ভারতের বিশ্বকাপ দলে কেন ঋষভ পন্থকে না নিয়ে দীনেশ কার্তিককে রাখা হল, তা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে দল ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই। সুনীল গাওস্কর থেকে সঞ্জয় মঞ্জরেকর— সবাই অবাক হয়েছেন নির্বাচকদের এই সিদ্ধান্তে। 

কেন তরুণ প্রতিভা পন্থকে বাদ দিয়ে কার্তিককে দলে রাখা হল? সোমবার মুম্বইয়ে সাংবাদিক বৈঠকে এসে এই প্রশ্নের জবাবে জাতীয় নির্বাচক প্রধান এমএসকে প্রসাদ বলেন, ‘‘আমরা এই দু’জনের নাম নিয়ে অনেক আলোচনা করেছি। আমরা মনে করি, কার্তিক বা পন্থ— তখনই প্রথমে এগারোয় সুযোগ পাবে যদি মাহি (মহেন্দ্র সিংহ ধোনি) চোট পায়। সে ক্ষেত্রে সেমিফাইনালের মতো ম্যাচে কিপিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়ায়।’’

প্রসাদ এও বলেন, ‘‘ধোনি না থাকলে চাপটা কে বেশি ভাল সামলাতে পারবে, সেটা নিয়েও আমরা আলোচনা করেছি। যে কারণের জন্যও কার্তিককে দলে রাখা হয়েছে।’’ 

আরও পড়ুন: রায়ুডু-পন্থ নয়, বিশ্বকাপের বিমানে উঠছেন কার্তিক-শঙ্কর-রাহুল

দিল্লির তরুণ উইকেটকিপার সম্পর্কে নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যান এও বলেন, ‘‘পন্থ প্রায় সুযোগ পেয়ে গিয়েছিল। ওর দুর্ভাগ্য, অল্পের জন্য দলে জায়গা পেল না। তবে পন্থের প্রতিভা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই।’’ প্রসাদের এই ব্যাখ্যার পরে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, পন্থ যদি কিপার হিসেবে কার্তিকের চেয়ে পিছিয়েই থাকেন, তা হলে টেস্টে কেন তাঁকে দিয়ে কিপিং করানো হচ্ছে? সেখানে কেন কার্তিককে সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না? পন্থ যদি টেস্টে দলের এক নম্বর কিপার হন, তা হলে কেন তিনি ওয়ান ডে-তে সুযোগ পাবেন না? প্রসাদ এর কোনও ব্যাখ্যা দেননি। 

নির্বাচক প্রধান অবশ্য মনে করেন, বিশ্বকাপের জন্য সেরা দলটাই বেছে নেওয়া হয়েছে। তৃতীয় স্পিনার হিসেবে রবীন্দ্র জাডেজার দলে থাকা নিয়ে প্রসাদ বলেছেন, ‘‘গত কয়েক বছরে আমাদের দুই রিস্ট স্পিনার অনেক উইকেট পেয়েছে। আমাদের মনে হয়, বিশ্বকাপের সময় ইংল্যান্ডে উইকেটগুলো একটু শুকনো থাকবে। সেখানে জাডেজা কাজে লাগতে পারে।’’ দলের মিডল অর্ডার ব্যাটিং নিয়ে প্রসাদ বলেছেন, ‘‘চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পরে আমরা মিডল অর্ডারে কয়েক জনকে দেখে নিতে চেয়েছিলাম। অম্বাতি রায়ডুকে বেশ কয়েকটা সুযোগ দিয়েছিলাম। কিন্তু বিজয় শঙ্কর তিন ভাবে কাজে আসতে পারে দলের। মিডল অর্ডারে ব্যাটটা করতে পারে। আকাশ মেঘলা থাকলে ওর বোলিংও কাজে দেবে। এ ছাড়া বিজয় শঙ্কর দুর্দান্ত ফিল্ডারও।’’ শঙ্করকে যে চার নম্বরের জন্য ভাবা হচ্ছে, তাও জানিয়েছেন প্রসাদ।

রাতের দিকে ভারতীয় বোর্ড এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘‘খলিল আহমেদ নবদীপ সাইনি, আবেশ খান এবং দীপক চাহার  বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের সঙ্গে নেট বোলার হিসেবে ইংল্যান্ডে যাবেন।’’ এই মুহূর্তে চার বোলারই খেলছেন আইপিএলে। দলে তিন পেসার ছাড়াও অলরাউন্ডার হিসেবে রয়েছেন হার্দিক পাণ্ড্য। জাডেজার সঙ্গে দুই রিস্ট স্পিনার— কুলদীপ যাদব এবং যুজবেন্দ্র চহাল। প্রসাদের মন্তব্য, ‘‘দলে সাত জন বোলার আছে। আমরা সব দিক দেখেই দল করেছি। ভারসাম্য ঠিক রেখেই আমরা বিশ্বকাপের জন্য একটা দল বেছে নিয়েছি।’’