• রতন চক্রবর্তী
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

উষাকে ছুঁলেন ললিতা

usha
—নিজস্ব চিত্র।

সানিয়া-বোপান্না, বক্সিংয়ের বিকাশ কৃষাণ বা শ্যুটিং-এর গুরপ্রীতের পর ভারতের অলিম্পিক্সের আকাশে আরও কিছুটা উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনলেন ললিতা বাবর। পদক এখনও আসেনি ঠিক। কিন্তু মেয়েদের স্টিপলচেজের তিন হাজার মিটারের ফাইনালে উঠে ললিতা ছুঁয়ে ফেললেন পিটি উষাকে। বত্রিশ বছর আগে লস অ্যাঞ্জেলিসে উষা ফাইনালে উঠেছিলেন দৌড়ে। এ দিন হ্যাভেলাঞ্জ অলিম্পিক্স স্টেডিয়ামে জাতীয় রেকর্ড ৯ মিনিট ১৯.৭৬ করার পর ললিতাকে দেখে মনে হল পদকই জিতে গিয়েছেন। ‘‘আশা করেছিলাম ফাইনালে উঠব। তবে প্রথম তিনে থাকব ভেবেছিলাম। যা করেছি ঠিক আছে। এ বার আমার লক্ষ্য পদক। রিওতে আসাটা আমার সার্থক।’’

ললিতার সঙ্গে অবশ্য লড়াইয়ে ছিলেন সুধা সিংহও, তিনি অবশ্য দ্যুতি চাঁদ, মনপ্রীত কৌরদের মতোই ব্যর্থতার সরণিতে। ললিতা এখানে আসার আগেই তাঁর সম্পর্কে উচ্ছ্বসিত ছিলেন কোচ বাহাদুর সিংহ। হিটে চতুর্থ হয়েছিলেন। পরে সময় দেখার পর যে পনেরো জনকে বেছে নেওয়া হয় ফাইনালের জন্য তাঁর মধ্যে সাত নম্বর হন ললিতা। ললিতা বলছিলেন, ‘‘অলিম্পিক্সে এ বার সবচেয়ে বড় দল পাঠিয়েছে আমাদের দেশ। ভাল কিছু করতেই হবে আমাদের।’’ ললিতা যখন ফাইনালে ওঠার যুদ্ধে লড়ছেন তখনও মাঠে আসেননি পিটি উষা। পরে তিনি এসে জড়িয়ে ধরেন ললিতাকে। তাতে আপ্লুত মহারাষ্ট্রের মেয়ে। বললেন, ‘‘আমার কাছে এটা বড় পুরস্কার।’’

বোল্ট সেমিফাইনালে: নিজের ব্যক্তিগত হিট জিতে ১০০ মিটারের সেমিফাইনালে উঠলেন উসেইন বোল্ট (১০.০৭ সেকেন্ড)। কোয়ালিফাইং হিটের পর চূড়ান্ত তালিকায় দেখা যাচ্ছে সবচেয়ে উপরে শেষ করেছেন বোল্টের প্রতিদ্বন্দ্বী জাস্টিন গ্যাটলিন। যাঁর সময় ১০.০১ সেকেন্ড।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন