• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘ধোনির পছন্দ ছিল না ডিআরএস প্রযুক্তি, তাঁর উল্টো মেরুতে বিরাট’

Mahendra Singh Dhoni
ধোনির ডিআরএস নেওয়া আজও মিস করে টিম ইন্ডিয়া। ছবি: রয়টার্স

তাঁর রিভিউ নেওয়ার ক্ষমতা অবাক করে দেয় ক্রিকেটপ্রেমীদের। ফ্যানেরা ভালবেসে ডিআরএস-এর নাম দিয়েছিলেন ‘ধোনি রিভিউ সিস্টেম’। সেই মহেন্দ্র সিংহ ধোনিরই নাকি পছন্দ ছিল না এই রিভিউ প্রযুক্তি!

সম্প্রতি একটি সোশ্যাল মিডিয়ার অনুষ্ঠানে এমনই দাবি করেছেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার আকাশ চোপড়া। ২০০৮ সালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ভারত প্রথম ডিআরএস ব্যবহার করে। যদিও সেই ম্যাচে অধিনায়ক ছিলেন অনিল কুম্বলে। আকাশ চোপড়া বলেন, “সেই ম্যাচে আমরা নতুন এই প্রযুক্তির ব্যবহার করতে ব্যর্থ হয়েছিলাম। নতুন প্রযুক্তি, তাই অসুবিধা হয়েছিল। তার পরেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় আমাদের যখন পছন্দ নয়, তখন এটা ব্যবহার আমরা করব না।”

চোপড়া আরও বলেন, “ধোনিরও পছন্দ ছিল না এই প্রযুক্তি। ওঁর মতে প্রযুক্তিতে ভুল রয়েছে। আজও ডিআরএস পুরোপুরি সঠিক তথ্য দেয় না। খুব সুক্ষ্ম বিষয় হলে ডিআরএস আজও মাঠে থাকা আম্পায়ারের উপরেই ভরসা রাখে।” ডিআরএস নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছিলেন সচিন তেন্ডুলকরও। যদিও পরবর্তী সময় ক্রিকেটবিশ্ব জুড়েই শুরু হয়ে যায় ডিআরএস প্রযুক্তি। করোনা পরবর্তী সময় ডিআরএস-এর সংখ্যাও বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। চোপড়া বলেন, “এই প্রযুক্তির ভক্ত বিরাট কোহালি। সব ধরনের ক্রিকেটেই এই প্রযুক্তি চান কিং কোহালি।”

আরও পড়ুন: ধোনির নেতৃত্বে সৌরভ আর দ্রাবিড়ের গুণ রয়েছে, দাবি রাজপুতের

গত বছর আজকের দিনেই শেষ ব্যাট হাতে দেখা গিয়েছিল ধোনিকে। বিশ্বকাপের সেমি ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরে যায় ভারত। কবে ফের তাঁকে দেখা যাবে জানে না কেউই। আর আট দিন পরেই ৩৯ ছোঁবেন বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক। ধোনি মাঠে থাকলে ডিআরএসের সিদ্ধান্তে আজও তাঁর ওপরেই ভরসা করেন কোহালি। ফ্যানেদের মতো ভারত অধিনায়কও নিশ্চয়ই মিস করছেন ‘ধোনি রিভিউ সিস্টেম’।

আরও পড়ুন: ‘পাকিস্তান শুধরোবে না’, ক্রিকেট বোর্ডের টুইটার হ্যান্ডলে দেশের নামের বানান ভুল!

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন