• কৌশিক দাশ
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এশিয়াডে বাংলার মুখ

সৌরভের প্রস্তুতিতে সঙ্গী এখন ‘ফেল্পস’

Sourav Ghosal
সৌরভ ঘোষাল।

গোল্ড কোস্ট কমনওয়েলথ গেমসের সিঙ্গলসের ব্যর্থতা মুছে ফেলতে তৈরি তিনি। তৈরি, আসন্ন এশিয়ান গেমসে দেশকে একটি সোনার পদক এনে দিতে। তিনি— সৌরভ ঘোষাল, ভারতের এক নম্বর স্কোয়াশ খেলোয়াড়।

চেন্নাইয়ে এশিয়ান গেমসের প্রস্তুতি শিবিরে যোগ দেওয়ার আগে ফোনে আনন্দবাজারকে কলকাতার ছেলে সৌরভ বলছিলেন, ‘‘কমনওয়েলথের সেই ম্যাচে এমন অনেক কিছু ঘটেছিল, যা নিয়ে আমি খুশি ছিলাম না। এখন আমি একটা ব্যাপার মাথায় রেখেই তৈরি হচ্ছি। আমাকে এমন খেলা খেলতে হবে, যে আর কোনও পারিপার্শ্বিক ব্যাপার যেন ম্যাচের ভাগ্যকে প্রভাবিত করতে না পারে। আমার হাতেই ম্যাচের  ভাগ্য থাকবে।’’

কিন্তু ওই হার কি আপনাকে এখনও যন্ত্রণা দেয়? আরও বেশি করে তাতিয়ে তোলে? সৌরভের জবাব আসে, ‘‘ওই হারটা আমার কাছে বড় ধাক্কা ছিল। কিন্তু ওটা অতীত। আমি এখন সামনে তাকাতে চাই। আশা করছি, জাকার্তা এশিয়ান গেমসে ভাল কিছুই করতে পারব।’’

আগের বার এশিয়ান গেমসে ব্যক্তিগত বিভাগে রুপো এবং দলগত বিভাগে সোনা জিতেছেন। আসন্ন এশিয়ান গেমসের প্রস্তুতিতে এ বার সৌরভের সঙ্গী হয়েছেন এক কিংবদন্তি— মাইকেল ফেল্পস! নিজেকে উদ্দীপিত করতে, মানসিক ভাবে কঠিন করে তুলতে নানা রকম আত্মজীবনী পড়ে থাকেন বিশ্বের ১২ নম্বর স্কোয়াশ খেলোয়াড়। বলছিলেন, ‘‘মানসিক ভাবে তৈরি হওয়াটাও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। আমি নানা আত্মজীবনী পড়ে থাকি প্রেরণা পেতে। এই মুহূর্তে মাইকেল ফেল্পসের আত্মজীবনী ‘নো লিমিটস’ পড়ছি।’’ এর পরেই যোগ করছেন, ‘‘তবে আমি এটা বিশ্বাস করি, সব কিছুই নির্ভর করবে আপনি কী ভাবে নিজেকে প্রয়োগ করছেন, তার ওপর। নিজের ক্ষমতাটা বুঝতে হবে। সেটাকে ঠিকমতো প্রয়োগ করতে হবে। এক একজন এক এক রকম ভাবে কাজটা করে থাকে। আমরা আশা করব, জাকার্তায় ওই দু’টো সপ্তাহে আমাদের দল সেই কাজটা করতে পারবে।’’

ভারতীয় স্কোয়াশ দল সেই ফেব্রুয়ারি মাস থেকে কোচহীন। দলের মিশরীয় কোচ দেশে চলে গিয়েছেন। কোচ ছাড়া কি প্রস্তুতিতে সমস্যা হয়েছে? সৌরভ বলছেন, ‘‘দেখুন, আমার, দীপিকা (পাল্লিকল) জ্যোৎস্নার (চিনাপ্পা) কাছে এটা বড় সমস্যা নয়। সমস্যা জুনিয়রদের জন্য। তা ছাড়া কমনওয়েলথ বা এই ধরনের প্রতিযোগিতায় প্রধান কোচ থাকাটা সব সময় একটা বোনাস। যিনি ম্যাচের সময় পরামর্শ দেবেন, বলে দেবেন এই ভাবে খেলো।’’

দলের প্রধান কোচ না থাকলেও এশিয়ান গেমসের জন্য নিজের প্রস্তুতি নিয়ে খুশি সৌরভ। বলছিলেন, ‘‘দু’মাসের এই সময়টা আমি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইংল্যান্ডে অনুশীলন করে এলাম। মনে হয় না, প্রস্তুতিতে কোনও ঘাটতি আছে বলে। আমরা প্রচুর প্রতিযোগিতায় খেলি, যেখানে কোনও কোচ থাকে না। তাই ব্যক্তিগত ভাবে আমি যে প্রস্তুতিটা নিয়েছি, তাতেই আমি খুশি। ’’

এই মাসের ১৮ তারিখ থেকে শুরু এশিয়ান গেমসে নিজের জন্য কী লক্ষ্য স্থির করেছেন? আত্মবিশ্বাসী গলায় বাংলার সৌরভ বলে গেলেন, ‘‘যখনই কোনও প্রতিযোগিতায় খেলতে যাই, চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্যই যাই। সোনা জিততেই নামি। জাকার্তায়ও সেই লক্ষ্যই থাকবে।’’ 

 

খেলার দুনিয়া নিয়ে বাংলায় খবর পড়তে চোখ রাখুন আমাদের খেলা বিভাগে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন