• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বয়কট নয়, এখন কমনওয়েলথ গেমস পেতে আগ্রহী ভারত

2022 CWG
ফাইল চিত্র।

কমনওয়েলথ গেমস বয়কটের রাস্তা থেকে ভারত সরে এল। ২০২২ বার্মিংহ্যাম গেমসে যোগ দেবে পুরো দলই। শুধু তাই নয়, ২০২৬ অথবা ২০৩০ গেমস করার জন্য বিড করবে ইন্ডিয়ান অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (আইওএ)।

বার্মিংহ্যামে ২০২২ কমনওয়েলথ গেমস বয়কটের পথে হাঁটার কথা ভাবা হয়েছিল শুটিং ইভেন্ট অন্তর্ভুক্ত না হওয়ায়। সোমবার আইওএ-র বার্ষিক সভার পরে শুটিং নিয়ে কোনও স্পষ্ট ধারণা পাওয়া যায়নি। জানানো হয়, গেমসের আগে কমনওয়েলথ শুটিং চ্যাম্পিয়নশিপ করার জন্য কমনওয়েলথ গেমস ফেডারেশনের (সিজিএফ) কাছে প্রস্তাব পাঠানো হবে। আইওএ-র সচিব রাজীব মেহতা সভার পরে বলেন, ‘‘বার্মিংহ্যাম কমনওয়েলথ গেমসে ভারত অংশ নেবে বলে ঠিক হয়েছে। পুরো দলই যাবে সেখানে।’’ যা জানার পরে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন সিজিএফ প্রেসিডেন্ট ডামে লুইস মার্টিন। তিনি বলেছেন, ‘‘ভারতের সিদ্ধান্তে আমরা খুশি। এটা কমনওয়েলথ আন্দোলনের পক্ষে ভাল খবর।’’ 

প্রেসিডেন্ট নরেন্দ্র বাত্রাকে পাশে বসিয়ে রাজীব মেটা জানিয়ে দেন, তাঁদের পরের পদক্ষেপ হতে চলেছে কমনওয়েলথ গেমস আয়োজনের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে অনুমতি আদায় করা। ২০১০ সালে দিল্লিতে শেষবার অনুষ্ঠিত হয়েছিল গেমস। তারপর আর্থিক তছরুপ-সহ নানা ঘটনা ঘটেছিল। প্রচুর খরচ নিয়ে প্রশ্নও উঠেছিল। বর্তমান অর্থনৈতিক মন্দার পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় সরকার শেষ পর্যন্ত গেমস সংগঠনের অনুমোদন দেবে কি না, তা নিয়ে সন্দিহান আইওএ কর্তারাই। সচিব বলেছেন, ‘‘আমাদের সভায় বিড করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। কিন্তু এ বিষয়ে চূড়ান্ত অনুমোদন দেবে কেন্দ্রীয় সরকার।’’ ২০২৬-এর গেমস কোথায় হবে, তা ঘোষিত হবে নতুন বছরের মার্চ মাসে। 

বয়কটের পথ থেকে সরে এলেও শুটিং-কে ইভেন্ট হিসাবে নেওয়া হবে কি না, তা নিয়ে ধোঁয়াশা অবশ্য কাটেনি। আইওএ প্রেসিডেন্ট নরেন্দ্র বাত্রা বলেছেন, ‘‘২০২০-র মার্চে কী হবে, তা নিয়ে কোনও ভবিষ্যৎবাণী করা ঠিক হবে। ভাল কিছু হবে আশা করেই যোগ দেব আমরা। সিজিএফ এ এই ব্যাপারে যথেষ্ট ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছে।’’ পাশাপাশি মজার ব্যাপার হল, আইওএ-র সভায় মূল গেমসের আগে কমনওয়েলথ তিরন্দাজি করার জন্য আবেদন করার সিদ্ধান্ত হয়। শুটিংয়ের মতো তিরন্দাজিকেও পদক-ইভেন্ট হিসাবে রাখা হয়নি এখনও। নতুন ‘স্পোর্টস কোড’ নিয়েও কোনও মন্তব্য করতে চাননি বাত্রা। বলেছেন, ‘‘এটা নিয়ে কিছু বলব না।’’ তিনি জানিয়ে দেন, টোকিয়ো অলিম্পিক্সে ১২৫ থেকে ১৬০ অ্যাথলিট যোগ দেবেন।  

টিটি প্রশিক্ষণ শিবির: মন্তেসরি টেবল টেনিস প্রশিক্ষণ শিবির শেষ হল সিএলটি-তে। চার থেকে আট বছর বয়সি ৬০টি ছেলে ও মেয়েকে শংসাপত্র দেওয়া হয়। উপস্থিত ছিলেন জাতীয় চ্যাম্পিয়ন সুতীর্থা মুখোপাধ্যায়, এশিয়ান হোপস চ্যাম্পিয়ন সায়নি পণ্ডা, প্রাক্তন ফুটবলার প্রদীপ চৌধুরী।

আন্তঃজেলা বক্সিং: শিবপুর রিজার্ভ পুলিশ লাইনে আয়োজিত আন্তঃজেলা বক্সিং প্রতিযোগিতায় সেরা হলেন হাওড়ার মেহতাব আলম। দলগত বিভাগে চ্যাম্পিয়ন হাওড়া জেলা বক্সিং সংস্থা। চার দিনের প্রতিযোগিতায় যোগ দিয়েছিলেন ৮৯ জন বক্সার।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন