চতুর্থ বার আইপিএল জেতার স্বপ্নপূরণ হল মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের। ম্যাচ শেষে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ক্রিকেটারেরা যখন উৎসবে মেতে উঠেছেন, ধারাভাষ্যকার মাইকেল স্লেটার এগিয়ে গেলেন সচিন তেন্ডুলকরের দিকে। সচিনকে জিজ্ঞাসা করলেন, ‘‘ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট কোনটা?’’

কিংবদন্তির উত্তর, ‘‘অবশ্যই ধোনির রান-আউট। আমার মতে সেটাই ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ করে দিয়েছে।’’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘‘বুমরা ও রাহুল চাহারের পারফম্যান্সের কথাও বলতে হবে। মাঝের ওভারগুলোয় রাহুল যে ভাবে স্লিপ রেখে বল করে গেল, তা সত্যি অসাধারণ। শুধু আজকের ম্যাচে নয়, সারা মরসুম ধরেই ভাল বল করে গিয়েছে রাহুল।’’

হার্দিক পাণ্ড্য, লাসিথ মালিঙ্গার প্রশংসাও করে গেলেন সচিন।

আরও পড়ুন: পর পর চার ম্যাচে হার, মুম্বই ভীতিই কি হারিয়ে দিল চেন্নাইকে? 

বলছিলেন, ‘‘গত বার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সময় ১২৯ রান করে বিপক্ষকে আটকে দিয়েছিলাম। সেটাই আমাদের আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছিল। মালিঙ্গার শেষ ওভার নিয়ে নতুন করে কী আর বলার থাকতে পারে। কিন্তু সারা মরসুম ধরে কঠিন মুহূর্তে হার্দিক যে ভাবে খেলেছে তাতে আমি মুগ্ধ।’’ যাঁকে নিয়ে প্রশংসা করে গেলেন ‘মাস্টার ব্লাস্টার’, সেই হার্দিকের নজর এ বার বিশ্বকাপে। হার্দিক বলেন, ‘‘আরও একটা আইপিএল জিতে খুশি। সামনে বিশ্বকাপ। এ বার সেই ট্রফির স্বাদ পেতে চাই।’’

শেষ ওভারের নায়ক মালিঙ্গা জানিয়ে দিলেন কেন শেষ বলটি তিনি স্লোয়ার করেন। শ্রীলঙ্কা পেসারের ব্যাখ্যা, ‘‘পরিকল্পনা ছিল শেষ বলে উইকেট নেব। স্লোয়ার বলটি আমার বিশেষ বৈচিত্র। তাই সেটাই ব্যবহার করলাম।’’ আর ম্যাচের সেরা যশপ্রীত বুমরা বলে গেলেন, ‘‘জানতাম ফাইনাল সহজ নয়। তাই ক্যাচ অথবা ফিল্ডিং ফস্কালেও আমরা কিন্তু শান্ত থাকার চেষ্টা করেছি।’’