মাঠের বাইরে থেকে উড়ে আসা কটাক্ষে কান দেন না স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নাররা। মাঠের ভিতরে আগ্রাসী ক্রিকেট খেলার জন্য বিখ্যাত অজিদের মাঠের বাইরের ঘটনাতেও ‘ডোন্ট কেয়ার’ ভাব।

সেটাই দেখা গেল সাউদাম্পটনে। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দুই তারকা ক্রিকেটার যখন ব্যাট করতে নামেন তখনই তাঁদের উদ্দেশে গ্যালারি থেকে উড়ে আসে প্রবল বিদ্রুপ। প্রতারক বলা হয় তাঁদের। বল বিকৃতির জন্য এক বছর নিষিদ্ধ ছিলেন স্মিথ-ওয়ার্নার। শাস্তি কাটিয়ে ফিরলেও তার জের এখনও চলছে। শনিবার টস জিতে অস্ট্রেলিয়াকে ব্যাট করতে পাঠিয়েছিল ইংল্যান্ড। ওপেনার ওয়ার্নারকে ক্রিজে দেখেই এক দর্শক বলে ওঠেন, ‘‘মাঠ ছাড়ো ওয়ার্নার, তুমি প্রতারক।’’ আইপিএলে কথা বলেছে ওয়ার্নারের ব্যাট। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে করলেন ৫৫ বলে ৪৩ রান।

তিন নম্বরে ব্যাট করতে এসে স্মিথকেও একই রকম অভিজ্ঞতার মুখে পড়তে হয়। তাঁকেও দর্শকরা বলেন, ‘‘প্রতারক।’’ সেই সব সমালোচনায় অবশ্য কর্ণপাত করেননি স্মিথ।

আরও খবর: শোচনীয় ব্যাটিং বিপর্যয়ের পরেও দলের এই তারকা বলছেন, ‘চিন্তার কারণ নেই’

আরও খবর:  বিরাট নির্ভরতা ভুলে রান করতে হবে রাহুলদেরও

১০২ বলে ১১৬ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলেন স্মিথ। পরে দর্শকদের বিদ্রুপ প্রসঙ্গে স্মিথ বলেন, ‘‘প্রত্যেকেরই মতামত প্রকাশের অধিকার আছে। আমি যখন খেলতে নামি তখন দর্শকদের বক্তব্যকে খুব একটা গুরুত্ব দিই না। ব্যাট করতে নেমেছিলাম যখন, তখনই কয়েকটা কথা কানে এসেছিল। কিন্তু আমি মাথা ঠান্ডা রেখে নিজের কাজ করে গিয়েছি।’’ বিশ্বকাপেও এরকমই দুয়ো শুনতে হতে পারে স্মিথ-ওয়ার্নারদের। কিন্তু, সে সবকে উড়িয়ে দিচ্ছেন স্মিথ।