• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জিতেও ক্ষুব্ধ মনোজ

Manoj
মনোজ তিওয়ারি।—ফাইল চিত্র।

Advertisement

বৃষ্টির জন্য অর্ধেক হয়ে যাওয়া ম্যাচে জম্মু-কাশ্মীরকে ৬ উইকেটে হারিয়ে বিজয় হজারে অভিযান শুরু করল বাংলা। জিতলেও বাইশ গজের বেহাল দশা দেখে ক্ষুব্ধ অধিনায়ক মনোজ তিওয়ারি। চেন্নাইয়ের এসএসএন কলেজ গ্রাউন্ডের উইকেট দেখে এতটাই ক্ষুব্ধ তিনি যে, সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর ক্ষোভ প্রকাশ করেন।  

জম্মু কাশ্মীরকে ২৩.৪ ওভারে ৯৬ রানে অল আউট করে দেয় বাংলা। বাংলার সিনিয়র দলের হয়ে অভিষেক ম্যাচেই চার উইকেট নেন লেগস্পিনার প্রয়াস রায়বর্মন। তরুণ পেসার ইশান পোড়েল নেন তিন উইকেট। পাল্টা ব্যাট করে ২০.৪ ওভারে ৯৮ রান তুলতে চার উইকেট হারায় বাংলা। 

কিন্তু টুইটারে উইকেট নিয়ে ক্ষোভ উগরে দেন মনোজ, যেখানে তিনি লেখেন, ‘‘ঘরোয়া ক্রিকেটেও স্পোর্টিং উইকেট থাকা উচিত। ভারতে আন্তর্জাতিক ও ঘরোয়া ক্রিকেটের পিচের মধ্যে আকাশ-পাতাল ফারাক! কিন্তু ঘরোয়া ক্রিকেটেই বা কেন ও রকম পিচ দেওয়া হবে না? অন্তত ওয়ান ডে ও টি-টোয়েন্টিতে সামঞ্জস্যটা রাখা উচিত।’’ বাংলা শিবির সূত্রে জানা যায়, সকালে মাঠে গিয়ে বোঝা যায়, এই উইকেটে শুরু থেকেই বল ঘুরতে পারে। এটা আন্দাজ করেই স্পিনার প্রয়াসকে খেলানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

চেন্নাই থেকে প্রয়াস বলেন, ‘‘লাঞ্চ পর্যন্ত আমি জানতামই না খেলতে হবে। লাঞ্চের পরে কোচ আমাকে তৈরি হতে বলেন। যা শুনে আমি বেশ অবাক হয়ে যাই।’’ শুরু থেকেই ইশান ও প্রয়াস এ দিন ইরফান পাঠানের দলকে চাপে ফেলে দেন। দশ ওভারের মধ্যেই ৩৫-৫ হয়ে যায় তারা। ইশান বলেন, ‘‘মেঘলা আবহাওয়া ছিল। শুরুতে পিচের সাহায্যও পাই কিছুটা। এই স্তরের ক্রিকেটে নিয়মিত খেলায় এখন আমি অনেক আত্মবিশ্বাসী। লাইন ও লেংথ বজায় রেখে বল করে গিয়েছি।’’ বাংলাকে অবশ্য এই উইকেটে আর খেলতে হবে না। তাদের পরের ম্যাচ ত্রিপুরার বিরুদ্ধে চিপকে।    

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন