• নিজস্ব সংবাদদাতা

শেষ চারে তেরঙ্গানুর সঙ্গে লড়াই সালভাদের

Mohunbagan
ফাইল চিত্র

Advertisement

কিবু ভিকুনার দলের শেষ চারের প্রতিদ্বন্দ্বী ঠিক হয়ে গেল। 

শেখ জামাল আন্তর্জাতিক গোল্ড কাপের ফাইনালে উঠতে হলে মোহনবাগানকে টপকাতে হবে মালয়েশিয়ার ক্লাব তেরেঙ্গানু এফ সির বাধা। অন্য সেমিফাইনালে গোকুলম এফসি খেলবে চট্টগ্রাম আবাহনীর বিরুদ্ধে।

চট্টগ্রাম আবাহনীকে শুক্রবার হারিয়ে শেষ চারে ওঠার পরে কাদের বিরুদ্ধে শেষ চারে খেলতে হবে, তা নিয়ে চাপা উৎকণ্ঠায় ছিল মোহনবাগান শিবির।  জোসেবা বেইতিয়া, সুহের ভিপিদের শনিবার বিশ্রাম দিয়েছিলেন সবুজ-মেরুনের স্পেনীয় কোচ। সবাইকে নিয়ে তিনি বেড়াতে গিয়েছিলেন স্থানীয় একটি সমুদ্র সৈকতে। সেখানে প্রায় ঘণ্টা খানেক ছিল পুরো দল। কিন্তু তাঁর মন পড়েছিল স্টেডিয়ামে। সমুদ্র সৈকত থেকে ফিরে হোটেলে কিছুক্ষণ বিশ্রাম নেওয়ার পরে সহকারী কোচ রঞ্জন চৌধুরীকে নিয়ে তিনি চলে যান অন্য গ্রুপের দুটি খেলা দেখতে এবং সেমিফাইনালের প্রতিপক্ষের শক্তি যাচাই করে নিতে। সেখানে পরপর দুটি ম্যাচ ছিল। তেরেঙ্গানু এফসি-র সঙ্গে খেলা ছিল বসুন্ধরা কিংসের। তেরেঙ্গানু জেতে ৪-২ গোলে। অন্য ম্যাচে গোকুলম হারিয়ে দেয় আই লিগ চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সিটি এফসি-কে।   জেতে ২-০ গোলে। ফলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে মোহনবাগানের মুখোমুখি হয় মালয়েশিয়ার ক্লাব।

কিবুর সঙ্গে স্টে়ডিয়াম থেকে ফিরে ঢাকা থেকে রঞ্জন ফোনে বললেন, ‘‘আমার তো  মনে হল গোকুলমের চেয়ে তেরেঙ্গানু বেশি শক্তিশালী। ভাল দৌড়োয়। কিন্তু কিছু করার নেই। যে সামনে পড়বে, তার সঙ্গেই খেলতে হবে।’’ তেরেঙ্গানুর খেলার ভিডিয়ো রয়েছে কিবুর কাছে। তা দেখিয়েই আজ, রবিবার কালীপুজোর দিন চট্টগ্রামের হোটেলে বসে রণনীতি ঠিক করতে চান কিবু। 

এ বছর এখনও কোনও ট্রফি আসেনি সবুজ-মেরুন তাঁবুতে। ডুরান্ড কাপে এবং কলকাতা লিগে রানার্স হয়েছেন সালভা চামোরোরা। ফলে বাংলাদেশের টুর্নামেন্ট জিততে পারলে আই লিগের আগে বড় প্রাপ্তি হবে কিবুর। তিনি এ দিনও বলে দেন, ‘‘আই লিগের প্রস্তুতির জন্য এই প্রতিযোগিতায় আমরা খেলছি। চেষ্টা করতে হবে ভাল করার।’’ 

যদিও আগামী সোমবার সেমিফাইনাল ম্যাচ খেলতে নামার আগে অস্বস্তি বেড়েছে মোহনবাগান শিবিরের। দলের দুই ফুটবলার গুরজিন্দর সিংহ ও নংদাম্বা নওরেম চোটের কারণে চলতি প্রতিযোগিতা থেকেই ছিটকে গিয়েছেন।

Advertisement

আরও পড়ুন
বাছাই খবর
আরও পড়ুন