ভারতীয় বোলারদের মোকাবিলা করতে না পেরে দক্ষিণ আফ্রিকা তখন কাঁপছে। তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ছে প্রোটিয়াদের ব্যাটিং। ভারতের ড্রেসিং রুমে হেড কোচ রবি শাস্ত্রীকে তখন চোখ বন্ধ করে বসে থাকতে দেখা গিয়েছে। সেই ছবিটাই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়।

রাঁচী টেস্টের তৃতীয় দিনের ম্যাচ চলাকালীন টেলিভিশন ক্যামেরায় ভারতের ড্রেসিংরুমের ছবি তুলে ধরা হয়। সেই সময়ে দেখা যায় রবি শাস্ত্রী চোখ বন্ধ করে শরীর এলিয়ে বসে রয়েছেন। তাঁর ঠিক পিছনেই বসে শুবমন গিল। শাস্ত্রীর সেই ছবি দেখে অনেকেই বলেছেন, কোহালিদের ‘হেডস্যর’ নিশ্চিন্তে ঘুমোচ্ছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় শাস্ত্রীর এ হেন ছবি দেখার পরে ক্রিকেট-ভক্তরা মজার মজার সব মন্তব্য করেছেন।

কেউ বলেছেন, এক বছরে ১০ কোটি টাকা পাচ্ছে ঘুমোনোর জন্য। ভাগ্য করে এসেছেন বটে। আবার কেউ লিখেছেন, রবি শাস্ত্রী বিশ্বের সেরা কাজটাই করছেন। কোহালিরা অবশ্য শাস্ত্রীকে নিশ্চিন্ত করেছেন নিজেদের পারফরম্যান্স দিয়ে। টেস্ট সিরিজের প্রথম দিন থেকেই কোহালি-রোহিতরা প্রাধান্য দেখিয়ে গিয়েছেন। পুণেতেই টেস্ট সিরিজ জিতে নিয়েছিল ভারত। মহেন্দ্র সিংহ ধোনির শহরেও ভারতের দাপট অব্যাহত থাকে।

আরও পড়ুন: ১১ দাবি শাকিবদের, না মানলে ধর্মঘটের ডাক, অনিশ্চিত ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজ

রাঁচী টেস্টের তৃতীয় দিনের গতিপ্রকৃতি যে দিকে গড়াচ্ছে, তাতে ভারতের জয় এখন কেবল সময়ের অপেক্ষা। দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যানরা ভারতীয় বোলারদের বল ঠিকঠাক বুঝেই উঠতে পারেননি। তাঁদের অয়ারাম-গয়ারাম ব্যাটিং দেখে বিস্মিত ক্রিকেটপণ্ডিতরা। এই ভরাডুবির কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না কেউ। প্রোটিয়াদের বিপর্যয়ের কারণ নিয়ে অবশ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় চর্চা কম। বেশি চর্চিত হচ্ছেন রবি শাস্ত্রী।