ভুরিভোজের আগে যেন স্টার্টার!

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রায় আড়াই মাসের লম্বা সফরেই চোখ ক্রিকেটবিশ্বের। তিনটি করে টি-টোয়েন্টি এবং এক দিনের ম্যাচ শুরুতে। তার পর পাঁচ টেস্টের ম্যারাথন সিরিজ। ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে যা পরম উপাদেয় হতে বাধ্য।

তার ঠিক আগে ডাবলিনে বুধবার থেকে আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজকে ‘স্টার্টার’-এর মতোই দেখাচ্ছে। যা আসলে জো রুটদের বিরুদ্ধে বাইশ গজের লড়়াইয়ে নামার ড্রেস রিহার্সাল। এই দুই ম্যাচের মাধ্যমে নতুন মরসুমও শুরু করছে বিরাট কোহালির ভারত। বিলেতে হাড্ডাহাড্ডি সিরিজের আগে সংক্ষিপ্ততম সংস্করণের এই দুই ম্যাচকে প্রস্তুতির অঙ্গ হিসেবেও ধরা যায়।

ফুরফুরে মেজাজে ভুবি, উমেশদের সঙ্গে অধিনায়ক কোহালি। ছবি বিসিসিআইয়ের টুইটারের সৌজন্যে।

শনিবার লন্ডনে প‌ৌঁছেছিল ভারত। সোমবার লন্ডনেই অনুশীলনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। মার্চেন্টস টেলর স্কুলের ক্রিকেট মাঠে গা ঘামাতে দেখা গিয়েছিল ক্রিকেটারদের। মঙ্গলবার আয়ারল্যান্ডের উদ্দেশে উড়ে গেল টিম ইন্ডিয়া. টুইটারে সেই ছবি পোস্টও হল। দেখা গেল জসপ্রীত বুমরার পাশে হাসিমুখে বসে রয়েছেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। বুধবার রাত সাড়ে আটটায় বিশ্বকাপের ভরা বাজারে শুরু হতে চলা প্রথম টি-টোয়েন্টিতেও এমনই ফুরফুরে মেজাজে থাকার কথা কোহালি-বাহিনীর। ২০ ওভারের ক্রিকেট যতই আরও বেশি অনিশ্চিত হোক, ধারে-ভারে-ওজনে অনেক বেশি এগিয়ে ভারত।

বুধবারের ম্যাচ এক দিক থেকে আবার স্মরণীয় হয়ে থাকছে। আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টি-টোয়েন্টি হতে চলেছে এই ফরম্যাটে ভারতের শততম ম্যাচ। ২০০৫ সাল থেকে এই ফরম্যাটে প্রচলিত ক্রিকেটবিশ্বে। পূর্ণ সদস্যেদর মধ্যে ভারতই সবচেয়ে শেষে শততম টি-টুয়েন্টি খেলবে। যে দেশে আইপিএল হয়, সেই দেশের নিরিখে কম টি-টোয়েন্টি খেলা রীতিমতো অবাক করার মতোই তথ্য।

আরও পড়ুন: মেসি কি আর একটা ইকুয়েডর ম্যাচ উপহার দিতে পারবেন?

আরও পড়ুন: ইংল্যান্ড সফরে ভারতের সেরা পেস আক্রমণ, মত সচিনের​

পরিসংখ্যান বলছে, আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের আগে টানা চার টি-টুয়েন্টি সিরিজ জিতেছে ভারত। মার্চে শ্রীলঙ্কায় গিয়ে নিদাহাস ট্রফি জেতার আগে দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে সিরিজ জিতেছে ফেব্রুয়ারিতে। তার আগে ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে জিতেছে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে। নভেম্বরে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ডকেও। ফলে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের টি-টুয়েন্টি ক্রমতালিকায় তিনে রয়েছেন কোহালি-ধোনিরা। একে পাকিস্তান, দুইয়ে অস্ট্রেলিয়া। অবশ্য আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে দুই ম্যাচের সিরিজ জিতলেও তা র‌্যাঙ্ক‌িংয়ে সুবিধা দেবে না ভারতকে। রেটিংয়ে বাড়বে না একটা পয়েন্টও। তবে ইংল্যান্ডকেও এর পরে টি-টোয়েন্টি সিরিজে হারালে শীর্ষে যাওয়ার একটা সম্ভাবনা রয়েছে।

ভারত এই সিরিজে এসেছে পূর্ণশক্তি নিয়ে। শ্রীলঙ্কায় নিদাহাস ট্রফিতে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছিল কোহালি, ভুবনেশ্বর কুমার, বুমরা ও ধোনিকে। ওপেনিং-এ রোহিত শর্মা-শিখর ধবন। তিনে কোহালি। মিডল অর্ডারে মণীশ পাণ্ডে, সুরেশ রায়না, দীনেশ কার্তিকের সঙ্গে লড়াইয়ে রয়েছেন ফর্মে থাকা লোকেশ রাহুল। এমএসডি-র উপস্থিতিতেও বাদ পড়া উচিত নয় কার্তিকের। শেষ বলে ছয় মেরে তিনিই জিতিয়েছিলেন নিদাহাস ট্রফি।

আরও পড়ুন: রোনাল্ডোর লাল কার্ড দেখা উচিত ছিল: কুইরোজ​

আরও পড়ুন: গ্রুপের শেষ ম্যাচগুলো একই সময়ে হচ্ছে কেন জানেন?

ওভারের ফরম্যাটে ভারতীয় দল এখন দুই ‘রিস্ট স্পিনার’ কুলদীপ যাদব ও যুজবেন্দ্র চাহালকে নিয়ে আক্রমণ সাজাচ্ছে। আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধেও তা হবে। পেস বিভাগে ভুবনেশ্বর কুমার ও জসপ্রীত বুমরাই পয়লা পছন্দ। তবে উমেশ যাদবেকও খেলানো হতে পারে লম্বা সিরিজের কথা ভেবে।