সরফরাজ় মাথাই খাটায় না, তোপ ক্ষুব্ধ শোয়েবের
প্রাক্তন পাক পেসার শোয়েব বর্তমান পাকিস্তান অধিনায়ককে ‘নির্বোধ’ বলতেও পিছপা হননি।
Sarfaraz

শোয়েব আখতারর তোপের মুখে সরফরাজ আহমেদ।—ছবি রয়টার্স।

ভারতের বিরুদ্ধে একপেশে হারের পরে ক্ষোভে ফুটছে পাকিস্তান। শোয়েব আখতার থেকে ওয়াসিম আক্রম-সহ প্রাক্তন পাক ক্রিকেটারেরা সমালোচনায় মুখর অধিনায়কের সঙ্গে গোটা পাক দলের উপর। জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রবল সমালোচনা চলছে দেশের প্রচারমাধ্যমেও।।

প্রাক্তন পাক পেসার শোয়েব বর্তমান পাকিস্তান অধিনায়ককে ‘নির্বোধ’ বলতেও পিছপা হননি। তাঁর কথায়, ‘‘আমি বুঝতে পারি না, একজন অধিনায়ক কী ভাবে এতটা নির্বোধ হতে পারেন। সরফরাজ় কি এটা জানত না যে রান তাড়া করে খুব বেশি ম্যাচ জেতে না পাকিস্তান। টস জিতে ও ফিল্ডিং নেয় কী ভাবে?’’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘‘খুব হতাশাজনক হার। অধিনায়ককে এই কারণেই অতীতে মাথাটা ব্যবহার করতে বলেছি। কিন্তু ও কিছুতেই মাথা খাটাতে চায় না।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘টস জিতলেই অর্ধেক ম্যাচ জেতা হয়ে যায়। সেখানে পাক অধিনায়ক কী করল? এমন প্রচেষ্টা দেখাল, যে আমরা ম্যাচটাই জিততে পারলাম না। যেমন নির্বোধ অধিনায়কত্ব, তেমনই বোকা টিম ম্যানেজমেন্ট।’’

পাকিস্তানের রান তাড়া প্রসঙ্গে ১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপে ভারত বনাম পাকিস্তান ম্যাচের উদাহরণ টেনে এনেছেন শোয়েব। বলেছেন, ‘‘ইনজামাম, মহম্মদ ইউসুফ, সৈয়দ আনোয়ার, শাহিদ আফ্রিদির মতো বড় ব্যাটসম্যানরা থাকা সত্ত্বেও ১৯৯৯ সালে এই ম্যাঞ্চেস্টারেই ২২৭ রান তাড়া করে জেতা যায়নি। কাজেই এ বার যখন টস জিতলে তখন তোমার ব্যাট করা উচিত ছিল।’’

‘রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস’-এর কথায়, ‘‘দলটার মধ্যে কোনও চিন্তাভাবনাই নেই। টস জিতে ব্যাট করে ২৬০ রান তুললেও এই পিচে বিপক্ষকে সমস্যায় ফেলা যেত। কারণ রান-রেট নিয়ে বৃষ্টিস্নাত ম্যাচে চাপে পড়তে পারত ভারত।’’

ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি বোলার হাসান আলিকেও তুলোধনা করেছেন শোয়েব। তিনি বলছেন, ‘‘ভারতের বিরুদ্ধে খেলতে নেমে ৯ ওভারে ৮৪ রান দিল হাসান আলি। ওর মানসিকতা নিয়েই প্রশ্ন করতে ইচ্ছে করছে। এর কারণ ও টি-টোয়েন্টি বোলার হতে চায়। পাকিস্তানের হয়ে অনেকদিন খেলে ফেলেছে। কিন্তু বলে গতি বা সুইং, কোনওটাই 

দেখলাম না।’’ প্রাক্তন পাক অধিনায়ক ওয়াসিম আক্রম আবার প্রশ্ন তুলেছেন পাক দল নির্বাচন নিয়ে। ‘সুলতান অফ সুইং’ আক্রম বলছেন, ‘‘দল নির্বাচনটাই ঠিক হয়নি। বিশ্বকাপের দলটার কোনও পরিকল্পনা রয়েছে বলেও মনে হল না। খেলায় হার-জিত থাকবেই। কিন্তু এ ভাবে লড়াই না করে হারার কোনও মানে হয় না।’’

ক্ষিপ্ত সাানিয়া: চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে পর্যুদস্ত হয়ে বিশ্বকাপে ৮৯ রানে হার পাকিস্তানের। ম্যাচের পরে হঠাৎই পাক সমর্থকদের কেউ কেউ এই হারের জন্য কাঠগড়ায় তুলেছেন ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জ়াকে।

কারণটা সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং মিডিয়াতে ঘুরে বেড়ানো একটি ছবি। যে ছবিতে দেখা গিয়েছে, ভারত ম্যাচের আগের দিন ম্যাঞ্চেস্টারের একটি রেস্তরাঁয় হাজির পাকিস্তানের কয়েকজন ক্রিকেটার। আলি জাভেদ নামে জনৈক পাকিস্তানি সমর্থক এই ছবি টুইট করে লেখেন, ‘‘ভারত ম্যাচের আগের দিন ম্যাঞ্চেস্টারের উইমস্লো রোডের রেস্তোরাঁয় হাজির পাক অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক ও তাঁর ভারতীয় স্ত্রী সানিয়া মির্জ়া। রয়েছেন ইমাদ ওয়াসিম, ইমাম-উল-হক ও ওয়াহাব রিয়াজ়ও। রাত প্রায় দু’টো। দল ভাল না খেলার কারণ এটাই।’’ ছবিতেই দেখা গিয়েছে ক্রিকেটারদের কয়েক জনের মুখ থেকে বের হচ্ছে সাদা ধোঁয়া। পাশে রাখা হুঁকোর একাধিক পাত্র।

এই ছবি সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং মিডিয়াতে ভাইরাল হওয়ার পরেই কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন সানিয়া। তিনি পাল্টা টুইট করে জানিয়ে দেন, ‘‘গোপনীয়তা ভঙ্গ করে ওই ভিডিয়ো তোলা হয়েছে। যা রীতিমতো অসম্মানজনক ব্যাপার। ওখানে আমার সন্তানও ছিল। অনেক বারণ করা সত্ত্বেও এ রকম ঘৃণ্য ভিডিয়ো ক্লিপ পোস্ট করা হয়েছে। আমরা ওখানে নৈশভোজ সারতে গিয়েছিলাম। আর ম্যাচ হারলেও আমরা খাবার খাই। নির্বোধের দল। পরের বার ভাল কিছু পোস্ট করো।’’ পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড আবার জানিয়ে দিয়েছে, বিশ্বকাপের ম্যাচের আগের রাতে কোনও ক্রিকেটারই হোটেল ছেড়ে বেরোননি। 

ম্যাচের
Live
স্কোর