আসন্ন কাতার বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের ম্যাচে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী ভারতীয় স্ট্রাইকার মনবীর সিংহ ও তাঁর সতীর্থেরা।

বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের খেলায় এশিয়ান জোনের গ্রুপ ‘ই’ তে রয়েছে ভারত। গত মাসে গুয়াহাটিতে ওমানের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে সুনীল ছেত্রীর গোলে এগিয়ে গিয়েও ১-২ হারতে হয়েছিল। তার পরে দোহা গিয়ে কাতারকে রুখে দেয় ইগর স্তিমাচের প্রশিক্ষণাধীন ভারতীয় দল। এ বার তৃতীয় ম্যাচে আগামী ১৫ অক্টোবর যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে ভারতের সামনে বাংলাদেশ। সেই ম্যাচের আগে ভারতীয় দলের তরুণ ব্রিগেড আশাবাদী, এ বার বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের ম্যাচে প্রথম জয় পাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

বাংলাদেশ ম্যাচের প্রস্তুতির জন্য এই মুহূর্তে গুয়াহাটিতে রয়েছে ভারতীয় দল। সেখানেই এ দিন অনুশীলনের পরে ভারতীয় স্ট্রাইকার মনবীর সিংহ বললেন, ‘‘বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের ম্যাচ জেতার সুযোগ রয়েছে এ বার। আর সেই জয় পাওয়ার জন্য মুখিয়ে রয়েছি আমরা।’’ যোগ করেন, ‘‘খুব অল্প সময়ের জন্য কলকাতার ক্লাবে ফুটবল খেলেছি। তাই জানি, ফুটবল নিয়ে কলকাতার মানুষের আবেগ কতটা। তাই ১৫ অক্টোবর দর্শকঠাসা যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে মাঠে নেমে জিতে ফেরার জন্য মুখিয়ে রয়েছি আমরা।’’

দোহায় গিয়ে কাতারের বিরুদ্ধে নিখুঁত পাস বাড়ানোর জন্য প্রশংসিত হয়েছিলেন মনবীর। পঞ্জাবের এই ফুটবলারের প্রশংসা করেছিলেন সুনীল ছেত্রীও। যে প্রসঙ্গে মনবীর এ দিন বলেন, ‘‘সুনীল ভাইয়ের প্রশংসা ভাল খেলার প্রেরণা বাড়িয়েছে।’’

মনবীরের মতোই ভারতীয় দলের আর এক তরুণ তারকা নিখিল পূজারী। কাতারের বিরুদ্ধে গোলশূন্য থাকা ম্যাচে মাঝমাঠে তাঁকে খেলিয়েছিলেন ভারতীয় দলের ক্রোয়েশীয় কোচ ইগর। সেই ম্যাচের প্রসঙ্গে এ দিন নিখিল বলেন, ‘‘ওই রাতটা আমাদের সবার কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। ওই ম্যাচে আমাদের গোলকিপার গুরপ্রীত ভাই (গুরপ্রীত সিংহ সাঁধু) নিজেকে ছাপিয়ে গিয়েছিল। কোচ বলেছেন বাংলাদেশের বিরুদ্ধে জয় চাই। কারণ বাংলাদেশকে হারাতে না পারলে কাতারের বিরুদ্ধে ড্র অর্থহীন হয়ে যাবে।’’ দলের আর এক নবীন সদস্য বিনীত রাই বলছেন, ‘‘মরিয়া মনোভাব কাতারের বিরুদ্ধে এক পয়েন্ট এনে দিয়েছিল আমাদের। এ বার বাংলাদেশকে হারিয়ে তিন পয়েন্ট নিতে হবেই।’’