মেয়েদের টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচেও ভারতকে হারাল নিউজ়িল্যান্ড। মানুষের আগ্রহ ছিল শেষ ম্যাচে মিতালি রাজের খেলা, না খেলা নিয়ে। টিম ম্যানেজমেন্ট শেষ পর্যন্ত তাঁকে দলে রাখলেও সিরিজ ০-৩ হেরে গেলেন মেয়েরা। মিতালি নন, ভারতকে টানছিলেন সেই স্মৃতি মন্ধানা। তিনি খেললেন জীবনের সেরা টি-টোয়েন্টি ইনিংস। করলেন ৫২ বলে ৮৬। কিন্তু লাভ হয়নি। হ্যামিল্টনে রবিবার মিতালি ২৪ রানে অপরাজিত থাকেন। শেষ বলের সময় তিনিই ব্যাট করছিলেন। দরকার ছিল ৪ রান। কিন্তু মিতালি যা তুলতে পারেননি। ভারত তাড়া করছিল নিউজ়িল্যান্ডের ১৬২। রোহিত শর্মাদের মতো হরমনপ্রীতের দলকেও শেষ ওভারে তুলতে হত ১৬। কিন্তু ৪ উইকেটে ১৫৯ রানে থেমে যায় ভারত। 

আবার ব্যর্থ অধিনায়ক হরমনপ্রীত কৌর। করলেন মাত্র ২। ম্যাচের পরে তাঁর মন্তব্য, ‘‘এ ভাবে সিরিজ হেরে খুবই খারাপ লাগছে। টি-টোয়েন্টিতে শেষ ১০ ওভারে আরও উন্নতি করতে হবে। ব্যাটিং অর্ডার নিয়েও সমস্যা আছে। তবে সিরিজের ইতিবাচক দিক স্মৃতি ও জেমাইমার (রদ্রিগেস) ব্যাটিং।’’

ভারতকে জয়ের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিলেও শেষরক্ষা না হওয়ায় হতাশ স্মৃতি মন্ধানাও। বললেন, ‘‘আমাদের এমন একজনকে দরকার যে কুড়ি ওভারই ব্যাট করবে। না হলে দরকার ইনিংসের মাঝখানে রান তোলার মেয়ে।’’ স্মৃতিই সিরিজে সব চেয়ে বেশি রান (১৮০) করলেন। গড় ৬০। দু’টি হাফসেঞ্চুরি। আরও বলেছেন, ‘‘চেষ্টা করেছিলাম দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়ার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটা না পেরে খুব হতাশ লাগছে।’’