নতুন ইতিহাস লেখার সুযোগ ভারতীয় হকি দলের সামনে। বিশ্বকাপে নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়ে নামার আগে কোচ হরেন্দ্র সিংহ বলে দিলেন, কোটি কোটি ভারতীয়র আকুল প্রার্থনা সত্যি করতে তাঁরা তৈরি। বিশ্বের পাঁচ নম্বর দল ভারতের সঙ্গে টক্কর চার নম্বর ডাচদের। আত্মবিশ্বাসী হরেন্দ্রর মন্তব্য, ‘‘হবে সেটাই, যা আমরা চাইব।’’

আত্মবিশ্বাস উপচে পড়ছে ভারত-অধিনায়ক মনপ্রীত সিংহেরও। সরাসরি বলে দিলেন, ‘‘যদি আপনারা অলিম্পিক্সের কথা বলেন, তবে সেটা কিন্তু দু’বছর আগের ঘটনা। এত দিনে আমরা প্রচুর উন্নতি করেছি। বিশেষ করে হ্যারি স্যার (হরেন্দ্র) আসার পরে। আমরা এখন শুধুই আক্রমণাত্মক হকি খেলি। এ বার ইতিহাসটাই বদলে দিতে চাই।’’

বিশ্বকাপের ইতিহাসে কখনও নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে জেতেনি ভারত। তবু ইতিহাসকে তোয়াক্কা না করে ভয়ডরহীন হরেন্দ্রর কথা, ‘‘ওদের আক্রমণাত্মক হকির পাল্টা দেওয়ার সব প্রস্তুতি শেষ। যে চ্যালেঞ্জই ওরা ছুড়ে দিকে, আমরা কিন্তু জবাব দেব।’’ একই সঙ্গে শেষ ৪৩ বছরে একবারও সেমিফাইনালে উঠতে না পারাকে ধর্ত্যবেই রাখছেন না কোচ, ‘‘ইতিহাস পড়ার জিনিস। বোঝার নয়।’’ আরও যোগ করছেন, ‘‘জানি নেদারল্যান্ডস তৈরি হয়ে এসেছে। তৈরি হয়েছে সবাই। হ্যাঁ, ভারতও। শেষ ছ’মাসে আমরা অনেক ইতিহাস গড়েছি। বিশ্বকাপে সেরা দলের সঙ্গে খেলতেই হবে। আর আমরা এ ক’দিন যে ভাবে খেলেছি সে ভাবেই খেলব। জানি ওরাও আক্রমণাত্মক খেলে। ভারতও তাই। তাই সমানে-সমানে লড়াই হবেই। আমাদের গোলের ২৫ শতাংশ সুযোগ পেলেও তা কাজে লাগাতে হবে। গোল করতেই হবে অথবা আমার পেনাল্টি কর্নার চাই।’’

হরেন্দ্র মানছেন ডাচদের সবচেয়ে বড় শক্তি পেনাল্টি কর্নার, ‘‘পেনাল্টি কর্নার যে ওদের শক্তি, ভাল করেই জানি। ১৯৭১ থেকে ২০১৮— এই একটা অস্ত্রই ওদের সাফল্যের ভিত্তি।  আমরাও সে ভাবেই তৈরি হয়েছি।’’ আর ভারতের শক্তি কি শুধুই আক্রমণাত্মক হকি? হেসে ফেলেছেন হরেন্দ্র, ‘‘অবশ্যই না। মাঠের এগারো জনের মতো আমাদের হয়ে খেলবে দর্শকরাও। ডাচদের শেষ করতে এই অনুপ্রেরণাটার মূল্য অসীম। মানছি এর আগে সব সময় আমাদের খেলায় একই গভীরতা ছিল না। কিন্তু নেদারল্যান্ডসের মতো দলের বিরুদ্ধে সেটা হলে চলবে না। দর্শকরাই আমার ছেলেদের তাতিয়ে রাখবে। মনপ্রীতদের বলেছি, ৬০ মিনিটের ধারালো হকি চাই না। টানা ৭৪ মিনিটই একই রকম আক্রমণাত্মক খেলে যেতে হবে।’’

এ দিকে, নেদারল্যান্ডস বনাম কানাডা ম্যাচের দিন ভারতীয় দলের বেশ কয়েক জন খেলোয়াড় ভিআইপি লাউঞ্জে যাওয়ায় বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। প্রতিযোগিতার নিয়ম অনুযায়ী খেলার সময় কোনও দল এটা করতে পারে না। ঘটনার সময় হকি ইন্ডিয়ার কর্তারা চেঁচামেচিও করেন। বুধবার ঘটনার জন্য দুঃখপ্রকাশ করে মনপ্রীত সিংহ জানিয়েছেন, নিয়মটা জানতেন না বলেই তাঁরা ভুল করে ফেলেছিলেন।