বিশ্বকাপ শুরুর আগে অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন তারকা ব্যাটসম্যান মার্ক ওয় তাঁর পছন্দের তিন ব্যাটসম্যানকে বেছে নিলেন।

অস্ট্রেলীয় প্রচারমাধ্যমে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ওয়ের তালিকায় প্রথমেই আছেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহালি। কেন কোহালি, বোঝাতে গিয়ে তাঁর মন্তব্য, ‘‘অবশ্যই কোহালির নামটা শুরুতেই রাখতে হবে। ও-ই এই মুহূর্তে বিশ্বের এক নম্বর ব্যাটসম্যান। এটা নিয়ে কোনও সংশয়ই থাকতে পারে না।’’ ক্রিকেট জীবনে ভারত অধিনায়ক আইসিসি-র সেরা হওয়ার যত পুরস্কার আছে, তার সবকটিই পেয়েছেন। তাঁকে ঘিরেই বিশ্বকাপে স্বপ্ন দেখছেন ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরা। ওয়ান ডে-তে তাঁর সেঞ্চুরি ৪১। গড়ও অসাধারণ। ৫৯.৫৭।

মার্ক ওয়ের দ্বিতীয় পছন্দ জস বাটলার। এই মুহূর্তে ইংল্যান্ডের এই ব্যাটসম্যান দুরন্ত ছন্দে আছেন। এ’মাসের শুরুতেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি করেছেন মাত্র ৫০ বলে। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে ম্যাচে খেলেছেন ৭৭ বলে ১৫০ রানের অবিশ্বাস্য ইনিংস। পছন্দের তিন ব্যাটসম্যান বাছার সময় ওয়ের তাই দু’নম্বরে ইংল্যান্ড দলের ওপেনারের কথাই মনে পড়েছে।

প্রাক্তন অস্ট্রেলীয় তারকা পছন্দের তৃতীয় জনকে বাছার সময় কিছুটা হলেও দ্বিধায় ছিলেন। বলেন, ‘‘তিন নম্বরে আমার মাথায় ঘুরেছে অস্ট্রেলিয়ার এখনকার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ ও প্রাক্তন সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের নাম। তবে বল বিকৃতি কাণ্ডে জড়ালেও ভোটটা শেষ পর্যন্ত আমি ওয়ার্নারকেই দিচ্ছি। সেটা ওর আগ্রাসনের জন্য। 

অতীতে মার্কের দাদা প্রাক্তন অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক স্টিভ ওয়-ও নানা সময় নিজের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন বিরাট কোহালিকে নিয়ে। স্টিভও বলেছিলেন, ‘‘কোহালির ব্যাটিংয়ের যা টেকনিক তা দিয়ে ও বিশ্বের যে কোনও উইকেটে অনায়াসে খেলে দেবে। আমার তো মনে হয় না যে ওর মতো ব্যাটিং টেকনিক বিশ্বের আর কারও 

আছে বলে।’’ স্টিভ অবশ্য কোহালির কাছাকাছি রেখেছিলেন এবি ডিভিলায়ার্স ও স্টিভ স্মিথকেও। ডিভিলিয়ার্স আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন। আর স্মিথ সম্পর্কে স্টিভ বলেছিলেন, ‘‘নির্বাসন কাটিয়ে ফিরে স্টিভকেই সম্ভবত আমরা বিশ্ব ক্রিকেটে রানের জন্য সব চেয়ে ক্ষুধার্ত ব্যাটসম্যান হিসেবে দেখব।’’