• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

হ্যাটট্রিক হল না অশ্বিনের, দাপট মুলানিরও

Ravichandran Ashwin missed Hat trick in Ranji
রবিচন্দ্রন অশ্বিন। এপি।

Advertisement

রঞ্জি ট্রফিতে তামিলনাড়ুর বিরুদ্ধে তিন উইকেট নিয়ে পাল্টা লড়াই ছুড়ে দিলেন কর্নাটকের অফস্পিনার কৃষ্ণাপ্পা গৌতম। মঙ্গলবার ম্যাচের দ্বিতীয় দিন ৬১ রানে তিন উইকেট পেলেন তিনি। ফলে দিন্দিগুলে অনুষ্ঠিত রঞ্জি ট্রফির গ্রুপ ‘বি’-র এই ম্যাচে দ্বিতীয় দিনের শেষে ১৭১ রানে এগিয়ে কর্নাটক।

প্রথম ইনিংসে করা কর্নাটকের ৩৩৬ রানের জবাবে দ্বিতীয় দিনের শেষে তামিলনাড়ুর রান চার উইকেটে ১৬৫। হাতে রয়েছে ছয় উইকেট। ক্রিজে রয়েছেন দলের অভিজ্ঞ ক্রিকেটার দীনেশ কার্তিক (২৩) ও উইকেটকিপার এন জগদীশন (৬)।

বল হাতে এ দিন গৌতম ফেরান তামিলনাড়ুর তিন প্রথম সারির ব্যাটসম্যান অভিনব মুকুন্দ (৪৭), মুরলী বিজয় (৩২) ও তামিলনাড়ুর অধিনায়ক বিজয় শঙ্করকে (১২)।

প্রথম দিন ছয় উইকেটের বিনিময়ে করা ২৫৯ রান নিয়ে খেলতে নেমে এ দিন কর্নাটকের ইনিংস শেষ হয় ৩৩৬ রানে। তবে গৌতমের আগে কর্নাটকের শেষের দিকের ব্যাটসম্যানদের বিরুদ্ধে আগ্রাসী মেজাজে ঝাঁপিয়ে পড়েন আর অশ্বিন। ৭৯ রান দিয়ে চার উইকেট পান তিনি। হ্যাটট্রিকও পেয়ে যেতে পারতেন। ১০৯তম ওভারে পর পর দুই বলে কর্নাটকের ডেভিড ম্যাথিয়াস (২৬) ও রণিত মোরেকে (০) প্যাভিলিয়নে ফিরিয়ে হ্যাটট্রিকের মুখে চলে এসেছিলেন তিনি। কিন্তু ক্রিজে এসে কর্নাটকের ভি কৌশিক আটকে দেন অশ্বিনের হ্যাটট্রিক। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে বল হাতে বিপক্ষের তিন মূল্যবান উইকেট তুলে নেওয়ার আগে ব্যাটেও কর্নাটকের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ ৫১ রান করে যান কৃষ্ণাপ্পা গৌতম।

গ্রুপ ‘বি’-র অন্য ম্যাচে বরোদার বিরুদ্ধে সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছে মুম্বই। প্রথম ইনিংসে মুম্বইয়ের ইনিংস শেষ হয়েছিল ৪৩১ রানে। জবাবে দ্বিতীয় দিনের শেষে বরোদার রান ৩০১-৯। মুম্বই এগিয়ে ১৩০ রানে। বরোদার হাতে রয়েছে এক উইকেট। ব্যাটে ও বলে দুরন্ত পারকফরম্যান্স করলেন মুম্বইয়ের তরুণ অলরাউন্ডার শামস মুলানি। ব্যাট হাতে ৮৯ রান করার পরে বল করতে নেমে ৯৯ রানে পাঁচ উইকেট নেন তিনি। প্রথম দিন ৫৬ রানে অপরাজিত ছিলেন মুলানি। এ দিন সঙ্গী শশাঙ্ক আত্তারদে-কে নিয়ে খেলতে নেমে ৮৯ রান করেন মুলানি। মুম্বই ব্যাটসম্যানদের হয়ে বড় রান পেয়েছেন পৃথ্বী শ (৬৬), অজিঙ্ক রাহানে (৭৯) ও শার্দূল ঠাকুর (৬৪)।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে মুম্বইয়ের বোলারদের বিরুদ্ধে শুরুতেই ওপেনার আদিত্য ওয়াঘমোরের (২) উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়েছিল বরোদা। কিন্তু সেই ধাক্কা সামলে দেন অপর ওপেনার কেদার দেবধর। তিনি ১৫৪ রান। অর্ধশতরানের দুই রান আগে থেমে যান বিষ্ণু সোলাঙ্কি (৪৮)। কিন্তু বাকিরা মুম্বই বোলারদের সে ভাবে মোকাবিলা করতে পারেননি। মুলানি ছাড়া মুম্বইয়ের হয়ে উইকেট পেয়েছেন শার্দূল ঠাকুর (১-৭৭) ও তুষার দেশপাণ্ডে (১-৪৮)। ৪৮ রানে দুই উইকেট পান শশাঙ্ক আত্তারদে। গ্রুপ ‘এ’-র ম্যাচে প্রথম ইনিংসে কেরলের করা বিশাল রানের বিরুদ্ধে দুই উইকেট হারিয়ে ধুঁকছে দিল্লি। শুরুতে ব্যাট করে ৯ উইকেটে ৫২৫ রান তুলে ইনিংসের সমাপ্তি ঘোষণা করে দেয় কেরল। জবাবে ২৩ রানে ২ উইকেট হারিয়ে ধুঁকছে দিল্লি। 

প্রথম দিনের করা ২৭৬-৩ নিয়ে খেলতে নেমে মঙ্গলবার শুরু থেকেই বড় ইনিংস গড়ার দিকে এগোয় কেরল। অধিনায়ক সচিন বেবি করেন ১৫৫ রান। শেষের দিকে নেমে সলমন নিজ়ার করেন ৭৭। কেরলের হয়ে বড় রান পেয়েছেন ওপেনার পুনম রাহুল (৯৭) ও রবিন উথাপ্পা (১০২)। 

জবাবে দিল্লির হয়ে ওপেন করতে নেমে দ্রুত ফিরে যান উইকেটকিপার অনুজ রাওয়াত (১৫) ও কুণাল চান্দেলা (১)। ক্রিজে রয়েছেন দিল্লি অধিনায়ক ধ্রুব শোরে (৬) ও নীতিশ রানা (০)।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন