বিশ্বকাপে বিরাট কোহালির দলের ভাল সম্ভাবনা দেখছেন শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন পেসার চামিন্ডা ব্যাস। তাঁর মতে বিরাট কোহালির দল এই মুহূর্তে ভাল ছন্দে রয়েছে। ভারতীয় দলের ধারাবাহিকতা ও ভারসাম্য নিয়েও মুগ্ধ শ্রীলঙ্কার এই প্রাক্তন পেসার। বিশ্বকাপে তাই মহেন্দ্র সিংহ ধোনিদের সেমিফাইনালে দেখছেন চামিন্ডা।

ভারতীয় দল নিয়ে মন্তব্য করলেও নিজের দেশ শ্রীলঙ্কা নিয়ে সে রকম কোনও সম্ভাবনার কথা শোনাননি দ্বীপরাষ্ট্রের এই প্রাক্তন ক্রিকেটার। যদিও লাসিথ মালিঙ্গা যে শ্রীলঙ্কার হয়ে ইংল্যান্ডে তাঁদের বড় ভরসা সে ব্যাপারে নিজের আশা ব্যক্ত করেন এই প্রাক্তন ক্রিকেটার।

তাঁর কথায়, ‘‘গত দু’তিন বছর ধরে ভারতীয়রা মাঠের মধ্যে বিশ্ব ক্রিকেটকে নিয়ন্ত্রণ করছে। ওদের দলে ভাল পেসার যেমন রয়েছে। তেমনই বিকল্প বোলাররাও বেশ ভাল। যাঁরা চমক দেখাতেই পারেন। আমার ধারণা ভারত 

সেমিফাইনালে যাবেই।’’

তাঁর নিজের দেশ শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপ-ভবিষ্যৎ সম্পর্কে চামিন্ডা যোগ করেন, ‘‘গত কয়েক মাসে ভাল ফল করেনি শ্রীলঙ্কা। তবে বিশ্বকাপের জন্য যে দলটা নির্বাচকরা বেছেছেন, তা একদম ঠিক। দলটার ভারসাম্য রয়েছে। এ বার বাকি সাফল্য নির্ভর করবে ঠিক সময়ে খেলোয়াড়দের জ্বলে ওঠার উপরে।’’ সঙ্গে মালিঙ্গার ভূয়সী প্রশংসা করে টেস্ট ক্রিকেটে ৩৫৫ ও একদিনের ক্রিকেটে ৪০০ উইকেটের মালিক চামিন্ডা ব্যাস বলেন, ‘‘মালিঙ্গা এই মুহূর্তে বিশ্বের অন্যতম একজন সেরা বোলার সে ব্যাপারে কোনও সন্দেহ নেই। ওর নেতৃত্ব দিয়ে খেলার ক্ষমতা আছে। বিশ্বকাপে আমরা ওর উপরে অনেকটাই নির্ভর করব। মালিঙ্গা যে দলের হয়ে খেলে তাদের হয়ে নিজের সেরাটা উজাড় করে দেয়। এই আইপিএলেই মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে খেলার ফাঁকেই শ্রীলঙ্কায় গিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেটের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ খেলে এল। এতেই প্রমাণ হয়, ওর দায়িত্ববোধ। তাই বিশ্বকাপে আমাদের প্রধান ভরসা মালিঙ্গা।’’ 

এই মুহূর্তে স্থানীয় একটি টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতার উদ্বোধন উপলক্ষে মুম্বইয়ে রয়েছেন চামিন্ডা ব্যাস। তাঁর সঙ্গে রয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন বাঁ হাতি স্পিনার রঙ্গনা হেরাথও। তিনি আবার আশাবাদী ভারতীয় স্পিনারদের নিয়ে। টেস্ট ক্রিকেটে ৪৩৩ উইকেটের মালিক হেরাথ বলছেন, ‘‘ভারতীয় পেসারদের মতো স্পিনাররাও দুর্দান্ত বল করছে। বিশেষ করে যুজবেন্দ্র চহাল ও কুলদীপ যাদব। সঙ্গে রয়েছে রবীন্দ্র জাডেজা। আমি নিশ্চিত, বিশ্বকাপে ভারতীয় স্পিনাররাও সেরা ছন্দে বল করবে।’’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘‘বিপক্ষ স্কোরবোর্ডে বেশি রান তুলতে পারে। কিন্তু ডান হাতি লেগস্পিনার চহাল ও চায়নাম্যান কুলদীপ যে কোনও পরিস্থিতিতে উইকেট তুলে খেলাটা ঘুরিয়ে দিতে পারে। সে কারণেই ওদের দলে রাখা হয়েছে।’’ হেরাথ আরও বলেন, ‘‘বিশ্বকাপ হবে ইংল্যান্ডের বিভিন্ন মাঠে। পরের দিকে স্পিনারদের সুবিধা হবে। পাশাপাশি শুরুর দিকেও শুকনো খটখটে পিচ পাওয়া যাবে। ফলে স্পিনাররা এই বিশ্বকাপে তুরুপের তাস হবে।’’