বিশ্বকাপের আগে পাকিস্তান ক্রিকেটে অশান্তির ছায়া। বাইশ গজে লড়াই শুরু হওয়ার আগেই পাকিস্তানের নির্বাচকদের সামলাতে হচ্ছে জুনেইদ খানের ‘বাউন্সার’। 

মাস খানেক আগে বিশ্বকাপের প্রাথমিক দল ঘোষণা করেছিল পাকিস্তান। যে দলে জায়গা পেয়েছিলেন বাঁ হাতি পেসার জুনেইদ। কিন্তু সোমবার পাকিস্তান চূড়ান্ত ১৫ জনের তালিকা প্রকাশ করে। সেখানে দেখা যাচ্ছে আগের দল থেকে বাদ পড়েছেন তিন ক্রিকেটার। যে তালিকায় আবিদ আলি, ফাহিম আশরাফের সঙ্গে আছেন জুনেইদও। ফিরিয়ে আনা হয়েছে আসিফ আলি, মহম্মদ আমির এবং ওয়াহাব রিয়াজ়কে। দু’বছর জাতীয় দলের বাইরে থাকার পরে ফের ফেরানো হয় ওয়াহাবকে।

এই ভাবে বাদ পড়াটা যে তিনি ভাল ভাবে নিতে পারেননি, তা বুঝিয়ে দিয়েছেন জুনেইদ। মুখে কালো টেপ লাগানো নিজের ছবি পোস্ট করে এই বাঁ হাতি পেসার লেখেন, ‘‘আমি কিছু বলতে চাই না। সত্যিটা সব সময় তেতো হয়।’’ জুনেইদের এই টুইট মুহুর্তের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। পাক সাংবাদিকেরাও জুনেইদের ছবি-সহ এই পোস্ট রিটুইট করতে থাকেন। সবার বক্তব্য মোটামুটি এক। কিছু না বলতে চেয়েও অনেক কিছু বলে দিলেন জুনেইদ।

এই বাঁ হাতি পেসার সেই বিরলতম ক্রিকেটার, যিনি তিনটে বিশ্বকাপের দলে থেকেও কোনও ম্যাচ খেলতে পারেননি। ২০১১ বিশ্বকাপে তিনি ১৫ জনের দলে থেকেও একটি ম্যাচ খেলেননি। ২০১৫ বিশ্বকাপের দলেও তাঁকে রাখা হয়েছিল। কিন্তু প্রতিযোগিতা শুরুর ঠিক আগে চোট পেয়ে ছিটকে যান। আর এ বারের বিশ্বকাপে প্রাথমিক দলে সুযোগ পেয়েও সরে যেতে হল। 

জুনেইদের ছিটকে যাওয়ার দিনে অভাবনীয় ভাবে ফিরিয়ে আনা হল ওয়াহাব রিয়াজ়কে। দু’বছর আগে শেষ ওয়ান ডে খেলেছিলেন তিনি। পাকিস্তান কোচ মিকি আর্থার তখন বলেছিলেন, ‘‘এত অভিজ্ঞতা সত্ত্বেও ওয়াহাব আমাদের ম্যাচ জেতাতে পারছে না। আমাদের এখন তরুণ প্রজন্মের দিকে তাকাতে হবে।’’ দেখা যাচ্ছে, ২০১৯ সালে এসে পাকিস্তানি নির্বাচকেরা আবার অভিজ্ঞতাতেই ভরসা রাখতে চাইছেন। 

খারাপ ফর্মের জন্য আমিরও প্রাথমিক দলে ছিলেন না। কিন্তু ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাকিস্তানি বোলারদের হাল দেখে ইনজ়ামাম উল হকের নির্বাচক কমিটি সিদ্ধান্ত নেয় আমিরকে ফিরিয়ে আনার। এর আগে শোয়েব আখতার থেকে অনেক প্রাক্তন পাক ক্রিকেটারই আর্জি জানিয়েছিলেন আমিরকে দলে নেওয়ার ব্যাপারে। এ দিন চূড়ান্ত দল ঘোষণার পরে আমির টুইট করেন, ‘‘পাকিস্তানের বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পেয়ে আমি আপ্লুত এবং গর্বিত। আমরা চেষ্টা করব, বিশ্বকাপে দেশকে গর্বিত করার।’’