• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নর্থ-ইস্টের বিরুদ্ধে লড়াই একঝাঁক নর্থ ইন্ডিয়ানের

ISL
অনুশীলনে নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেড। ছবি: আইএসএল।

নর্থ-ইস্টের বেশ কয়েকজন ফুটবলার রয়েছেন এই দলে। রয়েছেন কোচ থাংবোই সিংতোও। যাঁর হাত ধরে নর্থ-ইস্টের বহু ফুটবলার উঠে এসেছেন। সেই কেরল ব্লাস্টার্সের সহকারি কোচ এখন থাংবোই। আর তাঁদের থেকেই নর্থ-ইস্টের যাবতীয় তথ্য পাচ্ছে কেরল দল। তা দিয়েই বাজিমাত করতে চাইছে সচিন অ্যান্ড টিম। কোচির জওহরলাল নেহরু স্টেডিয়ামে নর্থ-ইস্টের বিরুদ্ধে নামার আগে এখানেই এগিয়ে থাকছে কেরল ব্লাস্টার্স।

চতুর্থ আইএসএল-এ কেরল ব্লাস্টার্স সেই দুই দলের একটি (অন্যটি এটিকে) যারা এখনও জয়ের মুখ দেখেনি। কোচ রেনে মেউলেনস্টিন অবশ্য নিশ্চিত, জয় এল বলে! শুক্রবারের ম্যাচে তাদের সামনে নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেড।

সহকারি কোচ থাংবোই সিংতো ছিলেন আগে শিলং লাজংয়ের কোচ। ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলের ফুটবলারদের খুব ভাল করে চেনেন তিনি। রেনে স্বীকার করেছেন, সিংতোর এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগবে তাঁদের। তিনি বলেন, ‘‘আমার দলের নর্থ-ইস্টের ফুটবলারদের জন্যও দিনটা আলাদা। অন্য একটা মাত্রা যোগ করছে এই ম্যাচ, ওদের জন্যও। দুই দলের কাছেই বিশেষ ম্যাচ, থাংবোইয়ের সাহায্য নিচ্ছি আমরা। কিছু কিছু ফুটবলার ও দলের খেলা সম্পর্কে ওর মতামত আমাদের জানিয়েছে, যা নিশ্চিতভাবেই কাজে লাগবে আমাদের।’’

আরও পড়ুন

ঘরের মাঠে রেকর্ড ধরে রাখতে তৈরি পুণে

ঘটনাবহুল আইএসএল-এর চতুর্থ সপ্তাহ

কেরল ব্লাস্টার্সে সাতজন ফুটবলার রয়েছেন ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চল থেকে। কেরল কোচের কাছে এটা অন্য রকম ডার্বি। রেনে বলেন, ‘‘জানি, ব্যাপারটা মানসিক দিক দিয়েও প্রভাব ফেলতে বাধ্য। কিন্তু আমাদের ফুটবলাররা প্রস্তুত। আবেগের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত না হয়ে নিজেদের খেলাই খেলবে ওরা। পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলাটা জরুরি। যেহেতু দেশের ওই অঞ্চল থেকেই ওদের উত্থান, স্বাভাবিকভাবেই আবেগ বেশিই থাকবে।’’ তিনি এই ম্যাচে  চোটের জন্য পাচ্ছেন না বের্বাতভকে। ফিরছেন সিকে বিনিথ, ওয়েস ব্রাউন এবং ইয়ান হিউম।

নর্থইস্ট ইউনাইটেডের কোচ হোয়াও দে দেউস শুনেছেন যে, তাঁদের অঞ্চলেরই বেশ কয়েকজন ফুটবলার বিপক্ষ দলে রয়েছেন। তা ছাড়াও, কোচিতে এখন পর্যন্ত গত তিন মরসুমে একবারও জেতেনি নর্থ-ইস্ট, এই তথ্যও জানেন তিনি। যদিও এই তথ্য নিয়ে মাথা ঘামাতে নারাজ কোচ। তিনি মনে করেন না এগুলো ম্যাচে বিরাট কোনও প্রভাব ফেলতে পারে। বিপক্ষের সহকারি কোচ হিসেবে সিংতোর তাঁর দলের উপর কোনও প্রভাব ফেলবে না বলেই বিশ্বাস নর্থ-ইস্ট কোচের।

‘‘জানি, তিনি হয়তো আমাদের ফুটবলারদের সবাইকেই চেনেন, জানেন। কিন্তু আমাকে তো আর চেনেন না, জানেন না কীভাবে আমি ওদের খেলাতে চাইছি, তাই না? আমার দলের ফুটবলাররা কিন্তু খেলতে নামবে আমার পরিকল্পনা অনুযায়ীই। তাই এই ব্যাপারটা নিয়ে মাথা ঘামাতে রাজি নই,’’ বলেছেন দে দেউস।

শেষ ম্যাচে দূর্ভাগ্যজনকভাবে বেঙ্গালুরু এফসি-র কাছে হেরে এই ম্যাচ খেলতে এসেছে নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেড। কোচ মনে করছেন, অন্তত একটি পয়েন্ট পেতেই পারতেন ওই ম্যাচ থেকে। তবে, শেষ মুহূর্তে গোলরক্ষক টিপি রেহনেশের ভুল থেকেই গোল খেয়ে ম্যাচ হারতে হয়েছিল। ‘‘টিপি আহত ছিল। ওয়ার্ম আপ করার সময়ই চোট পেয়েছিল। ডান পায়ে শট নিতে পারছিল না। বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে যে ভুলটা করেছিল, বাঁ পায়ে শটটা নিতে গেয়ে। এখন পুরোপুরি সুস্থ,’’ জানিয়েছেন কোচ।

নর্থইস্ট ইউনাইটেড এই মুহূর্তে রয়েছে লিগ তালিকার সপ্তম স্থানে। চার ম্যাচে চার পয়েন্ট নর্থ-ইস্টের। কেরল একটিও জয় না পাওয়ায় তিন পয়েন্ট নিয়ে আছে নর্থ-ইস্টের ঠিক পরেই।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন