কিংস কাপ খেলতে যাওয়ার আগে শেষ মুহূর্তে বাদ পড়েছিলেন জবি জাস্টিন। তাকেই ফের জাতীয় শিবিরে ডাকলেন ইগর স্তিমাচ। সই বিতর্কে জড়িয়ে পড়া জবি কোন ক্লাবে খেলবেন, তা নিয়ে জট রয়েছে। মঙ্গলবার সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনকে চিঠি দিয়ে এ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করার আবেদন জানান। এই অবস্থায় ফের জাতীয় দলে ডাক পেলেন আই লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা। তবে এ বার তিনি চূড়ান্ত দলে থাকবেন কি না সেটাই দেখার।

ইগর এ দিন জবিকে শিবিরে ফেরানো ছাড়াও সার্থক গোলুই, নরেন্দ্র থাপা, মান্দার রাও দেশাই, নিখিল পূজারিকে ডেকেছেন শিবিরে। তবে আমদাবাদে চতুর্দেশীয় কন্টিনেন্টাল কাপের জন্য বেছে নেওয়া ৩৫ জনের প্রাথমিক তালিকায় সবচেয়ে বড় চমক অবশ্যই আনাস এডাথোডিকা। এএফসি এশিয়ান কাপে ভারত ছিটকে যাওয়ার পরে কয়েক মাস আগে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছিলেন আনাস। রক্ষণের শক্তি বাড়াতে তাঁকে হঠাৎ শিবিরে ডেকে নেওয়ায় চমকে গিয়েছে ফুটবল মহল। 

ভারতের নতুন ক্রোয়েশীয় কোচ বলে দিয়েছেন, ‘‘আনাস এর আগে স্টিভন কনস্যান্টাইনের সময় খুব ভাল ফুটবল খেলেছিল। আমার ফোন পেয়ে ও শিবিরে আসতে রাজি হওয়ায় আমি খুশি।’’ আর কলকাতায় খেলে যাওয়া আনাস বলছেন, ‘‘কোচ আমাকে ফোন করেছিলেন এবং শিবিরে যোগ দিতে বলেন। এর আগে সহকারী কোচ বেঙ্কটেশ আমার সঙ্গে কথা বলেছিলেন, আমি কী অবস্থায় আছি, এটা জানতে চেয়ে। দেশের হয়ে খেলার সুযোগ পেয়ে আপ্লুত আমি। এ রকম প্রস্তাব আসবে ভাবনি।’’ পাশাপাশি তাঁর মন্তব্য, ‘‘নিজেকে উজাড় করে দেওয়াই লক্ষ্য।’’ ভারতীয় দলের শিবির শুরু হবে ২৫ জুন মুম্বইয়ে। ইগর এ দিন বলে দেন, ‘‘দেশের জার্সি পরা গর্বের ব্যাপার। কিংস কাপে ফুটবলারেরা যা খেলেছে তাতে আমি খুশি। যারা আই লিগ বা আইএসএলে খেলেছে তাদেরই ডাকছি। আশা করব আসন্ন লিগ গুলোতে সবাই আরও ভাল খেলবে।’’

চতুর্দেশীয় কাপে ভারতের খেলা ৭ জুলাই। তার আগে সুনীল ছেত্রীদের দশ দিনের অনুশীলন করানোর সুযোগ পাবেন ইগর।