পাকিস্তানের বিরুদ্ধে পাঁচ বোলার নিয়ে জিতলেও ভারতের বিরুদ্ধে উইকেট পরীক্ষা করেই দল ঘোষণা করবেন শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক দীনেশ চণ্ডীমল। বুধবারের সাংবাদিক সম্মেলনে ঠিক এ রকমই মনোভাব দেখা গেল শ্রীলঙ্কার অধিনায়কের।

মঙ্গলবার রাত থেকে বৃষ্টি হওয়ায় বুধবার দু’দলকেই হোটেলবন্দি থাকতে হয়েছে। তবে তার আগের দিন অনুশীলনে উইকেট পরিদর্শন করে চণ্ডীমলের মনে হয়েছে, এই পিচে পেস বোলারদের সুবিধে পাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। সুরঙ্গা লাকমাল, লাহিরু গামাগে ও বিশ্ব ফের্নান্দোদের সে ক্ষেত্রে বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে। তারই সঙ্গে ভারতীয় ব্যাটিং লাইনআপ নিয়েও বেশ চিন্তিত তিনি। ২০টা উইকেট ফেলতে ঠিক কী স্ট্র্যাটেজি নেবেন, তা পিচ দেখেই ঠিক করবেন তিনি। শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক বলেন, ‘‘মঙ্গলবার দেখে মনে হয়েছে উইকেটটা বেশ শক্ত এবং যথেষ্ট পরিমাণে ঘাস রয়েছে। পেস বোলারদের সুবিধা পাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। তবে ম্যাচের দিন উইকেট দেখেই দল গঠনের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব।’’ 

পেস সহায়ক উইকেটে খেলা হলে অবশ্য শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যানদের কঠিন চ্যালেঞ্জের সামনে পড়তে হতে পারে। ভুবনেশ্বর কুমার, মহম্মদ শামি, উমেশ যাদব ও ইশান্ত শর্মার মতো শক্তিশালী পেস বোলারকে সামলানো সহজ কাজ নয়। তবে এ ব্যাপারেও বেশ আত্মবিশ্বাসী শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক। দলের প্রথম চারজন ব্যাটসম্যানকেই ইনিংস গড়ার দায়িত্ব দিচ্ছেন চণ্ডীমল। তিনি বলছেন, ‘‘দলের ব্যাটসম্যানদের ঘাসের উইকেটে খেলতে সমস্যা হবে না। এ ধরনের উইকেটে ব্যাট করতে আমরা অভ্যস্ত এবং সাবলীল। তবে দলের প্রথম চারজন ব্যাটসম্যানকে একটু দায়িত্ব নিয়ে ইনিংসের শুরুটা ভাল করতে হবে।’’

ব্যাটিং অর্ডারে অবশ্য কিছু বদল আনার কথা ভেবেছেন চণ্ডীমল। দলের অভিজ্ঞ খেলোয়াড় অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউজকে পাঁচ নম্বরের বদলে চার নম্বরে ব্যাট করাবে শ্রীলঙ্কা। তাঁকে আগে ব্যাট করিয়ে তাঁর অভিজ্ঞতাকে সর্বাধিক কাজে লাগাতে চাইছেন চণ্ডীমলরা। অ্যা়ঞ্জেলোর ব্যপারে জিজ্ঞেস করা হলে চণ্ডীমল বলেন, ‘‘অ্যাঞ্জেলোর ভাল খেলার সঙ্গে দলের আত্মবিশ্বাসও অনেকটা বেড়ে যায়। তাই চার নম্বরে ব্যাট করিয়ে ওঁর অভিজ্ঞতার সদ্ব্যবহার করার কথাই ভাবছি।’’

টেস্টের এক নম্বর দলের বিরুদ্ধে খেলতে নামছে শ্রীলঙ্কা। ঠিক তিন মাস আগে অগস্টে ঘরের মাঠেই ভারতের বিরুদ্ধে সব ধরনের ফর্ম্যাট ০-৯ হেরেছিলেন চণ্ডীমলরা। ভারতের বিরুদ্ধে পরাজয়কে একটি ইতিবাচক শিক্ষা হিসেবেই দেখছেন তিনি। তাই ঘরের মাঠে হারের বদলা নিয়েছেন পাকিস্তানকে টেস্টে ২-০ হারিয়ে। অবশ্য তিনি ভারতের পারফরম্যান্সের অনেক প্রশংসা করেছেন। চণ্ডীমলের বক্তব্য, ‘‘শেষ দু’বছর ওরা অসাধারণ ক্রিকেট খেলছে। তবে ঘরের মাঠে ওদের বিরুদ্ধে হারের পর নিজেদের অনেক বদলেছি। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে আমরা তারই ফল পেয়েছি।’’