• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ঋদ্ধি নয়, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দলে প্রায় ঢুকেই পড়েছিলেন এই উইকেটরক্ষক!

Wrdiddhiman Saha
ঋদ্ধিমান সাহা। ফাইল চিত্র।

ওয়েস্টইন্ডিজ সফরের জন্য ভারতের তিন ফরম্যাটের দল ঘোষণা হয়ে গিয়েছে বুধবার। সেই তিন দলে ঋদ্ধিমান সাহা ও ঋষভ পন্থ জায়গা পেলেও জায়গা হয়নি কেএস ভরতের। ভারতের এ দলের হয়ে ভাল খেলেও দলে জায়গা না পাওয়ায় কিছুটা আশ্চর্য অনেকেই। তবে বোর্ড সূত্রের খবর, দল নির্বাচনের সময় দক্ষিণের কেএস ভরত প্রায় ছিটকেই দিচ্ছিলেন বাংলার ঋদ্ধিমান সাহাকে। প্রধান নির্বাচক এমএসকে প্রসাদ জানিয়েছেন, পরে অন্য কোনও সিরিজে ভরত দলে জায়গা করে নিতেই পারেন।

এমএসকে প্রসাদ জানিয়েছেন, দল নির্বাচনের ক্ষেত্রে তাঁরা এ দলের সদস্যদের পারফরম্যান্স খতিয়ে দেখেন। যেমন, এ দলের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে ওয়ান ডে ও টি-২০ দলে জায়গা করে নিয়েছেন মণীশ পাণ্ডে ও শ্রেয়স আইয়ার। আর ওয়ান ডে দলে জায়গা করে নিয়েছেন নভদীপ সাইনি। কেএস ভরত দলে ঢোকার একেবারে দোর গোড়ায় এসে পড়েছিছেন।

জানা গিয়েছে, দল নির্বাচনের সময় দক্ষিণী লবি জোর চেষ্টা করেছিল ভরতকে দলে নেওয়ার জন্য। এমনিতেই ভরত খুব ভাল খেলছেন। তবে ভারতীয় দল নির্বাচনের ক্ষেত্রে একটি অলিখিত প্রথা রয়েছে। কেউ যদি চোটের জন্য ছিটকে যান, তবে তাঁকে অন্তত একটি সিরিজে সুযোগ দেওয়া হয় নিজেকে ফের প্রমাণ করার। সেই হিসেবেই প্রায় দেড় বছর পর দলে জায়গা করে নিয়েছেন ঋদ্ধিমান সাহা। এখন দেখার ঋদ্ধি তাঁর জায়গা ধরে রাখতে পারেন কিনা।

আরও পড়ুন : বান্ধবীর বয়ফ্রেন্ডের ওপর ভরসা করে গণধর্ষণের শিকার দ্বাদশ শ্রেণির কিশোরী

আরও পড়ুন : স্বামীকে খাটের সঙ্গে বেঁধে পুড়িয়ে খুন! আরামবাগে প্রেমিক-সহ গ্রেফতার স্ত্রী

ভারতের এ দলের হয়ে ভরত গত ৩টি সিরিজে তিনটি শতরান করেছেন। উইকেটের পিছনে শিকার ৫০ পেরিয়েছে। সেই বিচারেই দলে জায়গা করে নেওয়ার ক্ষেত্রে তাঁর নাম গুরুত্বের সঙ্গে বিচার করা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন এমএসকে প্রসাদ।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে কেএস ভরতের গড় ৩৮.৭৫। একটি ত্রিশতরান রয়েছে তাঁর। এই ফরম্যাটে মোট ৮টি শতরান ও ২০টি অর্ধশতরান রয়েছে ভরতের। ফলে এই পারফর্মেন্সকে উপেক্ষা করা সম্ভব নয়। তাই মনে করা হচ্ছে ঋদ্ধি বা পন্থের কারও কোনও চোট লাগলেই দলে জায়গা করে নিতে পারেন ভরত।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন