স্বার্থ সংঘাতের যে প্রশ্ন উঠেছিল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তার শুনানি হতে চলেছে ২০ এপ্রিল। সে দিনই দিল্লি ক্যাপিটালসের ম্যাচ রয়েছে। তাই শুনানিতে সৌরভের উপস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। 

সিএবি প্রেসিডেন্টের পাশাপাশি দিল্লি ক্যাপিটালসের উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করছেন সৌরভ। যা নিয়েই স্বার্থ সংঘাতের প্রশ্ন তুলেছিলেন তিন সমর্থক। কিন্তু দিল্লির বিরুদ্ধে কেকেআরের ম্যাচ হয়ে যাওয়া সত্ত্বেও সংঘাতের রায় ঘোষণা করা হয়নি।

অন্য দিকে ভারতীয় বোর্ড সিইও রাহুল জোহরি অম্বাডসমানকে চিঠি মারফত জানিয়েছেন, ক্রিকেট অ্যাডভাইসরি কমিটিতে থাকাকালীন কোনও আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজির উপদেষ্টা হিসেবে থাকা যায় কি না তা পরীক্ষা করে দেখতে। সৌরভের বিরুদ্ধে যাঁরা স্বার্থ সংঘাতের প্রশ্ন তুলেছেন, তাঁদেরও একই দিনে বোর্ডের নীতি-বিষয়ক অফিসারের দ্বারস্থ হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

রাহুল জোহরি লিখেছেন, ‘‘বোর্ডের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কোনও সংস্থার পদে থাকাকালীন কোনও দল অথবা ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে যুক্ত হলে স্বার্থ সংঘাতের প্রশ্ন উঠতেই পারে। সঙ্গে একটি বিষয় পরীক্ষা করে দেখা উচিত, ক্রিকেট অ্যাডভাইসারি কমিটিতে থাকাকালীন কোনও ফ্র্যাঞ্চাইজির পদে থাকা যায় কি না।’’