লর্ডসে ইংল্যান্ডের পেসার আর্চারের বিধ্বংসী পেসে প্রায় ধরাশায়ী হচ্ছিল অস্ট্রেলিয়া। তাঁর বিষাক্ত বাউন্সার যেমন স্টিভ স্মিথকে ছিটকে দেয় ম্যাচ থেকে, তেমনই আতঙ্ক তৈরি করে টিম পেন, মার্নাস লাবুশানেদের মনে। ছয় উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে যান তাঁরা। ম্যাচে পাঁচটি উইকেট নিলেও সব সময়ই তাঁর পেস আতঙ্কে রেখেছিল অজিদের। ম্যাচ শেষে তাঁর প্রশংসা শোনা গেল অধিনায়ক জো রুট থেকে ম্যাচের সেরা বেন স্টোকসের গলাতেও।

ইংল্যান্ড অধিনায়ক জো রুট বিশ্বাস করেন জোফ্রা আর্চারই পারেন তাঁদের অ্যাশেজ জেতাতে। সেই ক্ষমতা তাঁর আছে বলে বিশ্বাস করেন রুট। রবিবার লর্ডসে আর্চারের বিধ্বংসী বোলিং-এর দাপটে জেতার মুখে চলে আসে ইংল্যান্ড। জীবনের প্রথম টেস্ট খেলতে নেমেই ব্যাটসম্যানদের ত্রাস হয়ে ওঠেন আর্চার।

২০১৩-’১৪ সালের অ্যাশেজে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠে ছিলেন অজি পেসার মিচেল জনসন। সে বারের ইংল্যান্ড দলের সদস্য ছিলেন বর্তমান ইংরেজ অধিনায়ক রুট। তিনি মনে করেন, এ বারে আর্চার মনে করাচ্ছেন সেই জনসনকে। বাঁহাতি অজি পেসার সেই বারে ৩৭টি উইকেট নিয়ে প্রায় একাই উড়িয়ে দিয়েছিলেন ইংল্যান্ডকে।

আরও পড়ুন: আর্চারকে ছেড়ে কথা বললেন না শোয়েব, সোশ্যাল মিডিয়ায় করলেন সমালোচনা

এই মুহূর্তে অ্যাশেজে ১-০ পিছিয়ে রয়েছে ইংল্যান্ড। তবে রুট মনে করছেন, তাঁরা ফিরে আসবেন এই সিরিজে। এবং তার পিছনে আর্চার বড় ভুমিকা নেবেন। স্মিথকে করা আর্চারের সেই স্পেলকে ক্রিকেটের অন্যতম সেরা স্পেল মনে করছেন তাঁর অধিনায়ক। ম্যাচ শেষে বেন স্টোকসকে ম্যাচের সেরা বেছে নেওয়া হয়। স্টোকস বলেন, ‘‘টেস্ট ক্রিকেটে এর চেয়ে ভাল শুরু বোধ হয় করতে পারত না আর্চার।

আরও পড়ুন: লর্ডসের মহারণের পর অ্যাশেজকেই টেস্টের সেরা বিজ্ঞাপন বলছেন সৌরভ​

যদিও অজি অধিনায়ক টিম পেনমনে করেন টেস্টক্রিকেটে নতুন হলেও ক্রিকেট বিশ্বে অপরিচিত নয়। বিভিন্ন টি২০ লিগে তিনি পরিচিত মুখ।ইংল্যান্ডের হয়ে ওয়ান ডে-ও খেলেন। আর্চারকে খেলতে না পারা তাই তাঁদের ব্যর্থতা।