• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ধ্যানচাঁদদের রেকর্ড ভাঙলেন রূপিন্দরেরা

Hockey
নায়ক: পাঁচ গোল রূপিন্দর পাল সিংহের (বাঁ দিকে)। ছবি: এএফপি।

অপ্রতিরোধ্য ভারতের পুরুষ হকি দল। জাকার্তায় বুধবার এশিয়ান গেমসে পুল ‘বি’-এর ম্যাচে হংকং চিনকে গোলের বন্যায় ভাসিয়ে দিয়ে ৮৬ বছর আগের রেকর্ড ভাঙলেন রূপিন্দর পাল সিংহেরা।

১৯৩২ সালের অলিম্পিক্সে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে ২৪-১ হারিয়েছিল ধ্যানচাঁদের ভারত। বুধবার জাকার্তায় সেই রেকর্ড ভেঙে গেল। হংকং চিনের বিরুদ্ধে খেলা শুরু হওয়ার পাঁচ মিনিটের মধ্যেই ৪-০ এগিয়ে যায় ভারতীয় দল। একাই পাঁচটি গোল করেন রূপিন্দর (৩, ৫, ৩০, ৪৫ ও ৫৯ মিনিট)। চার গোল করেন হরমনপ্রীত সিংহ (২৯, ৫২, ৫৩ ও ৫৪ মিনিট)। আকাশদীপ সিংহ গোল করেন ২, ৩২ ও ৩৫ মিনিটে। অর্থাৎ, এক ম্যাচে তিন জন ভারতীয় তারকা হ্যাটট্রিক করলেন। দু’টি করে গোল করেন মনপ্রীত সিংহ (৩ ও ১৭ মিনিট), ললিত উপাধ্যায় (১৭ ও ১৯ মিনিট) ও বরুণ কুমার (২৩ ও ৩০ মিনিট)। একটি করে গোল করেন এস ভি সুনীল (৭ মিনিট), বিবেক সাগর প্রসাদ (১৪ মিনিট), মনদীপ সিংহ (২১ মিনিট), সিমরনজিৎ সিংহ (৫৩ মিনিট), অমিত রহিদাস (২৭ মিনিট), দিলপ্রীত সিংহ (৪৮), চিঙ্গলেনসানা সিংহ (৫১ মিনিট) ও সুরেন্দ্র কুমার (৫৫ মিনিট)। তবে হকির ইতিহাসে এখনও পর্যন্ত সব চেয়ে বেশি গোলে জেতার রেকর্ড নিউজ়িল্যান্ডের দখলে। ১৯৯৪ সালে সামোয়াকে ৩৬-১ হারিয়েছিল নিউজ়িল্যান্ড।

এশিয়ান গেমসে প্রথম ম্যাচেই আয়োজক দেশ ইন্দোনেশিয়াকে ১৭-০ উড়িয়ে দিয়ে অভিযান শুরু করেছিল বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে পঞ্চম স্থানে থাকা ভারত। এ দিন ৪৫তম স্থানে থাকা হংকং চিনের বিরুদ্ধে আরও ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠেন রূপিন্দরেরা। গোলরক্ষক মাইকেল চুং বেশ কয়েকটি নিশ্চিত গোল না বাঁচালে লজ্জা আরও বাড়ত হংকং চিনের।

২৬-০ জয়ে অবশ্য বিস্মিত নন ভারতীয় দলের কোচ হরেন্দ্র সিংহ। ম্যাচের পরে তিনি বলেছেন, ‘‘আমরা আত্মবিশ্বাসী ছিলাম। ছেলেদের বলেছিলাম, নিজেদের ইতিহাস নিজেরাই তৈরি করতে হবে। এর জন্য তোমাদের নির্মম হতে হবে। মাঠে নেমে প্রতিপক্ষের প্রতি কোনও রকম সহানুভূতি দেখালে চলবে না।’’ ভারতীয় পুরুষ হকি দলের কোচ অবশ্য দাবি করলেন, তাঁর কাছে রেকর্ডের কোনও গুরুত্ব নেই। বলেছেন, ‘‘আমার কাছে রেকর্ডের কোনও গুরুত্ব নেই। তবে খেলায়াড়দের কাছে এটা গর্বের মুহূর্ত। যখন ভারতীয় হকির ইতিহাস নিয়ে আলোচনা হবে, তখন এই ১৮ জন খেলায়াড়ের নামই উল্লেখ করা হবে। রেকর্ড খেলোয়াড়দেরই। কারণ, দল সব সময়ই কোচের ঊর্ধ্বে।’’

পর পর দু’ম্যাচে দুরন্ত জয়ের পরেও হরেন্দ্র মনে করেন, খেলোয়াড়দের আরও উন্নতি প্রয়োজন। তিনি বলেছেন, ‘‘খেলোয়াড়দের আরও সতর্ক থাকতে হবে। বিপক্ষের ‘ডি’-এর কাছে পৌঁছলেই শুধু হবে না। ভুলত্রুটি এখনও যা হচ্ছে, তা দ্রুত শুধরে নিতে হবে।’’ ভারতের পরের ম্যাচ জাপানের বিরুদ্ধে শুক্রবার। হরেন্দ্রের কথায়, ‘‘এখন থেকেই জাপান ম্যাচের প্রস্তুতি শুরু করতে হবে। এই ছন্দটা ধরেই রাখাই প্রধান লক্ষ্য।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন