• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বেইতিয়াদের কার্ড সমস্যা মাথায় রেখে সতর্ক কিবু

Kibu Vicuna
মহড়া: আই লিগ শীর্ষে থাকলেও দল নিয়ে উদ্বেগে কিবু। নিজস্ব চিত্র

দলের তিন স্পেনীয় স্তম্ভ ফ্রান গঞ্জালেস, ফ্রান মোরান্তে, জোসেবা বেইতিয়া এবং  গুরজিন্দর কুমার তিনটি করে হলুদ কার্ড দেখে ফেলেছেন। আর একটি কার্ড দেখলেই এক ম্যাচ বসতে হবে। এটা কতটা চিন্তায় রেখেছে আপনাকে? মঙ্গলবার বিকেলে অনুশীলনের পরে প্রশ্ন শুনে একটুও চিন্তিত বলে মনে হল না কিবু ভিকুনাকে। খেতাবের লড়াইতে অনেক এগিয়ে থাকা মোহনবাগানের স্পেনীয় কোচ বলে দিলেন, ‘‘স্পেন, পোলান্ড, যেখানেই কোচিং করাতে গিয়েছি, এই সমস্যা হয়েছে। লিগে এই সমস্যায় পড়তেই হয় কোচেদের। তার সমাধানও করতে হয়।’’

লিগ টেবলের অঙ্কে বাকি সাতটি ম্যাচের চারটিতে জিতলেই সরাসরি চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে মোহনবাগান। খেতাবের দৌড়ে থাকা তিনটি দল পঞ্জাব এফসি, চার্চিল ব্রাদার্স এবং রিয়াল কাশ্মীর নিজেদের মধ্যে খেলবে। তারা পয়েন্ট নষ্ট করলেই আরও আগে খেতাবের মুকুট মাথায় পরে ফেলতে পারবেন জোসেবা বেইতিয়ারা। ২৯ ফেব্রুয়ারি যুবভারতীতে ইস্টবেঙ্গল যদি চার্চিলকে হারায়, তা হলেও সুবিধা হয়ে যাবে মোহনবাগানের। মসৃণ এই পথে দাঁড়িয়েও অবশ্য মোহনবাগানে কোনও উচ্ছ্বাস নেই। কিবু যেমন বলে দিচ্ছেন, ‘‘পরের ট্রাউ ম্যাচ নিয়েই ভাবছি। ছেলেদের বলেছি, একটা পয়েন্ট আমরা নষ্ট করার অর্থই হল অন্যদের সুবিধা করে দেওয়া। সেটা মাথায় রেখেই মাঠে নামতে হবে।’’ তার একটু আগেই শেষ ছয় ম্যাচে সাত গোল করা পাপা বাবাকর দিয়োহারার মুখ থেকে বেরোয়, ‘‘লিগ শেষ হলেই বলতে পারব চ্যাম্পিয়ন হলাম কি না?’’ 

কোচ এবং দলের সেরা স্ট্রাইকারের মতোই সবুজ-মেরুন অনুশীলনেও সতর্কতার মেজাজ। পায়ে বরফ বেঁধে বসে থাকা ড্যানিয়েল সাইরাস ছাড়া বাকিদের উপরে কড়া নজর সবুজ-মেরুন হেড মাস্টারের। ভুল করলেই বাঁশি থামিয়ে বকুনি দিচ্ছেন কিবু। করিম বেঞ্চারিফার জমানায় ১১ ম্যাচ অপরাজিত থাকার পরেও লিগ আসেনি গোষ্ঠ পাল সরণির তাঁবুতে। কিবুর দল সেই নজির ছুঁয়ে ফেলেছে ইতিমধ্যেই। রবিবার জিতলে সেই রেকর্ড ভেঙে যাবে। তা সত্ত্বেও এ দিন সেট পিস থেকে পাসিং ফুটবল, পজেশনাল ফুটবল থেকে পেনাল্টি-- ঘণ্টা দুয়েকের অনুশীলনে কিছুই বাদ গেল না। যুবভারতী হাজির শ’খানেক সমর্থকের সঙ্গে ছবি তুলতে তুলতেই মিনিট কুড়ি চলে গেল মোহনবাগান কোচের। একজন মহিলা সমর্থক গোলাপের তোড়া নিয়েই হাজির আগাম শুভেচ্ছা জানাতে। তাঁদের মধ্যে দাঁড়িয়েই মোহনবাগান কোচ বলে দিলেন, ‘‘আমরা ধীরে ধীরে খেলায় অনেক উন্নতি করেছি। আরও করতে হবে। খেলা দেখে খুশি হচ্ছেন বলেই এই সমর্থকেরা মাঠে আসছেন। আমাদের সঙ্গে ছবি তুলছেন।’’ কথা শুনলেই বোঝা যায়, লিগ টেবলে এগারো পয়েন্ট এগিয়ে থেকে শীর্ষে থাকলেও মাটিতে পা রেখে এগোতে চান কিবু স্যার।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন