মেয়েদের ইমার্জিং এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন ভারত। বুধবার কলম্বোর প্রেমদাসা স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কাকে ১৪ রানে হারায় ভারত। ম্যাচের ফল নির্ধারণ হয় ডাকওয়ার্থ ও লুইস পদ্ধতিতে।

প্রথমে ব্যাট করে ৬৩ রানে ছয় উইকেট হারায় ভারত। কিন্তু বাংলার তনুশ্রী সরকারের ৪৭ রানের ইনিংসের সাহায্যে ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৭৫ রান করে ভারত। কিন্তু শ্রীলঙ্কা ব্যাট করতে নামার আগে বৃষ্টি শুরু হয়। ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতি ব্যবহার করে লক্ষ্য পরিবর্তন হয় শ্রীলঙ্কার। ৩৫ ওভারে ১৪৯ রান তাড়া করতে নেমে ১৩৫ রানে শেষ হয়ে যায় শ্রীলঙ্কার ইনিংস।

চারটি করে উইকেট নেন দেবিকা বৈদ্য ও তনুজা কনওয়ার। তাঁদের দাপটেই শ্রীলঙ্কাকে হারাল ভারত। তবে তনুশ্রী ৪৭ রানের ইনিংস না খেললে বিপক্ষের সামনে এত বড় লক্ষ্য দেওয়া হত না ভারতের। বাংলার হয়েও এই মরসুমে একাধিক ম্যাচ জেতানো পারফরম্যান্স ছিল তাঁর। মেয়েদের জাতীয় ওয়ান ডে-তে বাংলাকে চ্যাম্পিয়ন করার পিছনেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল তনুশ্রীর। 

সাত নম্বরে ব্যাট করতে নেমেছিলেন বাংলার তরুণী। শেষ তিন উইকেটে ৮৫ রান যোগ করেন। তনুশ্রীর পাশাপাশি ৩৪ রান করেন সিমরন বাহাদুর। শ্রীলঙ্কার দলটির সব চেয়ে বড় সমস্যা তৈরি করেছিল তাঁদের আত্মবিশ্বাস। ভারতীয় বোলারদের সামনে তাঁদের লক্ষ্য সহজ হলেও উইকেটে দাঁড়াতে পারেননি। একাধিক ভুল শট খেলে আউট হয়েছেন। ম্যাচ হারার সেটাই বড় কারণ। ভারতীয় ব্যাটসম্যানেরাও সে ভাবে সফল হতে পারেননি। কিন্তু বোলারদের দাপটে এশিয়া সেরা হলেন তাঁরা।