লোকেশ রাহুলের শতরানেও বাঁচল না শেষ টেস্ট। ইংল্যান্ডের কাছে ১১৮ রানে হারল ভারত। সিরিজে আগেই জিতে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। ভারতের কাছে লড়াইটা ছিল সম্মান রক্ষার। কিন্তু সেটাও হল না। ইংল্যান্ডের পক্ষে সিরিজের ফল ৪-১। 

ইংল্যান্ড সফর শুরু করেছিলে়ন শতরান দিয়ে। সফরের শেষ ইনিংসেও শতরান করলেন লোকেশ রাহুল। যা কেনিংটন ওভালে পঞ্চম টেস্টের শেষ দিনে ভারতীয় ইনিংসকে কিছুটা ভদ্রস্থ করল। সঙ্গে ঋশভ পন্থেরও ব্যাট থেকে এল শতরান।

৩ জুলাই ম্যাঞ্চেস্টারে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে রাহুল অপরাজিত ছিলেন ১০১ রানে। ওই ইনিংস জিতিয়েছিল ম্যাচ। মাঝে তেমন ছন্দে ছিলেন না। তা সত্ত্বেও দল পরিচালন সমিতির আস্থা ছিল তাঁর ওপর। লোকেশ রাহুল সেই আস্থারই মর্যাদা দিলেন এই ইনিংসে।

আক্রমণাত্মক রাহুল ১১৮ বল নিলেন কেরিয়ারের পঞ্চম টেস্ট শতরানে পৌঁছতে। বেন স্টোকসকে বাউন্ডারিতে পাঠিয়ে যখন তিন অঙ্কের রানে পৌঁছলেন, তখন ভারতের স্কোর মাত্র ১৫২। এর মধ্যে ১০১ রানই এসেছে রাহুলের ব্যাটে। যা বোঝাচ্ছে তাঁর ইনিংস কত মূল্যবান ছিল। তাঁর পথ ধরেই সেঞ্চুরি করলেন ঋশভ পন্থ। ১৪৬ বলে ১১৪ রান করলেন তিনি।

আরও পড়ুন: ভারতীয় কোচদের দিয়ে হবে না, বলছেন এশিয়াডে সোনাজয়ী ভিনেশ ফোগত​

আরও পড়ুন: ভারত বন‌্ধের সমর্থনে ধর্ণায় ধোনি, ভুল খবরে তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া

৪৬৪ রানের জয়ের লক্ষ্য তাড়া করে সোমবার চতুর্থ ইনিংসে তিন উইকেটে ৫৮ রান তুলেছিল ভারত। মঙ্গলবার সকালে ৪৬ রানে শুরু করেছিলেন রাহুল। সঙ্গে ১০ রানে অপরাজিত ছিলেন অজিঙ্ক রাহানে। জেতার প্রশ্ন ছিল না। ভারতীয় ব্যাটিং কত ক্ষণ লড়ে, সে দিকেই চোখ ছিল ক্রিকেটমহলের। সিরিজ এমনিতেই ৩-১ জিতে গিয়েছে জো রুটের দল। ভারত ৪-১ হওয়া আটকাতে পারে কি না, সেটাতেই ছিল আগ্রহ।

রাহুলের ব্যাটিংই টানল দলকে। রাহানের সঙ্গে চতুর্থ উইকেটে ১১৮ রান যোগ করেন রাহুল। রাহানে ফেরেন ৩৭ করে। কোনও রান না করে ফেরেন অভিষেককারী হনুমা বিহারীও। মধ্যাহ্নভোজের বিরতিতে পাঁচ উইকেটে ১৬৭ তুলেছে ভারত। রাহুল অপরাজিত রয়েছেন ১০৮ রানে। সঙ্গে ঋষভ পন্থ (১২)। হার বাঁচাতে গেলে আরও দুই সেশন ব্যাট করতে হবে ভারতকে। হাতে রয়েছে পাঁচ উইকেট।

(আইসিসি বিশ্বকাপ হোক বা আইপিএল, টেস্ট ক্রিকেট, ওয়ান ডে কিংবা টি-টোয়েন্টি। ক্রিকেট খেলার সব আপডেট আমাদের খেলা বিভাগে।)