এক দিকে, লর্ডসের অন্যতম ঐতিহ্য-স্মারককে ইডেনের সঙ্গে জুড়ে দেওয়ার প্রচেষ্টা। অন্য দিকে, সেনাবাহিনীর প্যারেড সহ একগুচ্ছ আকর্ষণীয় পরিকল্পনা।

আগামী সেপ্টেম্বরে ইডেনে ভারত-নিউজিল্যান্ড টেস্ট যুদ্ধে সবই হাজির করছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সিএবি।

লর্ডসের বিখ্যাত ঘণ্টার ধাঁচে ইডেনেও বসছে ঘণ্টা। বিলেতের এক সংস্থার সঙ্গে কথাবার্তা শেষ। তার অর্ডারও চলে গিয়েছে। সেনাবাহিনীর প্যারেড— সেটাও দেখা যাবে টেস্ট ম্যাচে। দেখা যাবে ম্যাচের প্রত্যেক দিন, খেলা শুরুর আগে। 

লর্ডস প্যাভিলিয়নের বোলার্স বারের বাইরে ওই বিখ্যাত ঘণ্টা দেখতে পাওয়া যায়। গত দশ বছর ধরে প্রত্যেক টেস্ট ম্যাচ শুরুর আগে যা কখনও প্রখ্যাত ক্রিকেটার, কখনও ক্রিকেট প্রশাসক বা পরিচিত ক্রিকেট-উৎসাহী বাজিয়ে এসছেন। সৌরভ নিজেও বাদ যাননি। ইডেনে কোথায় ঘণ্টা বসবে, সেটা এখনও ঠিক হয়নি। কিন্তু কে বা কারা বাজাবেন, ঠিক হয়ে গিয়েছে। শনিবার সিএবি থেকে বেরনোর সময় প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বলে গেলেন, ‘‘নিউজিল্যান্ড টেস্টের প্রত্যেক দিন খেলা শুরুর আগে ওটা দু’টো টিমের কোনও না কোনও ক্রিকেটার বাজাবে।’’

আসলে টেস্ট ক্রিকেটকে বর্তমান প্রেক্ষিতে কী ভাবে আকর্ষণীয় করা যায়, তা নিয়ে কয়েক মাস আগেই দেশের সব রাজ্য ক্রিকেট সংস্থার কাছে জানতে চেয়েছিল ভারতীয় বোর্ড। সিএবি যুগ্ম সচিব অভিষেক ডালমিয়া যা নিয়ে একটা প্রেজেন্টেশন পাঠান বোর্ডকে। সেপ্টেম্বর থেকে দেশের মাটিতে বিরাট কোহালিদের টেস্ট সিরিজ শুরু হয়ে যাচ্ছে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে। দ্বিতীয় টেস্ট ইডেনে। ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে। যে টেস্ট থেকে নানা কর্মকাণ্ড ঘটতে দেখা যাবে।

যেমন ইডেনের মধ্যে ফ্যান পার্ক। কিডস জোন। কাফেটেরিয়া। কর্পোরেট সেক্টরের জন্য আলাদা টিকিট। টেস্টে বিরতির ফাঁকে তাদের মধ্যে তিন ওভারের ক্রিকেট আয়োজন। সব থাকছে।

শোনা গেল, ইডেনের এল ব্লক চত্বরে কিডস জোন করার ভাবনা চলছে। সেখানে ক্রিকেট, ফুটবল তো বটেই, কোনও শিশু যদি চায় বিরাট কোহালির মতো চুলের স্টাইল করে মাঠে ঘোরাফেরা করতে, তাও সম্ভব। হেয়ার স্টাইলিস্ট থাকবে যে! আবার কেউ ফেস পেন্টিং করতে চাইলে, তারও বন্দোবস্ত থাকবে। এ ছাড়াও বোর্ডের নির্দেশ মতো স্কুল এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের জন্য দশ শতাংশ টিকিট বিনামূল্যে ধরা থাকছে। প্রতিবন্ধীদের জন্যও বিশেষ ব্লক বরাদ্দ থাকছে এ বার থেকে। যেখানে তাঁদের জন্য যাবতীয় সুযোগ-সুবিধে অপেক্ষা করবে। আর নিউজিল্যান্ড টেস্টের টিকিটের দাম। যতটুকু যা খবর, আগের চেয়ে কমছে। ভারত নিউজিল্যান্ড টেস্টের টিকিটের দাম ঠিক হয়েছে একশো, দেড়শো এবং দু’শো টাকা।