• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

জিতলেই খেতাব রিয়ালের, নতুন লক্ষ্য সুয়ারেসদের

RMA and Barca
বাঁ দিকে, খেতাব জয়ের সামনে দাঁড়িয়ে র‌্যামোসরা। ডান দিকে, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নজর মেসিদের।—ছবি এপি ও এএফপি।

সম্ভাব্য খেতাব জয়ের সামনে দাঁড়িয়ে রিয়াল মাদ্রিদ শিবির চনমনে। আর বার্সেলোনা শিবির মনেই করছে, লিগ জয়ের আশা শেষই হয়ে গিয়েছে।

আজ, বৃহস্পতিবার লা লিগায় ভারতীয় সময় রাত ১২.৩০ মিনিটে রিয়াল মাদ্রিদ খেলবে ভিয়ারিয়ালের বিরুদ্ধে। একই সময়ে বার্সেলোনার প্রতিপক্ষ ওসাসুনা। সহজ হিসাব হল, ভিয়ারিয়ালকে হারালেই এ বারের লা লিগা ট্রফি নিশ্চিত হয়ে যাবে সের্খিয়ো রামোসদের।

রিয়াল কোচ জ়িনেদিন জ়িদানও জানিয়ে দিয়েছেন, জয়ের ধারাবাহিকতা বজায় রাখাই তাঁর প্রধান লক্ষ্য। তিনি বলেছেন, “ভিয়ারিয়াল আরও একটা প্রতিপক্ষ। এবং আগের ম্যাচগুলি জেতার যে মানসিকতা নিয়ে রিয়াল মাদ্রিদ খেলতে নামত, সেটাই বজায় থাকবে। তবে ভিয়ারিয়াল দলটা অতীতে বেশ কয়েকবার বেগ দিয়েছে। সেই জায়গা থেকে দেখলে কাল কঠিন একটা ম্যাচই অপেক্ষা করছে আমাদের জন্য।”

আর চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনা শিবিরের অন্দরে লিগ খোয়ানোর হাহুতাশ। লুইস সুয়ারেস যেমন জানিয়েই দিয়েছেন, লা লিগার স্বপ্ন শেষ। তাই হতাশা ঝেড়ে ফেলে মনঃসংযোগ করতে হবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের জন্য। সুয়ারেস বলেছেন, “সততার সঙ্গে বাস্তবকে মেনে নেওয়াই ভাল এবং তা হল  লিগ আমাদের হাত থেকে বেরিয়ে গিয়েছে। তা জেতা অসম্ভব।” তিনি আরও যোগ করেছেন, “সেভিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচটা গোলশূন্য ড্র হওয়ার পরেই কিন্তু আমাদের কাছে কাজটা কঠিন হয়ে গিয়েছিল। তবু তার পরেও কিছু সম্ভাবনা ছিল ঘুরে দাঁড়ানোর। কিন্তু সেল্টা ভিগোর সঙ্গে ২-২ গোলে ম্যাচ শেষ হওয়ার পরেই বুঝে গিয়েছিলাম, আমাদের লিগ জয় কার্যত দুঃসাধ্য হয়ে গিয়েছে। আমরা সেই ম্যাচেই ঘুরে দাঁড়ানোর সব চেয়ে বড় সুযোগটা হাতছাড়া করে ফেলেছিলাম। ফলে রিয়াল মাদ্রিদকে ধরা একপ্রকার অসম্ভব হয়ে গেল।” উরুগুয়ে তারকার সংযোজন, “আমি মনে করি, এখন আমাদের মনঃসংযোগ করতে হবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার জন্য।”

নতুন ভাবে লা লিগা শুরু হওয়ার পরে টানা ন’ম্যাচেই জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ। জিদান বলেছেন, “গত বছরের শেষে দলটা যেখানে ছিল, তার পরে ধারাবাহিক একটা উন্নতি হয়েছে। এর সমস্ত কৃতিত্ব ফুটবলারদের। ওদের প্রত্যেক দিনের নিরলস পরিশ্রম দলকে টানা জয় এনে দিয়েছে। তবে আমরা এক একটা দিন ধরে এগোচ্ছি। তাই জানি না, কাল কী হতে পারে! তবে একটা বিষয়ে সকলকে নিশ্চিত করে দিতে পারি, কাল জেতার জন্য সকলে নিজেদের উজাড় করে দেবে।”

করোনা পরবর্তী সময়ে লা লিগা শুরু হওয়ার পরে ছন্দে রয়েছেন ৩৩ বছরের সুয়ারেস। তবে ম্যানেজার কিকে সেতিয়েনের রণকৌশল নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে বার্সেলোনার অন্দরমহলে। সুয়ারেস বলেছেন, “বাজে ফল হলে আত্মসমালোচনা করতেই হবে। আমরা মুখ ফিরিয়ে নিতে পারি না। কোনও বাহানা দেখিয়ে লাভ নেই।  ক্লাবের সম্মান রক্ষা করতেই লা লিগার শেষ দুটি ম্যাচে জিততেই হবে। এবং চ্যাম্পিয়ন্স লিগে যাতে সেরা ফুটবল খেলতে পারি তা নিশ্চিত করতে হবে সমস্ত ফুটবলারকে। সেটাই ক্লাবের সম্মান বাঁচাতে পারে।”

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন