এশিয়ান গেমসে খারাপ পারফর্ম্যান্সের জন্য জবাব চাওয়া হল খেলোয়াড়দের কাছে। যাঁদের ঘিরে সোনার স্বপ্ন ছিল, মালয়েশিয়ার কাছে হেরে তাঁরা শেষ করেছেন ব্রোঞ্জ জিতে। ভারতীয় হকি দলের থেকে এই প্রত্যাশা ছিল না। টুর্নামেন্ট শেষে পুরো দলের পারফর্ম্যান্স বিচার করে ভারতীয় হকির কোচিং স্টাফ এবং হাই পারফর্ম্যান্স ডিরেক্টর ডেভিড ইয়ান জন সম্পূর্ণ রিপোর্ট দাখিল করেছেন। আর তার উপর দাঁড়িয়েই দলের প্রায় সব সিনিয়র খেলোয়াড়কে নোটিস দিয়েছে হকি ইন্ডিয়া।

সেই রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, ধারাবাহিকতার অভাব, আত্মতুষ্টি আর রক্ষণের সমস্যার জন্যই ভারতের ফল আশানুরূপ হয়নি। যে কারণে ২০২০ টোকিও অলিম্পিক্সের জন্যও সরাসরি যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি টিম ইন্ডিয়া। যখন পুরুষ দলের সমালোচনায় উত্তাল হকি ইন্ডিয়া তখন মেয়েদের রুপোয় উচ্ছ্বসিত তারা।

এই নোটিসের তালিকায় অধিনায়ক পিআর শ্রীজেশ, সর্দার সিংহ, এসভি সুনীল ও রূপিন্দর পাল সিংহের নাম রয়েছে বলে অনুমাণ। কারণ, এই সিনিয়র খেলোয়াড়দেরই সামনে থেকে দলের হয়ে লড়াই করার কথা থাকলেও তাঁরা সেটা করেননি বলে অভিযোগ। যদিও এশিয়ান গেমস থেকে ফেরার কয়েক দিন পরেই নিজের অবসরের কথা ঘোষণা করে দিয়েছেন সর্দার সিংহ।

আরও পড়ুন
রোনাল্ডোর বিরুদ্ধে ন’বছর আগের ধর্ষণ-মামলা ফের শুরু

চলতি অক্টোবরেই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দল থেকেও বাদ পড়েছেন এসভি সুনীল ও রূপিন্দর পাল সিংহ। শ্রীজেশকে অবশ্য রেখে দেওয়া হয়েছে। কারণ এখনও পর্যন্ত তাঁর পরিবর্ত গোলকিপার তৈরি করে উঠতে পারেনি ভারতীয় হকি টিম। তবে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে, ফের ভুল করলে বাদ দিতে দ্বিতীয় বার ভাববে না ম্যানেজমেন্ট।