মহম্মদ শামি, যশপ্রীত বুমরারাই ভারতীয় ক্রিকেটের মুখচ্ছবি বদলে দিয়েছেন। সাম্প্রতিক কালে ভারতীয় ফাস্ট বোলারদের দৌরাত্ম্য দেখার পরে বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিলদেব নিখাঞ্জ বলছেন, ‘‘আমরা এ রকম পেস অ্যাটাকের কথা আগে কখনও ভাবিনি। এ রকম আক্রমণ দেখিনি আগে। শেষ চার-পাঁচ ওভারে ফাস্ট বোলাররা ভারতীয় ক্রিকেটকে বদলে দিয়েছে।’’

বুমরা, শামি, ইশান্ত শর্মারা এখন শুধু দেশের মাটিতে নয়, দেশের বাইরেও দাপট দেখাচ্ছেন। চোটের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে খেলছেন না বুমরা।

তিনি না থাকায় বিশাখাপত্তনম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে প্রোটিয়াদের ভাঙেন শামি। তবুও তিনি সেরা দশ বোলারের তালিকায় নেই। কপিল বলছেন, ‘‘সেরা দশ বোলারের তালিকায় শামি না থাকলেও ক্ষতি নেই। দলের হয়ে কতটা কার্যকরী ভূমিকা নিতে পারছে শামি সেটাই গুরুত্বপূর্ণ।’’

আরও পড়ুন: পুণেতে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে নতুন কীর্তি, প্রাক্তন তারকাদের সঙ্গে একই বন্ধনীতে ময়াঙ্কের নাম

এক সময়ে বলা হত, পাকিস্তান বোলারের জন্ম দেয়। আর ভারত ব্যাটসম্যানের। এই মিথ এখন বদলে গিয়েছে। ভারত এখন দুরন্ত ব্যাটসম্যানের পাশাপাশি বোলারেরও জন্ম দিচ্ছে। ফাস্ট বোলার তৈরির পিছনে আইপিএলের ভূমিকার কথা মেনে নিচ্ছেন কপিল। তিনি বলেন, ‘‘পেস আক্রমণ তৈরি করতে সময় লেগেছে। আইপিএলের জন্য এখন অনেক ফাস্ট বোলার খেলার সুযোগ পাচ্ছে। বেশি ক্রিকেট খেললে বেশি প্লেয়ার উঠে আসবে। তরুণদের প্রতিভা তুলে ধরার সুযোগ দিতে হবে।’’

আরও পড়ুন: প্রথম বার ছেলেকে আইপিএল খেলতে দেখে কেঁদে ফেলেছিলেন বুমরার মা