• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রোনাল্ডোর লাল কার্ডে উত্তাল ফুটবলবিশ্ব

জুভেন্তাস জয় পেল জোড়া পেনাল্টিতে

Ronaldo
হতাশ: লাল কার্ড দেখেছেন বিশ্বাসই হচ্ছে না রোনাল্ডোর। বুধবার ভ্যালেন্সিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচে। এএফপি

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

ভ্যালেন্সিয়া ০      জুভেন্তাস ২

জুভেন্তাস মনে করে, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে দলে পাওয়ায় এ বার তারা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে পারবে। কিন্তু ইউরোপের সেরা প্রতিযোগিতায় তাদের অভিযান শুরু করতে হল কার্যত পর্তুগিজ মহাতারকাকে বাদ দিয়েই। ভ্যালেন্সিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচে রেফারির বিতর্কিত সিদ্ধান্তে লাল কার্ড দেখে কাঁদতে কাঁদতে মাঠ ছাড়তে হল রোনাল্ডোকে। ফুটবল বিশ্লেষকরা বললেন, লঘু অপরাধের জন্য তাঁকে বড় শাস্তি দেওয়া হল। খুব বেশি হলে হলুদ কার্ড দেখিয়েই রোনাল্ডোকে ছেড়ে দিতে পারতেন রেফারি। জুভেন্তাস অবশ্য তার পরেও ২-০ গোলে ম্যাচ জিতে মাঠ ছাড়ল বুধবার ভারতীয় সময় গভীর রাতে।

খেলার ২৬ মিনিটে রোনাল্ডো বিপক্ষ বক্সের কাছে খুব হাল্কা ভাবে ভ্যালেন্সিয়ার ডিফেন্ডার জেসন মুরিলোকে লাথি মারেন। লাথি না বলে যাকে সামান্য সংঘর্ষও বলা যায়। ঘটনার পরেই মাটিতে পড়ে যান মুরিলো। তখন রোনাল্ডোই তাঁর মাথায় হাত দিয়ে তাঁকে উঠে দাঁড়াতে বলেন। জার্মান রেফারি ফেলিক্স ভোস্  সামান্য এই ঘটনার জন্য রোনাল্ডোকে লাল কার্ড দেখানোয় সবাই বিস্মিত হন। সব চেয়ে বেশি অবাক হয়েছিলেন রোনাল্ডো নিজেই। মাঠে বসে পড়ে তিনি নিজের হতাশা ও উষ্মা প্রকাশ করতে থাকেন।

এই রেফারিই আবার ইতালির ক্লাবটিকে দু’টি পেনাল্টি দেন। যার দু’টি থেকে গোল করেন মিরালেম পিয়ানিচ। তবে অতিরিক্ত সময় ভ্যালেন্সিয়াও একটা পেনাল্টি পেয়েছিল। যা নষ্ট করেন দানিয়েল পারেজো। আপাতত দেখার, রোনাল্ডোর বিষয়টি নিয়ে কী সিদ্ধান্ত নেয় উয়েফা। শোনা যাচ্ছে, রেফারির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে জুভেন্তাস আবেদন করবে। তবে যে কোনও অবস্থায় রোনাল্ডো যে ২ অক্টোবর সুইৎজ়ারল্যান্ডের ক্লাব ইয়ং বয়েজের বিরুদ্ধে খেলতে পারবেন না, তা নিশ্চিত। শোনা যাচ্ছে,  উয়েফা তাঁকে একটি ম্যাচেই নির্বাসিত করে ছেড়ে দিতে পারে। সে ক্ষেত্রে রোনাল্ডো হয়তো ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের বিরুদ্ধে খেলতেও পারেন।

হতাশ জুভেন্তাস কোচ ম্যাক্সমিলিয়ানো আলেগ্রি বলেছেন, ‘‘আমি শুধু বলতে পারি ভিএআরের সাহায্য নিলেই রেফারি সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারতেন।’’ এ দিন এস্তাদিয়ো মাসতেল্লায় রোনাল্ডো লাল কার্ড দেখায় যে ভাবে ভ্যালেন্সিয়ার সমর্থকরা উৎসব শুরু করেন তা খুবই দৃষ্টিকটু লেগেছে। হয়তো তাঁরা ভেবেছিলেন, তাঁর অনুপস্থিতিতে ম্যাচ জিতে নেওয়ার সুবর্ণ সুযোগ পাওয়া গেল। বাস্তবে অবশ্য তেমন কিছু হয়নি। বরং রোনাল্ডো উঠে যাওয়ার পরে জুভেন্তাস জয়ের জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ে। সফলও হয়। যদিও ইতালির কাগজে শিরোনাম হয়েছে, ‘‘ফিরে এসো রোনাল্ডো। আমাদের ইউরোপ-সেরা করে দেখাও।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন