একে গ্র্যান্ড স্ল্যাম। তায় একই দিনে কোর্টে ফেডেরার থেকে সেরেনা। জকোভিচ থেকে নাদাল। অ্যান্ডি মারে। তিনি মারিয়া শারাপোভাও ছিলেন। কিন্তু সোমবারের টেনিস মহোৎসবে শেষমেশ ছিটকে গেলেন কিনা রুশ টেনিস সুন্দরীই। সার্কিটের সবচেয়ে গ্ল্যামারাস প্লেয়ার।
গতবারের চ্যাম্পিয়ন, শেষ তিন বার ফাইনালে উঠে দু’বার ট্রফি জয়ী মাশার এ দিন ২০১০-এর পর ফরাসি ওপেনে দ্রুততম প্রস্থান ঘটল। চতুর্থ রাউন্ডে ২৮ বছর বয়সি চেক সাফারোভার কাছে ৬-৭ (৩-৭), ৪-৬ হেরে। আগাগোড়া মামুলি টেনিস খেলে হেরেও শারাপোভার গলায় প্রত্যাবর্তনের আত্মবিশ্বাসী সুর— ‘‘এটা অফিসে একটা খারাপ দিন যাওয়ার মতোই! তবে উইম্বলডন যত দিনে এসে পড়বে তার মধ্যেই আমি আবার ঠিক তৈরি হয়ে যাব।’’
সেরেনা উইলিয়ামসের আবার অন্য পরিস্থিতি। বিশ্বের এক নম্বর তথা রোলাঁ গারোয় শীর্ষ বাছাই খুঁড়িয়ে চলেছেন আবার জিতেও চলেছেন! এই নিয়ে টানা তৃতীয় ম্যাচ তিনি প্রথম সেট হেরে নির্ণায়ক তৃতীয় সেটে বার করলেন। এ দিন স্বদেশীয় কৃষ্ণাঙ্গ স্লোয়ানি স্টিফেন্সকে হারানোর স্কোরলাইন যেমন ১-৬, ৭-৫, ৬-৩। ২০১৩ অস্ট্রেলীয় ওপেন কোয়ার্টার ফাইনালে যাঁর হাতে অপ্রত্যাশিত হার ইস্তক সেরেনার সম্পর্ক খারাপ বলে মি়ডিয়ায় তুমুল জল্পনা। এই সে দিনও স্টিফেন্স অভিযোগ করেছেন, ‘‘অত বড় প্লেয়ার। কিন্তু কী বলব, মেলবোর্নে সে দিন হেরে আমার সঙ্গে একটাও কথা বলেনি! অভিনন্দন-টন্দন জানানো তো কোন ছার!’’ কিন্তু এ দিন সেরেনা অবাক করে দিলেন এই বলে যে, ‘‘স্লোয়ানি ভীষণ মিষ্টি। আমি তো সেই প্রথম দিন থেকে বলে আসছি যে, মেয়েটার আমি প্রবল সমর্থক। আসলে সব সময় চাই আমার মতোই আরও একজন আফ্রিকান-আমেরিকান বিখ্যাত হয়ে উঠুক। কিন্তু সেটা কবে জানি না!’’

পুরুষদের কোয়ার্টার ফাইনালে সুইৎজারল্যান্ডের ডেভিস কাপ টিমমেটরা মুখোমুখি। ফেডেরার বনাম ওয়ারিঙ্কা। অন্য একটায় এ মরসুমে ক্লে কোর্টে এখনও অপরাজিত (১৪-৪) অ্যান্ডি মারে এবং প্রাক্তন ফরাসি ওপেন ফাইনালিস্ট ডেভিড ফেরার। ফেডেরার এ দিন অবশেষে এ মরসুমে ক্লে কোর্টে মঁফিস-ভূত তাড়াতে সমর্থ হলেন। ডেভিস কাপ ফাইনাল আর মন্টে কার্লোয় পরপর হারের পর রোলাঁ গারোয় গেল মঁফিসকে হারালেন ফেডেরার ৬-৩, ৪-৬, ৬-৪, ৬-১। গতকালের বৃষ্টিতে অসমাপ্ত ম্যাচের আজ শেষ দুই সেট অনায়াসে জিতে তাঁর এগারো নম্বর ফরাসি ওপেন কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে ফেডেরার বলেন, ‘‘টুর্নামেন্টে এখন কেবল এগিয়ে যাওয়ার সময় এসে পড়েছে। এই শেষ ল্যাপে নিজেকে তাজা বোধ করাটা জরুরি আর গুরুত্বপূর্ণ। যেটা আমি ভীষণ ভাবে অনু‌ভব করছি।’’ মারে আবার তৃতীয় সেটে একটা ব্রেক পয়েন্ট বাঁচিয়ে স্থানীয় তারকা জেরেমি চাদিঁ-কে ৬-৪, ৩-৬, ৬-৩, ৬-২ হারিয়ে হুঙ্কার দিয়েছেন, ‘‘ক্লে কোর্টের পারফেক্ট খেলা খেলছি। এ ভাবেই চলতি সপ্তাহটা চালিয়ে যেতে চাই।’’       

দিনের শেষে সেই মহা লড়াইয়ের লাইনআপ নির্দিষ্ট হয়ে গেল। জোকার বনাম রাফা কোয়ার্টার ফাইনাল। যখন চতুর্থ রাউন্ডে জকোভিচ ৬-১, ৬-২, ৬-৩ উড়িয়ে দিলেন গাস্কেকে। তবে নাদালকে একটা সেটে হোঁচট খেতে হল। জ্যাক সক-কে হারাতে। ৬-৩, ৬-১, ৫-৭, ৬-৩।