অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন জিমি অ্যান্ডারসন। গল্‌ফ খেলতে গিয়ে মারাত্মক চোট পাওয়ার হাত থেকে বেঁচে গেলেন ইংল্যান্ডের এই পেসার।

এজবাস্টন টেস্ট জেতার পরে দিন কয়েক ছুটি উপভোগ করছেন ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারেরা। ছুটি উপভোগ করার ফাঁকেই সোমবার তাঁদের কয়েক জনকে দেখা যায় বাকিংহামশায়ারের গল্‌ফ কোর্সে। সেখানেই দুর্ঘটনার মুখে পড়েন অ্যান্ডারসন।

বাইশ গজে অনেক বারই এমন হয়েছে, এগারো নম্বরে ব্যাট করতে নেমে নাক-মুখের পাশ দিয়ে বল চলে যেতে দেখেছেন অ্যান্ডারসন। কয়েক বছর আগে অ্যাশেজ সিরিজে তো মিচেল জনসনের একের পর এক বাউন্সার সামলাতে হয়েছিল এই ইংল্যান্ড পেসারকে। যে সব বল কখনও মাথা সরিয়ে, কখনও মাথা নিচু করে এড়িয়ে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু এ বার সেই কাজটা করতে ব্যর্থ হলেন অ্যান্ডারসন।

কী ঘটেছিল গল্‌ফ কোর্সে?   

টি-অফ করার পরে একটা জায়গায় এসে বল দূরে চলে গিয়েছিল। সেখান থেকে বলটা বার করার চেষ্টায় জোরে হিট নেন অ্যান্ডারসন। কিন্তু বল একটা গাছে লেগে ছিটকে এসে লাগে অ্যান্ডারসনের মুখে। সতীর্থ স্টুয়ার্ট ব্রড পিছনে দাঁড়িয়ে ঘটনাটা ক্যামেরা বন্দি করেন। পরে তিনি টুইটারে সেই ভিডিয়ো পোস্টও করেন। যেখানে দেখা যাচ্ছে, বলটা ছিটকে এসে লাগছে অ্যান্ডারসনের মুখে। আর তিনি সরে যাওয়ার চেষ্টা করছেন।

তবে অ্যান্ডারসনের চোট যে মারাত্মক হয়নি, সেটা ব্রডের হাসির ‘ইমোজি’ দেওয়ার মধ্যেই পরিষ্কার। পাশাপাশি তিনি এও লিখে দেন, ‘‘জিমি পুরোপুরি ঠিক আছে।’’ কেউ কেউ লিখেছেন, ‘‘দুর্দান্ত। এর পরে তুমি নিশ্চয়ই আয়নার দিকে দৌড়েছিলে!’’ অ্যান্ডারসন জবাব দিয়েছেন, ‘‘দেখছিলাম দাঁতগুলো সব ঠিক আছে কি না। সব ঠিক আছে।’’ তবে অ্যান্ডারসন পাশাপাশি এও জানিয়ে দিয়েছেন, এর পরেও তিনি গল্‌ফ ছাড়ার কথা কোনও ভাবেই ভাবছেন না।

অ্যান্ডারসন বড় দুর্ঘটনার হাত থেকে বেঁচে যাওয়ায় স্বস্তি পাবেন ইংল্যান্ড সমর্থকেরা। ইতিমধ্যেই দ্বিতীয় টেস্টে ইংল্যান্ড পাচ্ছে না বেন স্টোকসকে। এর পরে অ্যান্ডারসন চোট পেলে তাদের সমস্যা
আরও বাড়ত।

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ শুরু হওয়ার আগে থেকেই কোহালি বনাম অ্যান্ডারসন দ্বৈরথ নিয়ে প্রচুর হইচই হচ্ছে। প্রথম টেস্টে কোহালি সেঞ্চুরি করলেও দলকে জেতাতে পারেননি। এই দ্বৈরথ নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন পেসার গ্লেন ম্যাকগ্রা বলেছেন, ‘‘কেউ কেউ হয়তো এখন বলবেন, বিরাট ১-০ এগিয়ে গিয়েছে। তবে বলে দিতে চাই অ্যান্ডারসনও কিন্তু দারুণ বোলার। ইংল্যান্ডের আবহাওয়ায় ডিউক বল বেশি সুইং করে। আমার তো মনে হয়, অ্যান্ডারসন ফিরে আসবে। সিরিজটা জমে যাবে।’’