বার্মিংহামে ফিরে এল বিমান বিতর্ক
প্রসঙ্গত এ বারের বিশ্বকাপে এই ঘটনা নতুন নয়। গ্রুপ লিগে পাকিস্তান বনাম আফগানিস্তান ম্যাচের দিনে দু’দেশের সমর্থকদের মধ্যে গণ্ডগোলের পাশাপাশি আকাশেও এ ভাবেই একটি বিমানকে উড়তে দেখা  গিয়েছিল।
Banner

এই সেই ব্যানার।—ছবি টুইটার।

চলতি বিশ্বকাপে আকাশপথে রাজনৈতিক প্রতিবাদ অব্যাহত। বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়া বনাম ইংল্যান্ড ম্যাচ চলাকালীন ফের দেখা গেল প্রতিবাদের ছবি।

এ দিন অস্ট্রেলিয়া দলের ব্যাটিংয়ের সময় আকাশে দেখা যায় ছোট একটি বিমানকে। বিমানের সঙ্গে লাগানো ব্যানারে লেখা ছিল, ‘‘বালোচিস্তানের জন্য কথা বলা উচিত বিশ্বের।’’ বেশ কয়েক বার বার্মিংহামের আকাশে ঘোরার পরে বিমানটি চলে যায়। যা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে, খেলার মঞ্চে কেন বারবার এ ভাবে রাজনৈতিক প্রচার চলছে?

প্রসঙ্গত এ বারের বিশ্বকাপে এই ঘটনা নতুন নয়। গ্রুপ লিগে পাকিস্তান বনাম আফগানিস্তান ম্যাচের দিনে দু’দেশের সমর্থকদের মধ্যে গণ্ডগোলের পাশাপাশি আকাশেও এ ভাবেই একটি বিমানকে উড়তে দেখা  গিয়েছিল। যার সঙ্গে লাগানো ব্যানারে বালোচিস্তানের মানুষের পাশে থাকার আবেদন জানানো হয়েছিল।

তার পরে গত শনিবার ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা ম্যাচের দিন হেডিংলেতেই একই ভাবে কাশ্মীর নিয়ে ‘আপত্তিকর’ বার্তা বহনকারী বিমান নিয়ে তীব্র বিতর্ক শুরু হয়। কাশ্মীর নিয়ে পাক মনোভাবাপুষ্ট ব্যানারের সঙ্গে ভারতের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারিসূচক বার্তা ওড়ানো হয়েছিল বিমান থেকে। যার সূত্র ধরে ভারতীয় বোর্ডের পক্ষ থেকে আইসিসিকে কড়া চিঠি দেওয়া হয়। তারই সঙ্গে লন্ডনে ভারতীয় হাইকমিশনের সঙ্গেও যোগাযোগ করা হয়েছিল। 

অস্বস্তি কাটাতে আইসিসি জানিয়েছিল, ভবিষ্যতে যাতে এমন ঘটনা না ঘটে, তার জন্য কড়া পদক্ষেপ করা হবে। বিশ্বক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা এমন আশ্বাসও দেয় যে, সেমিফাইনালে দু’টি ম্যাচ এবং ফাইনাল ম্যাচের সময় মাঠের উপর দিয়ে বিমান চলাচল পুরোপুরি বন্ধ রাখা হবে। 

কিন্তু দেখা গেল, আইসিসি-র সেই আশ্বাস মুখেই রয়ে গিয়েছে। বাস্তবে তার কোনও প্রভাব পড়েনি। কোনও কড়া ব্যবস্থাও নেওয়া হয়নি। না হলে কী ভাবে হেডিংলের আকাশে আবার বৃহস্পতিবার বিমানে বালোচিস্তানের পক্ষে প্রচার চালানো সম্ভব হল?

ম্যাচের
Live
স্কোর