নিজস্ব প্রতিবেদন

 

২৭ মে: সাম্প্রতিক কালে ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাফল্যের নেপথ্যে তাঁর ভূমিকা উঠে আসে বার বার। বলা হয়, কোচ রবি শাস্ত্রীই ভারতীয় ড্রেসিংরুমে সুখী পরিবেশ বজায় রাখার পাশাপাশি দলকে করে তুলেছেন আগ্রাসী।

জনপ্রিয় এই ভারতীয় কোচের জন্মদিন ছিল সোমবার। এ দিনই ৫৮ বছরে পা দিলেন শাস্ত্রী। জন্মদিন উপলক্ষে সোশ্যাল মিডিয়ায় উপচে পড়েছে শুভেচ্ছা, অভিনন্দন। অধিনায়ক বিরাট কোহালি, সচিন তেন্ডুলকর থেকে শুরু করে দেশের বিভিন্ন স্তর থেকেই 

শুভেচ্ছাবার্তা এসেছে।

কোচকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহালির টুইট, ‘একজন বন্ধু, মেন্টর ও সবার উপরে একজন দুর্দান্ত মানুষ। শুভ জন্মদিন রবি ভাই।’ যা দেখে পাল্টা টুইট করেন আপ্লুত শাস্ত্রীও। লেখেন, ‘ধন্যবাদ ক্যাপ্টেন। তোমার শুভেচ্ছা আমার কাছে বড় প্রাপ্তি।’ সহ-অধিনায়ক রোহিত শর্মাও কোচকে জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়ে লেখেন, ‘তোমার জীবনে আরও সুখ ও সাফল্য আসুক রবি ভাই।’ জবাবে তাঁকে শাস্ত্রী লেখেন, ‘ধন্যবাদ, আমার হিটম্যান’। 

শাস্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে সচিন লেখেন, ‘শুভ জন্মদিন রবি শাস্ত্রী। বিশ্বকাপের জন্য আগাম শুভেচ্ছা।’ তাঁকেও শাস্ত্রী বলেন, ‘তোমার শুভেচ্ছা বড় প্রাপ্তি।’

আজ, মঙ্গলবার বাংলাদেশের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচ। কোচের জন্মিদন পালনের মাঝেই সেই ম্যাচের প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারত। আর সেই ম্যাচ হবে ক্রিকেটার জীবনে রবি শাস্ত্রীর কাউন্টি দল গ্লেমর্গ্যানের মাঠ কার্ডিফেই। তাই জন্মদিনে সেই মাঠে এ দিন ধরা দেন স্মৃতিমেদুর শাস্ত্রী। আইসিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‘ওয়েলসে জীবনের অনেক সুন্দর মুহূর্ত কাটিয়েছি। এই জায়গাটাকে আমার দ্বিতীয় বাড়িই বলা যায়।’’ নস্ট্যালজিক শাস্ত্রী আরও বলেন, ‘‘গ্লেমর্গ্যানে ছয় মরসুম খেলেছি। এখানকার সব জায়গাই আমার চেনা। প্রথমে টর্নহিলে থাকতাম। তার পরে সালিতে থেকেছি। এখন যে জায়গায় রয়েছি, তখন পাশেই ছিল বন্দর। কত বদলে গিয়েছে জায়গাগুলো।’’

ইংল্যান্ডে ভারতীয় দলের অনেক স্মরণীয় জয় রয়েছে। এ বারের বিশ্বকাপও ইংল্যান্ডে। শাস্ত্রীর কাছে জানতে চাওয়া হয়, ইংল্যান্ডে তাঁর স্মরণীয় জয় কোনটি? ভারতীয় কোচ বলেন, ‘‘অবশ্যই প্রথমে আসবে ১৯৮৩ সালের বিশ্বকাপ জয়। তার পরে ১৯৮৬ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ জয়। তখন ভারতীয় দল দুর্দান্ত ছিল। ১৯৮৩ থেকে ১৯৮৮, এই সময়ে সব ফর্ম্যাটেই বিশ্বের সর্বত্র দুরন্ত খেলেছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। ইংল্যান্ডে সে বার আমরা টেস্ট সিরিজ জিতেছিলাম ২-০।’’ সব শেষে জানতে চাওয়া হয়েছিল, সোমবার জন্মদিনের উৎসব কী ভাবে পালন করবেন? তা শুনেই হাসতে থাকেন শাস্ত্রী। বলেন, ‘‘এই বয়সে এসে আর কী উৎসব করব। বিকেলে দলের ছেলেদের নিয়ে চুটিয়ে আড্ডা হবে।’’