সাত মাস কেটে গিয়েছে বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ভারতের মেয়েদের দুরন্ত পারফরম্যান্সের। এ বার তাঁদের  সামনে তিন ম্যাচের সিরিজে প্রতিদ্বন্দ্বী দক্ষিণ আফ্রিকা। সোমবার থেকে শুরু হওয়া সিরিজে দু’দলের সামনেই ২০২১ আইসিসি মেয়েদের বিশ্বকাপে সরাসরি যোগ্যতা পাওয়ার সুযোগ থাকছে।

সিরিজের প্রথম দুটি ম্যাচ মানে ৫ ও ৭ ফেব্রুয়ারি লড়াই হবে কিম্বার্লিতে। তৃতীয় ও শেষ ওয়ান ডে পচেস্ট্রুমে ১০ ফেব্রুয়ারি। বিশ্বকাপের পরে এত দিন কোনও আন্তর্জাতিক ম্যাচ না খেলায় মিতালি রাজদের দ্রুত নিজেদের দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ জানানোর মতো জায়গায় নিয়ে আসতে হবে।

মিতালি জানেন চ্যালেঞ্জটা কতটা কঠিন। বিশেষ করে বিশ্বকাপের পরে মেয়েদের ক্রিকেটের ভক্তসংখ্যা যে ভাবে বেড়েছে তাতে প্রত্যাশার চাপ সামলানোটাও সোজা হবে না তাঁদের জন্য। তাই মিতালি বলছেন, ‘‘প্রত্যেকটা ম্যাচ সমালোচক, সবাই খুঁটিয়ে দেখবে। কারণ এখন মেয়েদের ক্রিকেট ও ভারতীয় দলের খেলার আসল মানটা সবাই জানেন।’’ সঙ্গে তিনি যোগ করেন, ‘‘তাই এখন থেকে আমরা যে ম্যাচই খেলি, সেটা সবাই খুব ভাল করে নজরে রাখবে। দেশের এবং বিশ্বের ক্রিকেটপ্রেমীরা আমাদের ম্যাচ দেখবে।’’

মেয়েদের ক্যাপ্টেন নিজেও বিভিন্ন সংস্থার প্রচারমূলক কাজে ব্যস্ত ছিলেন। মেয়েদের জাতীয় ওয়ান ডে টুর্নামেন্টে কয়েকটা ম্যাচেই খেলেছেন। তিনি বলছেন, ‘‘ফের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে মুখিয়ে রয়েছি। বিশ্বকাপের পরে দক্ষিণ আফ্রিকাই আমাদের প্রথম সফর। চ্যালেঞ্জিং পরিবেশে শক্তিশালী বিপক্ষের বিরুদ্ধে খেলাটা সবসময়ই ভাল। কারণ এতে নিজেদের সেরা পারফরম্যান্সটা বেরিয়ে আসে মাঠে।’’

সিরিজে ভারতীয় দলের হয়ে খেলতে নামা মুম্বইয়ের ১৭ বছর বয়সি স্কুলছাত্রী জেমিমা রদ্রিগেজের দিকে নজর থাকবে। ঘরোয়া ক্রিকেটে যে দারুণ পারফর্ম করে নজর কেড়ে নিয়েছে।

বিশ্বকাপে রানার্স ভারত গ্রুপ পর্যায়ে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ১১৫ রানে হেরে গিয়েছিল। সেই পারফরমান্সই আসন্ন সিরিজে দেখাতে মরিয়া দক্ষিণ আফ্রিকার ক্যাপ্টেন ডেন ফান নিয়েকার্ক। ২৪ বছর বয়সি দক্ষিণ আফ্রিকান ক্যাপ্টেন বলেছেন, ‘‘ছ’মাস হয়ে গিয়েছে বিশ্বকাপের সেই ম্যাচের ভাবতেই পারছি না। মনে হচ্ছে, যেন গত কালের ঘটনা।’’ বিশ্বের ন’নম্বর বোলার নিয়েকার্ক আরও বলেছেন, ‘‘এটা আমাদের দলের জন্য নতুন একটা শুরু। আমরা কোয়ালিফায়ারে খেলে যোগ্যতা অর্জন করতে চাই না (বিশ্বকাপে)। তার মানেটা সহজ। প্রথম ম্যাচ থেকেই আমাদের জেতার জন্য মরিয়া হয়ে ঝাঁপাতে হবে।’’

ভারতের ক্যাপ্টেন মিতালি এ ব্যাপারে বলছেন, ‘‘নিশ্চিত ভাবে আমরা টুর্নামেন্টে প্রথম চার দল হিসেবে আসতে চাই। যাতে সরাসরি বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পাই। আমাদের কাছে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকেই ২০২১ বিশ্বকাপের প্রস্তুতি শুরু হয়ে যাচ্ছে।’’