মঙ্গলবার কেকেআর অনুশীলনে প্রথম দেখা গেল দলের নতুন সদস্যকে। অস্ট্রেলীয় পেসার ম্যাট কেলি এ দিনই অনুশীলনে যোগ দেন। দক্ষিণ আফ্রিকার অ্যানরিখ নর্তিয়ে ছিটকে যাওয়ার পরে তাঁকে নিয়ে আসে কেকেআর। 

এ বছর বিগ ব্যাশ লিগে ১২ ম্যাচে ১৯ উইকেট রয়েছে তাঁর। পার্‌থ স্কর্চার্স তাঁকে ‘ইয়র্কার বিশেষজ্ঞ’ হিসেবে খেলাত। কেকেআরের নেটেও প্রথম দিন এসে বেশ কয়েকটি ইয়র্কার দিতে দেখা যায় তাঁকে। কিন্তু কেকেআর হেড কোচ জাক কালিস তাঁকে কিছু একটা নির্দেশ দেওয়ার পরে ইয়র্কার দেওয়া বন্ধ করে দেন ২৪ বছর বয়সি পেসার। কিন্তু ছয় ফুট তিন ইঞ্চি উচ্চতার কেলির বাউন্সারও যে বিষাক্ত, তা বুঝিয়ে দেন প্রথম দিনেই। এমনকি গুড লেংথ স্পট থেকে বল বাউন্স করার ক্ষমতা রয়েছে তাঁর। তাই হয়তো তিনি নজর কেড়েছিলেন সহকারী কোচ সাইমন কাটিচের। 

কেলি নিয়ে সমর্থকদের উৎসাহ থাকলেও সব চেয়ে বেশি উদ্বেগ হয়তো আন্দ্রে রাসেলের চোট নিয়ে।  কিন্তু সেই উৎকণ্ঠা অনেকটাই কেটে গিয়েছে। কেকেআর সূত্রের খবর, ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার ফিট হয়ে গিয়েছেন। দু’দিন ধরে হাঁটুতে আইসপ্যাক দিয়ে ব্যথা কমিয়েছেন। অধিনায়ক দীনেশ কার্তিকও বলেন, ‘‘প্রত্যেক ম্যাচে রাসেল যা পরিশ্রম করে, তাতে এ ধরনের ছোট চোট পাওয়া স্বাভাভিক। চার দিন বিশ্রাম পাচ্ছে, কোনও সমস্যা হবে না।’’

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

এমনকি ওপেনার হিসেবে সফল শুভমন গিলও হয়তো উপরের দিকে ব্যাট করার সুযোগ পাবেন না। কার্তিক বলছিলেন, ‘‘দিল্লির বিরুদ্ধে লিন অসুস্থ ছিল। তাই ওপেন করানো হয়েছিল গিলকে। কিন্তু লিন ফেরার পরে ওকে দিয়েই ওপেন করানো হয়েছে। কারণ, এর আগে বহু ম্যাচে লিন ভাল শুরু করেছে। ওপেনিং জুটি আমরা ভাঙতে চাই না। তা ছাড়া কেকেআরের ব্যাটিং লাইন-আপের বিশেষত্ব এটাই যে, সবাই সব জায়গায় ব্যাট করতে পারে।’’

এ দিকে বিশ্বকাপে সুযোগ পাওয়া কোনও ক্রিকেটারকে বিশ্রাম দেওয়ার কথা ভাবছে না কেকেআর টিম ম্যানেজমেন্ট। মঙ্গলবার অনুশীলনে জানিয়ে গেলেন দলের সিইও বেঙ্কি মাইসোর। ইতিমধ্যেই ভারতের বিশ্বকাপ দল ঘোষণা হয়েছে। তাতে সুযোগ পেয়েছেন কুলদীপ যাদব ও অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক। নিউজ়িল্যান্ড বিশ্বকাপ দলেও রয়েছেন লকি ফার্গুসন। কিন্তু তাদের বাড়তি বিশ্রাম দেওয়ার পরিকল্পনা নেই কেকেআর শিবিরে।

এ দিন ইডেনে বেঙ্কি বলেন, ‘‘ক্রিকেটারদের বিশ্রাম দেওয়ার বিষয়ে আমাদের মধ্যে এখনও কোনও আলোচনা হয়নি।’’ তিনি এ কথা বললেও দেখা গেল মঙ্গলবারের অনুশীলনে আসেননি কুলদীপ, ফার্গুসনরা। হতে পারে অতিরিক্ত তাপমাত্রার কারণে হোটেলে বিশ্রাম নিচ্ছিলেন। অথবা বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে অযথা পরিশ্রম করছেন না। কুলদীপ, লকি ছাড়াও মাঠে ছিলেন না ক্রিস লিন, আন্দ্রে রাসেল, সুনীল নারাইন, পীযূষ চাওলা, হ্যারি গার্নি, জো ডেনলিরা। প্রত্যেকেই হোটেলে বিশ্রাম নিয়েছেন।