আসন্ন বিশ্বকাপের অন্যতম শক্তি হিসেবে দেখা হচ্ছে ইংল্যান্ডকে। জনি বেয়ারস্টো, বেন স্টোকস, জো রুট, অইন মর্গ্যান, জোফ্রা আর্চারের মতো ম্যাচউইনার রয়েছে সে দলে। 

কিন্তু প্রাক্তন বিশ্বজয়ী অধিনায়ক রিকি পন্টিং জানিয়ে দিলেন, ইংল্যান্ড দলে সব চেয়ে ভয়ঙ্কর ক্রিকেটারের নাম জস বাটলার। তিনি একাই যে কোনও দলের বিরুদ্ধে পার্থক্য গড়ে দিতে পারেন।

বুধবার ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ওয়েবসাইটে পন্টিং বলেন, ‘‘ইংল্যান্ডের সব চেয়ে ভয়ঙ্কর ক্রিকেটার হতে চলেছে বাটলার। শেষ দু-তিন বছরে ওর মতো উন্নতি করতে কম ক্রিকেটারকেই দেখেছি। আইপিএলেই তিন থেকে চার বছর আগে ওকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার সুযোগ এসেছিল। তখনও আমি মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের সঙ্গেই যুক্ত ছিলাম।’’

পন্টিং জানিয়েছেন, শুধু টি-টোয়েন্টি নয়। সব ধরনের ক্রিকেটেই উন্নতি করেছে বাটলার। বলছিলেন, ‘‘ওর ওয়ান ডে ম্যাচ দেখুন। টেস্টে ব্যাটিং দেখুন। সব ম্যাচেই সাবলীল।’’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘‘বিশ্বকাপে ও হয়তো উইকেটকিপিং করবে না। তবুও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বের অন্যতম সেরা। যে কোনও দিকে শট নেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে। ওর জোরও প্রচণ্ড। বড় শট নিতে ভয় পায় না।’’

একই দিনে প্রাক্তন অস্ট্রেলীয় পেসার ব্রেট লি জানিয়ে দিলেন, ইয়র্কারই হতে পারে অস্ট্রেলীয় পেসারদের অস্ত্র। কারণ, যে হেতু শোনা যাচ্ছে ইংল্যান্ডে বল সুইং করবে না। পিচ থেকে পাওয়া যাবে না কোনও সাহায্য। অ্যাডাম গিলক্রিস্ট জানিয়েছেন, এ বার হয়তো ওয়ান ডে-তে ৫০০ রানের ইনিংসও দেখা যেতে পারে। কিন্তু ব্যাটিং পিচে ব্যাটসম্যানদের আটকানোর ছক বানিয়ে ফেলেছেন লি। প্রাক্তন অস্ট্রেলীয় পেসার বলে দিয়েছেন, ‘‘পৃথিবীর যে কোনও পিচেই ইয়র্কার ভয়ঙ্কর ডেলিভারি। আমাদের বোলাররা সেটা ভালই পারে। ওদের একটি কথাই বলার, যতটা সম্ভব ইয়র্কার ব্যবহার করুক। স্টার্ক ইনসুইং ইর্য়কার দিতে পারে। প্যাট কামিন্সের ইয়র্কার খারাপ নয়।’’ যদিও জশ হেজ্লউডকে দলে না নেওয়ায় অবাক হয়েছেন ব্রেট। বলেছেন, ‘‘ভেবেছিলাম জশ খেলবে বিশ্বকাপে।’’