অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম বল পড়ার আগেই উইকেট দেখে ক্ষুব্ধ পাকিস্তান দলের অধিনায়ক সরফরাজ় আহমেদ।

বুধবার টনটনে অ্যারন ফিঞ্চদের বিরুদ্ধে খেলতে নামবে পাকিস্তান। যারা শেষ ম্যাচে ভারতের বিরুদ্ধে হারের পরে রীতিমতো মরিয়া হয়ে পড়েছে জয়ে ফেরার জন্য। আর সেই দ্বৈরথে টনটনের উইকেট পথের কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে পাক শিবিরের কাছে। সোমবার টনটনের উইকেট দেখতে গিয়েছিলেন সরফরাজ়। তখনই তিনি বুঝতে পারেন উইকেটে যথেষ্ট পরিমাণে বাউন্স রয়েছে, যা ভয়ঙ্কর করে তুলতে পারে মিচেল স্টার্ক, প্যাট কামিন্সদের। আর তা অনুধাবন করেই উদ্বেগ বেড়েছে সরফরাজ়ের। এর আগে ট্রেন্ট ব্রিজে এমনই বাউন্সি পিচে আন্দ্রে রাসেল, ওশেন থমাসদের শর্ট বলের ধাক্কায় ভেঙে পড়েছিল পাক ব্যাটিং লাইন-আপ। এ বারও কি তেমনই কিছু অপেক্ষা করে রয়েছে?

দেশের সংবাদমাধ্যমে সরফরাজ় ক্ষোভ প্রকাশ করে জানিয়েছেন, আইসিসি কখনও পাকিস্তানকে তাদের পছন্দের উইকেট দিতে চায় না। যে সুবিধা পেয়ে থাকে ভারত এবং ইংল্যান্ডের মতো দলগুলি। যদিও পাক অধিনায়কের মতামতে সম্মতি দিতে পারেননি দলের বোলিং কোচ আজ়হার মামুদ। তিনি জানিয়েছেন, অতীতের ভুল শুধরে নিয়ে তাঁদের দলের বোলাররাও উইকেট থেকে বাড়তি সুবিধা আদায় করে নিতে তৈরি। ফলে উইকেট নিয়ে বাড়তি উদ্বেগের প্রয়োজন নেই।

তবে যদি সত্যিই টনটনের উইকেট বাউন্সি হয়ে থাকে, তবে সরফরাজ়ের কাছে আশ্বাসের খবর হতে পারে আবহাওয়া। জানানো হয়েছে, বুধবার বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তারই সঙ্গে বইতে পারে ঠান্ডা হাওয়া। চলতি বিশ্বকাপে বৃষ্টির কারণে ইতিমধ্যে তিনটি ম্যাচ স্থগিত ঘোষণা করতে বাধ্য হয়েছেন আম্পায়াররা। ফলে বুধবার তেমনই বিপর্যয় আবারও ঘটতে চলেছে কি না, তা নিয়েও শুরু হয়েছে জল্পনা। তবে তা নিয়ে বেশি মাথ ঘামাতে চাইছেন না তিনি। মঙ্গলবার সাংবাদিক সম্মেলনে পাক অধিনায়ক বলেছেন, ‘‘ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে আমরা যে আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে খেলেছিলাম, তা ফিরিয়ে আনতে হবে।’’ তিনি আরও বলেছেন, ‘‘বৃষ্টির জন্য শ্রীলঙ্কা ম্যাচ হয়নি। সেটা আমাদের কাছে একটা বড় ধাক্কা। ফলে এই ম্যাচটা আমাদের কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমরা যে কোনও মূল্যে জিততে চাই।’’

গত মার্চে শেষবার মুখোমুখি হয়েছিল দু’পক্ষ। সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে সেই ওয়ান ডে সিরিজে অস্ট্রেলিয়া জিতছিল ৫-০ ফলে। তবে সেই সিরিজে ছিলেন না সরফরাজ়। সেই প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেছেন, ‘‘এই সত্য অস্বীকার করার উপায় নেই যে, সাম্প্রতিক সময়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে আমাদের পারফরম্যান্স আদৌ ভাল নয়। তবে পাশাপাশি এও ঠিক, এই পাকিস্তান দল আগের চেয়ে অনেক বেশি পরিণত এবং লড়াকু।’’ তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘‘বিশ্বকাপের আগে ইংল্যান্ডের কাছেও ওয়ান ডে সিরিজে আমরা হেরেছিলাম। কিন্তু বিশ্বকাপে তাদেরই হারিয়েছি আমরা। সেই ফলাফল থেকে শিক্ষা নিয়েই নতুন ভাবে এই ম্যাচটা খেলতে চাই।’’ সরফরাজ়ের সংযোজন, ‘‘ভারতের কাছে হারের পরে অস্ট্রেলিয়া এ বার অনেক বেশি মরিয়া থাকবে জয়ে ফিরতে। দুর্দান্ত খেলছেন ডেভিড ওয়ার্নার এবং স্টিভ স্মিথ। তবে আমাদের বোলাররাও ওদের পাল্টা আক্রমণ করতে তৈরি।’’

তবে সরফরাজ়ের দলের অন্যতম নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান ইমাম-উল-হক জানিয়েছেন, মিচেল স্টার্ক সম্পর্কে তাঁদের মনে কোনও ভীতি নেই। তিনি বলেছেন, ‘‘অনেকেই তো বলেছিলেন ইংল্যান্ডের জোফ্রা আর্চারের বিরুদ্ধে খেলা খুব কঠিন হবে। কিন্তু ওকে আমরা শুধু ভাল সামলাইনি, ইংল্যান্ডকে হারিয়েও দিয়েছিলাম। স্টার্ককে নিয়েও বাড়তি কোনও উদ্বেগ নেই। আমরা অস্ট্রেলিয়ার বোলিং মোকাবিলা করার জন্য তৈরি।’’ চোটের কারণে বুধবার খেলবেন না অস্ট্রেলিয়ার মার্কাস স্টোয়নিস। সরফরাজ় বলেছেন, ‘‘ওর খেলা বা না খেলা নিয়ে চিন্তা নেই। আমাদের আগ্রাসী ক্রিকেট খেলতে হবে।’’