আন্তর্মহাদেশীয় কাপে ব্যর্থতার যন্ত্রণার মধ্যেও কিছুটা স্বস্তি ফিরল ভারতীয় ফুটবল দলের অন্দরমহলে। ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে দ্বিতীয় রাউন্ডে সহজ গ্রুপেই পড়লেন সুনীল ছেত্রীরা।

বুধবার যে ড্র হয়, তাতে ‘ই’ গ্রুপে ভারতের সঙ্গে রয়েছে কাতার, ওমান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ। এশিয়ার ৪০টি দেশকে আটটি গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে। প্রত্যেকটি গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দেশ ২০২২ বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের মূল পর্বে খেলবে। এ ছাড়াও আটটি গ্রুপের মধ্যে থেকে সেরা চারটি রানার্স দেশও সুযোগ পাবে মূল পর্বে। এই বারোটি দেশ আবার ২০২৩ সালে চিনে এএফসি কাপের মূল পর্বে খেলার ছাড়পত্রও পাবে। 

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে এই মুহূর্তে ৫৫ নম্বরে কাতার। ৮৬তম স্থানে ওমান। ১০১ নম্বরে ভারত। আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ যথাক্রমে ১৪৯ ও ১৮৩তম স্থানে রয়েছে। ভাইচুং ভুটিয়ার মতে তৃতীয় রাউন্ডে ওঠার সম্ভাবনা যথেষ্ট উজ্জ্বল সুনীলদের। বুধবার কলকাতায় তিনি বলেছেন, ‘‘ভারত সহজ গ্রুপেই পড়েছে। ভাল ফল করা উচিত।’’ ইগর স্তিমাচ দায়িত্ব নেওয়ার পরে দু’টো প্রতিযোগিতাই ভারত ব্যর্থ। যদিও তা নিয়ে খুব একটা উদ্বিগ্ন নন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক। ভাইচুংয়ের কথায়, ‘‘স্তিমাচকে আরও সময় দেওয়া উচিত।’’ ইগর অবশ্য বলেছেন, ‘‘কঠিন পরীক্ষা। আমাদের গ্রুপের সব দলই কঠিন প্রতিপক্ষ।’’

কাতার বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে ভারত অভিযান শুরু করছে ৫ সেপ্টেম্বর। ঘরের মাঠে গুরপ্রীত সিংহদের প্রতিপক্ষ ওমান। ১০ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় ম্যাচ কাতারের বিরুদ্ধে (অ্যাওয়ে)। ১৫ অক্টোবর ঘরের মাঠে ম্যাচ বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। ১৪ নভেম্বর প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান (অ্যাওয়ে)। ১৯ নভেম্বর ওমানের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচ (অ্যাওয়ে)। আগামী বছরের ২৬ মার্চ ঘরের মাঠে প্রতিপক্ষ কাতার (দ্বিতীয় পর্ব)। ৪ জুন বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে ম্যাচ (দ্বিতীয় পর্ব)। ৯ জুন ঘরের মাঠে ভারতের প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান (দ্বিতীয় পর্ব)।