ফিঞ্চের সেঞ্চুরিতে শীর্ষে অস্ট্রেলিয়া
৪৬ রানের মধ্যে সাত উইকেট হারিয়ে শেষ চারের লড়াই থেকে অনেকটাই পিছিয়ে গেল শ্রীলঙ্কা। পাঁচ ম্যাচ খেলে তাদের পয়েন্ট এখন চার। শেষ চার ম্যাচে প্রত্যেকটি না জিতলে শেষ চারের রাস্তা কঠিন।  
Finch

১৩২ বলে ১৫৩ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেললেন অ্যারন ফিঞ্চ।—ছবি পিটিআই।

জেতার পরিস্থিতি তৈরি করেও অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ৮৭ রানে হার শ্রীলঙ্কার। প্রশ্ন উঠতেই পারে, ৮৭ রানে যখন হার তা হলে জেতার পরিস্থিতি কখন তৈরি হল? কখনই বা হাত থেকে বেরিয়ে গেল? রবিবার ওভালে ৩৩৫ তাড়া করতে নেমে তিন উইকেটে এক সময় ২০৪ রান ছিল শ্রীলঙ্কার। সেখান থেকে ২৪৭-এ শেষ হয়ে যায় অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজরা।

৪৬ রানের মধ্যে সাত উইকেট হারিয়ে শেষ চারের লড়াই থেকে অনেকটাই পিছিয়ে গেল শ্রীলঙ্কা। পাঁচ ম্যাচ খেলে তাদের পয়েন্ট এখন চার। শেষ চার ম্যাচে প্রত্যেকটি না জিতলে শেষ চারের রাস্তা কঠিন।  

শেষ দু’দিন বৃষ্টি হওয়ায় শনিবার ওভালের পিচ ছিল স্যাঁতসেঁতে। তাই টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক দিমুথ করুণারত্নে। কিন্তু লাসিথ মালিঙ্গা, নুয়ান প্রদীপরা শুরুর এক ঘণ্টা কাজে লাগাতে পারেননি। অস্ট্রেলিয়ার প্রথম উইকেট পড়ে ১৭তম ওভারে। ৪৮ বলে ২৪ রান করে ফিরে যান ডেভিড ওয়ার্নার। দ্বিতীয় উইকেট পড়তেও বেশি সময় লাগেনি। ১০০ রানের মধ্যে দ্বিতীয় উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। ১০ রান করে ফিরে যান উসমান খোয়াজা। সেখান থেকে ৫০ ওভারে সাত উইকেট হারিয়ে ৩৩৪ রান করে অস্ট্রেলিয়া। তার অন্যতম কাণ্ডারি অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। ১৩২ বলে ১৫৩ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন তিনি। 

খোয়াজা ফিরে যাওয়ার পরে ফিঞ্চকে সঙ্গ দেন স্টিভ স্মিথ। ৫৯ বলে ৭৩ রানের সৌজন্যে। অধিনায়কের সঙ্গে ১৭৩ রানের জুটি প্রাক্তন অধিনায়কের। ফিঞ্চ ও স্মিথ ফিরে যাওয়ার পরে সেই ছন্দ ধরে রাখেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ২৫ বলে অপরাজিত ৪৬ রান করেন পাঁচটি চার ও একটি ছয়ের সাহায্যে। 

শ্রীলঙ্কা অধিনায়কের লড়াইয়েও খামতি ছিল না। ১০৮ বলে ৯৭ রান করেন বাঁ-হাতি ওপেনার। ৫২ করেন কুশল পেরেরা।

স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া                            ৩৩৪-৭ (৫০)
শ্রীলঙ্কা                                 ২৪৭ (৪৫.৫)

অস্ট্রেলিয়া 
ওয়ার্নার বো ডি সিলভা                      ২৬•৪৮
ফিঞ্চ ক করুণারত্নে বো উদানা  ১৫৩•১৩২
খোয়াজা ক উদানা বো ডি সিলভা   ১০•২০
স্মিথ বো মালিঙ্গা                         ৭৩•৫৯
ম্যাক্সওয়েল ন. আ.                      ৪৬•২৫
মার্শ ক সিরিবর্ধন বো উদানা              ৩•৯
ক্যারি রান আউট                              ৪•৩
কামিন্স রান আউট                            ০•১
স্টার্ক ন. আ.                                     ৫•৪
অতিরিক্ত                       ১৪
মোট                                            ৩৩৪-৭ (৫০)
পতন: ১-৮০ (ওয়ার্নার, ১৬.৪), ২-১০০ (খোয়াজা, ২২.৬), ৩-২৭৩ (ফিঞ্চ, ৪২.৪), ৪-২৭৮ (স্মিথ, ৪৩.৩), ৫-৩১০ (মার্শ, ৪৬.৬), ৬-৩১৭ (ক্যারি, ৪৮.১), ৭-৩২০ (কামিন্স, ৪৮.৩)। 
বোলিং: লাসিথ মালিঙ্গা ১০-১-৬১-১, নুয়ান প্রদীপ ১০-০-৮৮-০, ইসুরু উদানা ১০-০-৫৭-২, থিসারা পেরেরা ১০-০-৬৭-০, ধনঞ্জয় ডি সিলভা ৮-০-৪০-২, মিলিন্দ সিরিবর্ধন ২-০-১৭-০।
শ্রীলঙ্কা 
করুণারত্নে ক গ্লেন বো রিচার্ডসন        ৯৭•১০৮
কুশল বো স্টার্ক                            ৫২•৩৬
থিরিমানে ক ক্যারি বো বেহরেনডর্ফ      ১৬•২৬
মেন্ডিস ক ক্যারি বো স্টার্ক                    ৩০•৩৭
ম্যাথেউজ ক ক্যারি বো কামিন্স                ৯•১১
সিরিবর্ধন বো স্টার্ক                                     ৩•৪
পেরেরা ক ওয়ার্নার বো স্টার্ক                      ৭•৩
ডি সিলভা ন.আ                                     ১৬•৩০
উদানা ক ফিঞ্চ বো রিচার্ডসন                      ৮•৮
মালিঙ্গা ক খোয়াজা বো রিচার্ডসন               ১•৫
প্রদীপ ক ক্যারি বো কামিন্স                         ০•৭
অতিরিক্ত                         ৮ মোট                                            ২৪৭ (৪৫.৫)
পতন: ১-১১৫ (কুশল, ১৫.৩), ২-১৫৩ (থিরিমানে, ২৩.৫), ৩-১৮৬ (করুণারত্নে, ৩২.১), ৪-২০৫ (ম্যাথেউজ, ৩৫.৪), ৫-২০৯ (সিরিবর্ধন, ৩৬.২), ৬-২১৭ (পেরেরা, ৩৬.৬), ৭-২২২ (মেন্ডিস, ৩৮.১), ৮-২৩৬ (উদানা, ৩৯.৬), ৯-২৩৭ (মালিঙ্গা, ৪১.৪), ১০-২৪৭ (প্রদীপ, ৪৫.৫)।
বোলিং: মিচেল স্টার্ক ১০-০-৫৫-৪, প্যাট কামিন্স ৭.৫-০-৩৮-২, জেসন বেহরেনডর্ফ ৯-০-৫৯-১, কেন রিচার্ডসন ৯-১-৪৭-৩, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ১০-০-৪৬-০।

 

ম্যাচের
Live
স্কোর