা হয়েছে শুটিং রেঞ্জ নিয়ে সমস্যা হচ্ছে। তা হলে অস্থায়ী শুটিং রেঞ্জ করা হোক। শুটিংকে রাখা হয়নি প্রতিযোগিতায়, অথচ মেয়েদের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট রয়েছে। বলা হয়েছে লিঙ্গ বৈষম্য দূর করার কথা ভেবেই এই সিদ্ধান্ত। তা হলে পুরুষদের ক্রিকেট রাখা হল না কেন,’’ প্রশ্ন হিনার। 

কমনওয়েলথ গেমস থেকে সরলেও ২০২৮ লস অ্যাঞ্জেলিস অলিম্পিক্স পর্যন্ত শুটিংয়ের থাকা নিশ্চিত। যা স্বস্তিতে রাখছে হিনাকে। ‘‘আন্তর্জাতিক শুটিং সংস্থা, জাতীয় শুটিং সংস্থা, ভারতীয় অলিম্পিক সংস্থা ও কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রক ২০২২ কমনওয়েলথ গেমসে শুটিংকে রাখার জন্য প্রবল চেষ্টা করছে। তবে আমার মনে হয় না, এই সিদ্ধান্ত পাল্টাবে,’’ বলেন হিনা। 

তাঁকে কোন বিষয়টা চিন্তায় রাখছে প্রশ্ন করলে হিনা বলেন, ‘‘প্রথমত অনেক দেশেই শুটিংয়ের সে রকম দর্শক নেই। একটা সময় মানুষ হয়তো বন্দুক নিয়ে খেলার থেকে দূরে থাকতে চাইবে। কারণ প্রচুর নিয়ম কানুন মানতে হয় এ জন্য।’’ আসলে হিনা বলতে চাইছেন, বিমানবন্দরে বন্দুক, গুলি নিয়ে খেলোয়াড়দের যাতায়াত করার সময় সহযাত্রীরা স্বস্তিতে থাকেন না।

তবে বহু প্রতিযোগিতায় সোনাজয়ী, আন্তর্জাতিক সম্মান এনে দেওয়া শুটার অবশ্য খুব খুশি তাঁর নাম রাজীব গাঁধী খেলরত্ন পুরস্কারের জন্য মনোনীত হওয়ায়। ‘‘খুব ভাল খবর। এত বছর ধরে নিজেকে প্রমাণ করে এসেছি। জাতীয় শুটিং সংস্থাকে ধন্যবাদ আমার নাম মনোনয়নের জন্য,’’ বলেছেন হিনা। টানা প্রতিযোগিতায় নামার ধকল কাটানোর জন্য আপাতত বিশ্রামে হিনা। তরতাজা হয়ে নামতে চান ২০২০ অলিম্পিক্সে যোগ্যতা 

অর্জন পর্বে।