• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সুস্থ লোকেশ ব্যাটিং ফর্ম দেখাচ্ছেন নির্বাচক প্রধানকে

ইডেন পিচ তার এ মরসুমের রঞ্জি চরিত্র অনুযায়ী ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে ব্যাটিং-বন্ধু হয়ে উঠল। আগের দিন প্রথম সেশনে বিদর্ভ মাত্র ৫৯ রানে অল আউট হলেও সোমবার দ্বিতীয় ইনিংসে বড় স্কোরের সম্ভাবনা জাগিয়েছে। মহারাষ্ট্রের (৩৩২) থেকে ২৭৩ রানে পিছিয়ে পড়ার পরে দিনের শেষে বিদর্ভ ১৪১-১। সঞ্জয় রামস্বামী ৬৭ করে আউট হলেও ক্রিজে আছেন ফইজ ফজল (৫৩ ব্যাটিং)। বোলিংয়ে নজর কা়ড়েন বিদর্ভের ললিত যাদব (৫-৮১)। তবে তাতেও মহারাষ্ট্রের অঙ্কিত বাওনের সেঞ্চুরি (১১১) আটকানো যায়নি।

বিজয়নগরমে আবার কর্নাটকের ওপেনার কেএল রাহুল ভারতীয় দলে প্রত্যাবর্তনের পথ সুগম করে তুলছেন। চোটে জাতীয় দল থেকে ছিটকে পড়ার পরে সুস্থ হয়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ফিরেই নজর কাড়লেন রাহুল। রাজস্থানের বিরুদ্ধে প্রথম ইনিংসে ৭৬ করার পরে এ দিন দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি অপরাজিত ৩২ তোলার পথেই চারটে বাউন্ডারি ও একটা ছক্কা মারেন। রাহুলের ব্যাটিং ফর্ম এই ম্যাচে স্টেডিয়ামে বসে দেখছেন স্বয়ং জাতীয় নির্বাচকদের চেয়ারম্যান এমএসকে প্রসাদ। ম্যাচে রাজস্থানকে (১৪৮) প্রথম ইনিংসে ২২৬ রানে পিছনে ফেলা সত্ত্বেও ফলো অন না করিয়ে কর্নাটক (৩৭৪) দ্বিতীয় ইনিংসে নেমে ৭৮-০।

গত বারের চ্যাম্পিয়ন মুম্বই (২৩৩) উত্তরপ্রদেশের (২২৫) বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ আট রানের লিড নেওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসে ৫১-২। মুম্বইকে প্রথম ইনিংসে এগিয়ে দেওয়ার পিছনে অভিষেক নায়ার (২), বিশাল দাভোলকর (২) ও তুষার দেশপাণ্ডের (৩) মিলিত বোলিং পারফরম্যান্স। গত বারের রানার্স সৌরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ইশাঙ্ক জাগ্গি (১৬৫ ন.আ.) এবং ঈশান কিষাণের (১৩৬) জোড়া সেঞ্চুরির সৌজন্যে প্রথম ইনিংসে ঝাড়খণ্ড ৪৫৮-৭। নাগোথানেতে গুজরাত ভাল জায়গায় মধ্যপ্রদেশের বিরুদ্ধে। পার্থিব পটেলদের ৩০২ রানের জবাবে মধ্যপ্রদেশ প্রথম ইনিংসে ১৬২-৫। আর অসমের ৩০১-এর জবাবে ওড়িশা ১৫০-২ তুলে মোটামুটি স্বস্তিতে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন