যৌন হয়রানির অভিযোগ নিয়ে ফের চাপে পড়লেন ভারতীয় বোর্ডের সিইও রাহুল জোহরি। এর আগে এই অভিযোগ খতিয়ে দেখার পরে স্বাধীন তদন্ত কমিটি রায় দিয়েছিল জোহরির পক্ষে। কিন্তু তা মানছেন না মহিলাদের অধিকার নিয়ে আন্দোলনে সক্রীয় কর্মী পরিচয় দেওয়া রেশমি নায়ার। সুপ্রিম কোর্টে জোহরির বিরুদ্ধে পিটিশন দাখিল করেছেন তিনি। যৌন হেনস্থার অভিযোগ ওঠা জোহরির বোর্ডের সিইও পদে কাজ চালিয়ে যাওয়াকে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন তিনি। তাঁর বক্তব্য, বিসিসিআই অম্বাডসমান ডি কে জৈন-এর এ ব্যাপারে তদন্ত করে দেখা উচিত। 

পিটিশনে বলা হয়েছে, ‘‘জোহরির অতীত বেশ বর্ণময়। যে সংস্থাতেই তিনি কাজ করেছেন যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। কিন্তু হুমকি, চাপ দিয়ে হোক বা লোভ দেখিয়ে, সেই অভিযোগ থেকে  তিনি পার পেয়ে গিয়েছেন।’’ তাই বিসিসিআই অম্বাডসমান কেন এই বিষয়ে তদন্ত করে দেখবেন না, প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। পিটিশনে তিনি তিন মহিলার কথাও উল্লেখ করেছেন। যাঁরা জোহরির বিরুদ্ধে এই বিষয়ে প্রথম মুখ খুলেছিলেন। তিন জনের মধ্যে এক মহিলা রাজি হননি সামনে আসতে। কারণ অজানা। তাই শুধু দু’জন মহিলা সামনে আসেন জোহরির বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে। তা ছাড়া, তদন্তকারী কমিটি সব খতিয়ে দেখার পরে রায় দেওয়ার সময় কমিটির সদস্যদের মধ্যে মতভেদের কথাও বলা হয়েছে পিটিশনে। কমিটির তিন সদস্য বিচারপতি (অবসরপ্রাপ্ত) রাকেশ শর্মা, বরখা সিংহ জোহরিকে ক্লিনচিট দিলেও কমিটির আর এক সদস্য বীণা গৌড়া তাঁর বিরুদ্ধে ছিলেন।